চট্টগ্রামে এক বছরেরও বেশি সময় পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরলে নীরবেই।
চট্টগ্রামে এক বছরেরও বেশি সময় পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরলে নীরবেই।ছবি: শামসুল হক

ক্রিকেট ফিরল চট্টগ্রামে। কিন্তু এবার ফেরাটা পুরোপুরি অন্য রকম। ভিন্ন চেহারায়। করোনাকালের ক্রিকেটের বাস্তবতা মেনেই।

২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরের পর এই প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ চট্টগ্রামে। কিন্তু সেদিন বাংলাদেশ-আফগানিস্তান টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সঙ্গে আজকের বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচের আবহে অনেক পার্থক্য। সেদিন জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের আশপাশ ছিল লোকে লোকারণ্য। কিন্তু আজ স্টেডিয়ামের সামনের সাগরিকা রোডে সুনসান নীরবতা। করোনার এই সময় দর্শকদের মাঠে বসে খেলা দেখার সুযোগই যে রাখা হয়নি।

default-image

চট্টগ্রামের মানুষ ক্রিকেটপাগল। বন্দরনগরীতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট হবে আর মানুষের আগ্রহ থাকবে না, এমনটা হওয়ারই কথা নয়। কিন্তু আজ বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের ম্যাচটি নিয়ে মানুষের তেমন কোনো আগ্রহই দেখা যাচ্ছে না। স্থানীয় লোকজনের অনেকেই জানেন না আজ জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে একটি আন্তর্জাতিক ম্যাচ হচ্ছে। স্টেডিয়ামের বাইরের জনজীবন বুঝতেই দিচ্ছে না, এক বছরের বেশি সময় পর চট্টগ্রামে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরেছে আজ।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ দলের জন্য অবশ্য ম্যাচটা গুরুত্বপূর্ণ। ওয়ানডে সুপার লিগের ১০টি পয়েন্টের জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে লড়ছে বাংলাদেশ। তিন বছর পর ওয়ানডে দলে ফেরা পেসার তাসকিন আহমেদের জন্য ম্যাচটা গুরুত্বপূর্ণ। সাইফউদ্দিনেরও আজ ফেরার ম্যাচ।

২০১৭ সালের অক্টোবরে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে সর্বশেষ দেশের জার্সিতে ওয়ানডে খেলেছিলেন তাসকিন। এরপর বিরতিটা বেশ লম্বাই হয়েছে। চোটে পড়ে দলের বাইরে চলে গিয়েছিলেন। ফর্মটাও খুব ভালো যাচ্ছিল না। আজকের ম্যাচটি তাই তাসকিনের জন্য নিজেকে নতুন করে প্রমাণেরই। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে প্রথম দুই ম্যাচে হাসান মাহমুদকে সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। তাই আজকে তাসকিন চাইবেন বল হাতে উইকেট নিয়ে ফেরাটাকে সার্থক করতে।

সাইফউদ্দিনের ফেরাটা চোট কাটিয়েই। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের শুরুতেই চোটে পড়েছিলেন। আজ তাই সাইফউদ্দিনের জন্যও পরীক্ষা। চট্টগ্রামে সাইফউদ্দিন নিজেকে মেলে ধরতে পারেন কি না, সেটি দেখার অপেক্ষায় সবাই।

ফেরার এই ম্যাচ বাংলাদেশ জয় দিয়ে রাঙাক, এখন চাওয়া এটিই।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন