ফিফটি করেই ফিরেছেন সাকিব।
ফিফটি করেই ফিরেছেন সাকিব।ছবি: শামসুল হক

তামিমের বিদায়ের পর বড় ভরসা ছিলেন সাকিব আল হাসান। কিন্তু তিনি ফিফটি (৫১) পূরণ করেই ফিরেছেন। রেইফারের বলে বোল্ড হয়েছেন তিনি। মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে ৪৭ রানের জুটি গড়েছিলেন। মুশফিক অপরাজিত আছেন ২৭ রানে।

শুরুর বিপর্যয় সামলে ভালোই খেলছিলেন তামিম ইকবাল। সঙ্গে ছিলেন সাকিব আল হাসান। ১২১ বলে ৯৩ রানের জুটিও গড়েছিলেন। কিন্তু সেটি আর বড় করতে পারেননি। ফিরে গেছেন তামিম ইকবাল। জোসেফের বলে আকিল হোসেনকে ক্যাচ দিয়েছেন তিনি। ফেরার আগে তাঁর ব্যাট থেকে আসে ৮০ বলে ৬৪। জোসেফের শর্ট বলে মিড উইকেটে ক্যাচ দিয়েছেন তামিম।

বাংলাদেশের সংগ্রহ এ প্রতিবেদন তৈরির সময় ৩৬.৪ ওভারে ওভারে ৪ উইকেটে ১৭৯।

মাঠের আম্পায়ার এলবিডব্লু দেওয়ার পর তামিম ইকবালের সঙ্গে পরামর্শ করেছিলেন লিটন দাস। তাতে রিভিউ নেওয়ার সময় পেরিয়ে যায়। বল স্টাম্পের ওপর ছিল কি না, লিটনের আউটে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে। তবে পরাস্ত হয়েছিলেন পুরোপুরি, যেমনটা হয়েছেন নাজমুল হোসেনও। তাতে আউটও হতে হয়েছে সেই এলবিডব্লুরই শিকার হয়ে।

default-image

নবম ওভারের চতুর্থ বলে কাইল মায়ার্সের স্টাম্পের বল খেলতে গিয়ে এলবিডব্লু হন নাজমুল। ৩০ বলে ২০ রান করে ফেরেন তিনি। এই ওয়ানডে সিরিজে দলের ইনিংসে সেভাবে দাঁড়াতে পারলেন না তিনে নামা এই ব্যাটসম্যান।

default-image
বিজ্ঞাপন

সামনে পা নিয়ে মায়ার্সের বল খেলার চেষ্টা করেছিলেন নাজমুল। ব্যাটে পাননি। স্টাম্পের ওপরে থাকতে পারে, এ সন্দেহ থেকে সম্ভবত রিভিউ নিয়ে বাঁচার চেষ্টা করেছিলেন তিনি। কিন্তু তৃতীয় আম্পায়ার তাঁর বাঁচার আবেদনে সাড়া দেননি। সাকিব আল হাসান উইকেটে এসে ঠিক তার পরের বলেই ক্যাচ তুলে দিয়েছিলেন মায়ার্সকে। লাফিয়ে একটুর জন্য ক্যাচটা নিতে পারেননি এ পেসার। পরের ওভারে ঠিক একইভাবে এলবিডব্লুর ফাঁড়া কাটান তামিম। ওয়েস্ট ইন্ডিজ রিভিউ নিয়েছিল কিওন হার্ডিংয়ের করা সেই ওভারে। লেগ স্টাম্পের বাইরে বল পিচ করায় আউট দেননি তৃতীয় আম্পায়ার।

তিন ম্যাচের এই ওয়ানডে সিরিজে ঢাকায় প্রথম দুই ম্যাচ জিতেছে বাংলাদেশ। সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে জিততে আজ চট্টগ্রামে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে টস হেরে আগে ব্যাটিংয়ে নেমেছে বাংলাদেশ। এই শেষ ম্যাচে হাসান মাহমুদ ও রুবেল হোসেনের বদলে দলে ঢুকেছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও তাসকিন আহমেদ।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন