default-image

২০১৫ সালে ওয়ানডেতে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে সফল দলগুলোর একটি বাংলাদেশ। প্রতিটি ম্যাচেই যেন নিজেদের ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রত্যয়ে নামেন ক্রিকেটাররা। আর তাই তো ২০১৫ সালে চার মারার দিক দিয়ে সবচেয়ে সফল দল বাংলাদেশ। এ বছর গড়ে প্রতি ম্যাচে বাংলাদেশ চার মেরেছে ২৭টি। বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার চেয়েও বাংলাদেশের ম্যাচপ্রতি চার হাঁকানোর গড় বেশি! অস্ট্রেলিয়া প্রতি ম্যাচে গড়ে মেরেছে ২৫টি চার।
বছরটা বাংলাদেশ শুরু করেছিল বিশ্বকাপ মঞ্চে আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয় দিয়ে। এর পরই ব্যাটসম্যানরা দলকে ভাসিয়েছেন রান বন্যায়। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে বিশ্বকাপে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান তাড়া করা, বিশ্বকাপে মাহমুদউল্লাহর টানা সেঞ্চুরির। এবার পাকিস্তানের বিপক্ষে টানা সেঞ্চুরি তামিমের। সঙ্গে আছে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতেই দলীয় সর্বোচ্চ ৩২৯ রান আর ওয়ানডেতে এক ম্যাচে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ৩৬টি চার মারার রেকর্ড। আর তামিম ইকবাল করেছেন ওয়ানডে ইতিহাসে তিন ম্যাচের সিরিজে সবচেয়ে বেশি ৪০টি চার মারার অনন্য কীর্তি। বাংলাদেশ এ বছর ৯ ম্যাচে মোট চার মেরেছে ২৪৪টি। ওয়ানডেতে বাংলাদেশ এক ম্যাচে ৩০-এর বেশি চার মেরেছে মাত্র ৬ বার। এর চারটি ম্যাচই ২০১৫ সালে।
এই বদলে যাওয়া বাংলাদেশ একদিনে হয়নি। তামিম-মুশফিক-সাকিবদের এমন একটি দলে পরিণত হতে অনেক পরিশ্রম করতে হয়েছে। টিম বাংলাদেশে এখন আছে সৌম্য-সাব্বিরদের মতো প্রতিভা। এ বছর বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ৫৭টি চার মেরেছে তামিম ইকবাল। এর পরই আছেন মুশফিক (৫৩), সৌম্য (৪৩), মাহমুদউল্লাহ (৩৩), সাকিব (২৩) ও সাব্বির (১৯)।

আর দলের সবাই যখন ফর্মের তুঙ্গে থাকে তখন চারের মারে বাংলাদেশ সেরা হলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকে না। বাংলাদেশিরা তাই গর্ব করতেই পারে, চার মারার দিক দিয়ে এ বছর এশিয়ার ‘পরাশক্তি’ তিন প্রতিবেশীকে অনেক পেছনে ফেলেছে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কা আছে ৬ নম্বরে, পাকিস্তান ৭, আর ভারত ১১ নম্বরে!


২০১৫ সালে ওয়ানডে খেলা দেশগুলোর গড়ে প্রতি ম্যাচে চারঃ

 দেশ ম্যাচ চার প্রতি ম্যাচে চার
 ১। বাংলাদেশ  ৯  ২৪৪  ২৭.১১
 ২। অস্ট্রেলিয়া  ১৩  ৩৩০  ২৫.৩৮
 ৩। জিম্বাবুয়ে  ৬  ১৫২  ২৫.৩৩
 ৪। দক্ষিণ আফ্রিকা  ১৩  ৩২৪  ২৪.৯২
 ৫। নিউজিল্যান্ড  ১৮  ৪৩৮  ২৪.৩৩
 ৬। শ্রীলঙ্কা  ১৪  ৩২৩  ২৩.০৭
 ৭। পাকিস্তান  ১২  ২৪০  ২০.০০
 ৮। আরব আমিরাত  ৬  ১১৯  ১৯.৮৩
 ৯। ওয়েস্ট ইন্ডিজ  ১২  ২৩৬  ১৯.৬৭
 ১০। আয়ারল্যান্ড  ১০  ১৯৫  ১৯.৫০
 ১১। ভারত  ১২  ২২৯  ১৯.০৮
 ১২। ইংল্যান্ড  ১১  ২০৮  ১৮.৯১
 ১৩। স্কটল্যান্ড  ১০  ১৮৪  ১৮.৪০
 ১৪। আফগানিস্তান  ১০  ১৪৪  ১৪.৪০
বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0