যুজবেন্দ্র চাহাল উইকেট পাওয়ার পর একটু যেন আবেগতাড়িত হয়ে পড়েন তাঁর স্ত্রী ধনশ্রী বর্মা।
যুজবেন্দ্র চাহাল উইকেট পাওয়ার পর একটু যেন আবেগতাড়িত হয়ে পড়েন তাঁর স্ত্রী ধনশ্রী বর্মা।ছবি: টুইটার

এবারের আইপিএলে দুর্দান্ত খেলছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। তিনটি ম্যাচ খেলে সব কটিই জিতেছে তারা। বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু জিতলেও উইকেটের দেখা পাচ্ছিলেন না দলটির ভারতীয় স্পিনার যুজবেন্দ্র চাহাল। সর্বশেষ কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে ৩৮ রানের জয়ের ম্যাচে এসে উইকেটের দেখা পেয়েছেন এই লেগ স্পিনার। ম্যাচে দুটি উইকেট নিয়ে দলের জয়ে ভূমিকা রেখেছেন তিনি। চাহাল প্রথম উইকেট পাওয়ার পর, মাঠে থাকা তাঁর স্ত্রী ধনশ্রী বর্মা আবেগী হয়ে পড়েছিলেন। মনে হচ্ছিল তিনি কাঁদছেন।

রবিবার চেন্নাইয়ের চিদাম্বরাম স্টেডিয়ামে কলকাতার মুখোমুখি হয়েছিল বেঙ্গালুরু। ৪ ওভারে ৩৪ রান দিয়ে ২ উইকেট পেয়েছেন চাহাল। শেষ ওভারের ২০ রান বাদ দিলে শুরুটা দারুণ করেছিলেন তিনি। প্রথম ৩ ওভারে ১৪ রান দিয়েই তুলে নিয়েছিলেন ২ উইকেট। প্রথম উইকেটটি ছিল কলকাতার ওপেনার নিতিশ রানার। চাহালের প্রথম ওভারে পাড়িক্কালের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন নিতিশ।

বিজ্ঞাপন
default-image

এরপর গ্যালারি স্ট্যান্ডে বসে খেলা দেখা ধনশ্রী দাঁড়িয়ে পড়েন। ক্যামেরা সেদিকে ধরলে দেখা যায়, দুই হাত দিয়ে মুখের খানিকটা ছুঁয়ে আকাশের দিকে তাকাচ্ছেন ধনশ্রী। মনে হচ্ছিল আবেগে প্রায় কেঁদেই ফেলবেন। সেই ছবি টুইটারে পোস্ট করেছেন অনেক ক্রিকেটপ্রেমী। তাঁদেরই একজন ভিকি। বিভিন্ন ইমো গুঁজে দিয়ে ভারতীয় এই দর্শক টুইটে লিখেছেন, চাহালের প্রথম উইকেটের পর ধনশ্রীর প্রতিক্রিয়া। প্রায় কেঁদেই ফেলেছিলেন তিনি। উভয়ের জন্য শুভকামনা।

এবারের আইপিএলে প্রথম উইকেট পাওয়ার পর আবেগতাড়িত হয়ে পড়েছিলেন চাহালও। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, ‘এটা দারুণ এক অনুভূতি। ভালো বল করার পরও উইকেট না পেলে কষ্ট হয়। প্রথম উইকেট পাওয়ার পর আমি আবেগতাড়িত হয়ে পড়েছিলাম।’ ম্যাচে চাহালের দ্বিতীয় শিকার ছিলেন দিনেশ কার্তিক।

শেষ ওভারে আন্দ্রে রাসেল বিধ্বংসী না হয়ে উঠলে চাহালের বোলিং পরিসংখ্যানটা হতে পারত আরও ভালো। ২০ রানের সেই ওভারে একটি ৬ ও তিনটি ৪ মেরেছেন ক্যারিবীয় এই অলরাউন্ডার। রাসেলের বিপক্ষে কী করতে চেয়েছিলেন, ম্যাচ শেষে সে পরিকল্পনাও খোলাসা করেছেন চাহাল, ‘আমি তাঁকে (আন্দ্রে রাসেল) আউট করতে চেয়েছিলাম। অনসাইডের বাউন্ডারি ছোট হওয়ায় আমি বাইরের দিকে বল করতে চেয়েছিলাম। তিন বল শেষে ফিল্ডিংয়ে পরিবর্তন আনি।’

আগামী পরশু বেঙ্গালুরু তাদের পরের ম্যাচটি খেলবে রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে। দেখা যাক, কোহলির দল জয়ের ধারা ধরে রেখে চারে চার করতে পারে কি না। আর চাহালই বা তাঁর উইকেট পাওয়ার ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারেন কি না!

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন