বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চোটের কারণে বেশ অনেক দিন ধরেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে আছেন। তামিম সবশেষ দেশের হয়ে খেলেছেন গত জুলাই মাসে জিম্বাবুয়ে সফরে। সেখানেও হাঁটুর চোট নিয়ে খেলেছেন। এরপর ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া সিরিজেও দলের বাইরে ছিলেন।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকেও তামিম নিজেকে সরিয়ে নেন। সুস্থ হয়ে নেপালের এভারেস্ট টি-টোয়েন্টিতে খেলায় ফিরেছিলেন। কিন্তু সেই লিগ আবারও বিপদ ডেকে আনে তাঁর। নেপালের টি-টোয়েন্টি লিগেই ব্যাটিংয়ের সময় বাঁ হাতের বুড়ো আঙুলে চোট পান তিনি।

default-image

সেই চোট থেকে সুস্থ হয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার আশায় ছিলেন তামিম। সিরিজের জন্য ব্যক্তিগত উদ্যোগে প্রস্তুতিও নিচ্ছিলেন। প্রথমে টেনিস বলে ব্যাটিং করেছেন। এরপর ধীরে ধীরে ক্রিকেট বলে অনুশীলন শুরু করেন। স্পিন বোলিংয়ের বিপক্ষে স্বাচ্ছন্দ্যে খেললেও পেস বোলিং খেলার সময় হাতে ব্যথাটা অনুভব করছিলেন তিনি। আঙুলের ফোলাও কমছিল না।

তখন কারণ খুঁজে বের করতে আঙুলে এক্স-রে করানো হয়। বড় দুঃসংবাদটা পান তখনই। নেপালে পাওয়া চোটের জায়গাতেই আরেকটি চিড় ধরা পড়ে। যা প্রথম এক্স-রেতে ধরা পড়েনি। চোটের কারণে পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ খেলা হচ্ছে না তামিমের। শঙ্কা আছে ডিসেম্বর-জানুয়ারি মাসের নিউজিল্যান্ড সফর নিয়েও।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন