চাপ সামলানোই কোহলির কাছে বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে

বিজ্ঞাপন
default-image

বিশ্বকাপে ফেবারিট তকমা লাগিয়েই যাচ্ছে ভারত। চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ফাইনাল খেলার অভিজ্ঞতার সঙ্গে গত দু বছরের দুর্দান্ত ফর্ম ভারতকে নিয়ে আশাবাদী করে তুলছে সমর্থকদের। এই আশার ভার নেওয়াটা নিয়েই চিন্তায় আছেন কোহলি। বিশ্বকাপের মতো প্রতিযোগিতায় ভারতের বিশাল প্রত্যাশার চাপ সামলানো যে সব সময়ই কঠিন।

বিশ্বকাপ নিয়ে ভারতের প্রত্যাশার বেলুন সবার নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছিল বছরের শুরুতে। মাঝে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ঘরের মাঠে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যাওয়ার পরও সিরিজ হারার পর ধাক্কা সামলাতে সময় লেগেছে ভারতের। তবে সফল এক আইপিএলের পর ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ নিয়ে আবারও আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠেছে তারা। এ কারণেই এখনো যুক্তরাজ্যের গিয়ে পৌছায়নি ভারত। অবশেষে দেশ ছাড়ার আগে কোহলি বলছেন কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া কঠিন হবে না ভারতের জন্য।

আজ মঙ্গলবার দেশ ছাড়ার আগে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে কোহলি বলেছেন, ‘যে কোনো স্থানে আগে যাওয়া ভালো। বিশ্বকাপের মতো প্রতিযোগিতায় দলের মধ্যে থাকা সব অস্থিরতা কাটিয়ে তোলার জন্য এটা বেশ ভালো। ইংল্যান্ডে সাদা বলের খেলা, ওই কন্ডিশনে আইসিসির প্রতিযোগিতায় খেলার সঙ্গে টেস্ট খেলার খুব একটা পার্থক্য নেই, খুব একটা কঠিন নয়। বিশ্বকাপে কন্ডিশন নয়, চাপ সামলানোই বেশি গুরুত্বপূর্ণ।’

বিশ্বকাপের আগে ভারতের সব ক্রিকেটার ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন আইপিএলে। অনেকেই বিশ্বকাপে ভারতীয় বোলারদের ফিটনেস নিয়ে তাই শঙ্কিত। কোহলি অবশ্য উল্টো দাবিই করলেন। ভারত অধিনায়কের চোখে আইপিএলে রিয়ালের সব বোলারই তাজা রেখেছেন নিজেদের, ‘স্কোয়াডে থাকা সব বোলার আইপিএলে খেলার সময়ও ৫০ ওভারের ক্রিকেটের জন্য নিজেদের মানসিকভাবে প্রস্তুত করেছে। আমরা দেখেছি ওরা কীভাবে বল করছে, চার ওভার বল করার পর কাউকে ক্লান্ত মনে হয়নি। ওরা সবাই বেশ সতেজ আছে। সবার লক্ষ্য ছিল ৫০ ওভারের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করা এবং নিজেদের সুস্থ রাখা। আইপিএলের আগে সবাইকে সেটা জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন