চীনের পৃষ্ঠপোষকই থাকছে আমিরাতে অনুষ্ঠেয় আইপিএলে

বিজ্ঞাপন
default-image

আগামী সেপ্টেম্বরে হবে আইপিএল—খবরটা পুরোনো। কিন্তু নতুন খবর হচ্ছে, ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টটি ভারতের মাটিতে না হয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতে আয়োজন করার ব্যাপারে ভারত সরকারের অনুমোদন পেয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর শুরু হয়ে ১০ নভেম্বর শেষ হবে এ বছরের আইপিএল। 

দোকলাম সীমান্তে চীনের সঙ্গে সংঘর্ষে ভারতীয় সেনা নিহত হওয়ার পর থেকে ভারত-চীন কূটনৈতিক সম্পর্কে এ মুহূর্তে টানাপোড়েন চলছে। এর জের ধরে ভারতজুড়ে চীনা পণ্য বর্জনের ডাকও উঠেছে। আইপিএলের টাইটেল স্পনসর, মোবাইল ফোন প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ভিভোর সঙ্গে বড় চুক্তি বিসিসিআইয়ের। এবারের আইপিএলেও টাইটেল স্পনসর হিসেবে থাকছে চীনের এই প্রতিষ্ঠানটি।

বিসিসিআইয়ের সঙ্গে ২০২২ সাল পর্যন্ত ৫ বছরের চুক্তি ভিভোর। দোকলামের ঘটনার পর এ চুক্তি বাতিল করা হবে কিনা, এ নিয়ে কথাবার্তা শুরু হয়েছিল। কিন্তু আপাতত চুক্তি থেকে সরে আসার কোনো সুযোগ নেই বলেই জানিয়েছেন বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা,‘আমি আশা করি আমাদের সব পৃষ্ঠপোষকরাই আমাদের সঙ্গে থাকছে।’ চুক্তি অনুযায়ী বাৎসরিক ৪৪০ কোটি রুপি পাওয়ার কথা বিসিসিআইয়ের।

আরব আমিরাতের তিনটি ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে আইপিএলের ম্যাচ। আট দলের ৬০টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে দুবাই, শারজা ও আবুধাবিতে। এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো আইপিএল আমিরাতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সেটি ২০১৪ সালে ভারতের লোকসভা নির্বাচনের সময়। এবার করোনা পরিস্থিতির কারণে আইপিএলের ভেন্যু হিসেবে আমিরাতকে বেছে নিতে হচ্ছে বিসিসিআইকে।

আইপিএলের ম্যাচগুলো হবে দুই সময়ে। বিকেলের ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে ভারতীয় সময় বিকেল সাড়ে তিনটায়। সন্ধ্যার ম্যাচটি সাড়ে সাতটায়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন