গল্পটা সেখানে শেষ হয়নি। আইপিএল শেষ হওয়ার দুই মাস পর জাদেজা নিজের ইনস্টাগ্রাম আইডি থেকে চেন্নাই সুপার কিংস সম্পর্কিত গত দুই বছরের সব পোস্ট মুছে ফেলেছেন। কদিন আগে ধোনির জন্মদিনেও কোনো শুভেচ্ছামূলক পোস্ট করেননি। ধারণা করা হচ্ছে, চেন্নাইয়ের সঙ্গে জাদেজার সব সম্পর্ক এবার শেষ হতে চলছে। সে ক্ষেত্রে আইপিএলের ২০২৩ মৌসুমে জাদেজাকে নতুন কোনো দলে দেখা যেতে পারে।

default-image

তবে চেন্নাইয়ের এক কর্মকর্তা এ ধরনের সম্ভাবনার কথা উড়িয়ে দিয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকে চেন্নাইয়ের পোস্ট সরিয়ে ফেলাকে তিনি জাদেজার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত বলছেন। এ ছাড়া জাদেজার সঙ্গে চেন্নাইয়ের কোনো সমস্যা নেই, সেটিও তিনি নিশ্চিত করেছেন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে চেন্নাইয়ের সেই কর্মকর্তা বলেছেন, ‘দেখুন, এটার তার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত। আমরা এ ব্যাপারে কিছু জানি না। আমাদের পক্ষ থেকে সব ঠিক আছে। কোনো সমস্যা দেখছি না।’

চেন্নাইকে অধিনায়ক জাদেজা ৮টি ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়েছেন। এর মধ্যে ৬টিই হেরেছে চেন্নাই। নিজেও ১০ ম্যাচ খেলে খুব ভালো কিছু করতে পারেননি। ২০ গড়ে ১১৬ রান করেছেন তিনি। বল হাতেও সাফল্যের মুখ দেখেননি এই বাঁহাতি। ১০ ম্যাচে মাত্র ৫ উইকেট নিয়েছেন, ইকোনমি ৭.৫১। এরপর তো চোটের কারণে আইপিএল থেকেই ছিটকে পড়েন।

default-image

তবে জাতীয় দলের হয়ে জাদেজা বরাবরই ধারাবাহিক। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে এজবাস্টন টেস্টের কথাই ধরুন। টেস্ট ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি করে তিনি ভারতকে এজবাস্টন টেস্টে বিপদ মুক্ত করেন। সেঞ্চুরিটা ইংল্যান্ডে বলেই জাদেজার কাছে বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে। এজবাস্টন টেস্টে চলাকালীন তিনি সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, ‘সেঞ্চুরিটা ভারতের বাইরে করতে পেরে ভালো লাগছে। বিশেষ করে ইংল্যান্ডে। এখানে বল সুইং করে থাকে। অনেক বেশি শট খেলা যায় না। সেদিক থেকে ভালো লাগছে।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন