চাপে পড়লেও সাকিবের অসাধারণ ইনিংসে এক ম্যাচ বাকি রেখেই সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ।
সম্প্রচার শেষ ২০ জুলাই ২০২১, ১৩: ২৫

বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে দ্বিতীয় ওয়ানডে

সাকিব-বীরত্বে সিরিজ বাংলাদেশের

১২: ৫৫, জুলাই ১৮

হারারেতে টস জিতে ব্যাটিং নিয়েছে জিম্বাবুয়ে।

বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডের লাইভ আপডেটে সবাইকে স্বাগত

১৩: ০৫, জুলাই ১৮

বাংলাদেশ একাদশ

অপরিবর্তিত আছে বাংলাদেশ একাদশ।

তামিম ইকবাল, লিটন দাস, সাকিব আল হাসান, মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেন, আফিফ হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, শরীফুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ

১৩: ১১, জুলাই ১৮

জিম্বাবুয়ে একাদশ

জিম্বাবুয়ে একাদশে ফিরেছেন সিকান্দার রাজা, দলে এসেছেন তিনাশে কামুনহুকামওয়ে। আগের ম্যাচে চোট পাওয়া টিমিসেন মারুমার সঙ্গে বাদ পড়েছেন লেগস্পিনার রায়ান বার্ল।

ব্রেন্ডন টেলর, সিকান্দার রাজা, রেজিস চাকাভা, টেন্ডাই চাতারা, লুক জঙ্গুয়ে, তিনাশে কামুনহুকামওয়ে, ওয়েসলি মাধভেরে, তাদিওয়ানাশে মারুমানি, ব্লেসিং মুজারাবানি, ডিওন মায়ার্স, রিচার্ড এনগারাভা

১৩: ১৩, জুলাই ১৮

আজই সিরিজ জিতবে বাংলাদেশ? 

আগের ম্যাচে দাপুটে জয়ে সিরিজে এগিয়ে গেছে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ম্যাচেই তাই সিরিজ জয়ের হাতছানি, সঙ্গে বিশ্বকাপ সুপার লিগে আরও দশ পয়েন্টের সম্ভাবনা। আজই সিরিজ জিততে পারবে বাংলাদেশ? আপনার মত জানান এখানে

১৩: ২১, জুলাই ১৮

টপ অর্ডার থেকে রান চান তামিম

টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৬৮ রানে ৩ উইকেটের পর প্রথম ওয়ানডেতে ৫৭ রানেই ৩ উইকেট হারিয়েছিল বাংলাদেশ। টপ অর্ডারে তাই রান চান অধিনায়ক তামিম ইকবাল। দ্বিতীয় ওয়ানডের আগে তিনি জানিয়েছিলেন তার চাওয়া, ‘উন্নতির তো কোনো শেষ নেই। তবে কম রানে যদি তিনটা উইকেট পড়ে যাওয়া আদর্শ না। টপ অর্ডার থেকে আমি বা সাকিব যদি আরেকটু ভালো খেলি, তাহলে দল হয়তো এমন অবস্থায় পড়বে না। চেষ্টা করব যে পরের ম্যাচে এমন সুযোগ এলে কাজে লাগাতে।’

আজ জ্বলে উঠতে পারবে বাংলাদেশের টপ অর্ডার?

১৩: ৩০, জুলাই ১৮

টসে হেরে ভালই হয়েছে বাংলাদেশের!

উইকেটে তেমন ঘাস নেই। তরুণ দলকে রানতাড়ার চাপে ফেলতে চান না বলে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, জানিয়েছেন জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক ব্রেন্ডন টেলর। অন্যদিকে তামিম ইকবাল বলেছেন, টসে হেরে একদিক দিয়ে ভালই হয়েছে। টসে জিতলে কী করবেন, সেটি নিশ্চিত ছিলেন না তিনি।

১৩: ৩৫, জুলাই ১৮

উইকেটকিপিংয়ে লিটন দাস

আগের ম্যাচে ব্যাটিংয়ের সময় চোট পাওয়ার পর উইকেটকিপিং করেননি লিটন। তাঁর বদলি হিসেবে ছিলেন নুরুল হাসান সোহান। অবশ্য ম্যাচের পর লিটন বলেছিলেন, দুই ম্যাচের মাঝের সময়ের বিশ্রাম নিলেই ঠিক হয়ে যাবেন। আজ তিনি ফিরেছেন উইকেটকিপিংয়ে।

১৩: ৩৯, জুলাই ১৮

প্রথম ওভারেই সফল তাসকিন

প্রথম বলটা তাসকিন করেছিলেন ওয়াইড, এরপর তিনাশে কামুনহুকামওয়ে ক্যাচ তুললেও সেটি গিয়েছিল শূন্য থাকা গালি পজিশনে। এরপর অফস্টাম্পের বাইরে কাট করতে গিয়ে মিস করেছেন কামুনহুকামওয়ে। সেসব ডেলিভারিতে বেঁচে গেলেও ওভারের শেষ বলে ঠিকই ফিরলেন তিনি। অফস্টাম্পের বাইরে শর্ট অফ আ লেংথের বলটা কাট করতে গিয়েছিলেন কামুনহুকামওয়ে, ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টে আফিফ হোসেনের হাতে গেছে সরাসরি ক্যাচ। ৩ রানেই প্রথম উইকেট হারিয়েছে জিম্বাবুয়ে।

১৩: ৫৮, জুলাই ১৮

এক ওভারে পড়লো দুটি ক্যাচ

এক ওভারে দুটি সুযোগ হাতছাড়া করলো বাংলাদেশ। তাসকিন আহমেদের বলে দুবারই বেঁচে যাওয়া ব্যাটসম্যান তাদিওয়ানাশে মারুমানি। প্রথমে মিড-অনে ঠিকঠাক লাফ দিলেও ক্যাচ ঠিকঠাক নিতে পারেননি মাহমুদউল্লাহ, সেটি হয়েছে চার। এরপর সুযোগটি ছিল বেশ সহজ, ঠিক পরের বলেই। থার্ডম্যানে সাইফউদ্দিন ফেলে দিয়েছেন সেটিই, সেখান থেকে এসেছে ২ রান। মারুমানি আউট হতে পারতেন ৬ ও ১০ রানে, তবে এখনও অক্ষত তিনি।

১৪: ০২, জুলাই ১৮

প্রথম ওভারে সফল মিরাজও 

মিরাজ এলেন, আঘাত করলেন। আগের ওভারে দুইবার বেঁচে যাওয়া মারুমানি গিয়েছিলেন স্লগ করতে। লাইন পুরোপুরি মিস করে হয়েছেন বোল্ড। মারুমানি তাই বেশিক্ষণ ভোগাতে পারলেন না বাংলাদেশকে। ৩৩ রানের মাঝে দুই ওপেনারকেই হারালো জিম্বাবুয়ে।

১৪: ১৩, জুলাই ১৮

আবেদন

তাসকিন আহমেদের বলে ব্রেন্ডন টেলরের বিপক্ষে এলবিডব্লুর জোরালো আবেদন হলেও সাড়া দেননি আম্পায়ার আইনো চাবি। ফুললেংথ থেকে ভেতরের দিকে ঢুকছিল বলটা, সেটিই লেগেছিল টেলরের সামনের প্যাডে। রিপ্লেতে দেখা গেছে, ইনসাইড-এজও ছিল না। চাপে পড়া জিম্বাবুয়েকে এ পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসতে প্রয়োজন জুটির। আগের ম্যাচে জিম্বাবুয়ের ব্যাটিংয়ের একমাত্র উজ্জ্বল দিক রেজিস চাকাভা আজ এসেছেন তিন নম্বরে, এখনও টিকে আছেন তিনি।

১৪: ২২, জুলাই ১৮

তাইজুল হতে গিয়েও হলেন না টেলর! 

সর্বশেষ শ্রীলঙ্কা সফরের দ্বিতীয় টেস্টে পাল্লেকেলেতে সুরঙ্গ লাকমলের বলে তাইজুল ইসলাম হিট-উইকেট হয়েছিলেন অদ্ভুতভাবে। পেছনে গিয়ে খেলতে গিয়ে পিছলে গিয়েছিলেন, জুতা খুলে এসেছিল পা থেকে। সে জুতা ভেঙেছিল স্টাম্প!

ব্রেন্ডন টেলর আরেকটু হলেই তাইজুলের সে স্মৃতি ফিরিয়ে এনেছিলেন আজ হারারেতে! তাসকিনের বলটা খেলতে গিয়ে ভারসাম্য হারিয়েছিলেন তিনিও। তাঁরও জুতা খুলে এসেছিল। তবে শেষ পর্যন্ত স্টাম্পের ঠিক আগে আটকে গেছে সে জুতা। টেলর তাই বেঁচে গেছেন এ দফা।

১৪: ৩৯, জুলাই ১৮

এগোচ্ছেন টেলর-চাকাভা

সাকিবকে চার মেরে শুরু করেছিলেন, এরপর শরীফুলকে চার-ছয় মেরেছেন টেলর। ১৫তম ওভারে শরীফুলকে মেরেছেন আরও দুটি চার। চাকাভাকে সঙ্গে নিয়ে এগোচ্ছেন জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক। ১৫তম ওভার শেষে জিম্বাবুয়ের স্কোর ২ উইকেটে ৭৪ রান। ৩য় উইকেট জুটিতে এখন পর্যন্ত উঠেছে ৪১ রান। তামিম ব্যবহার করেছেন পাঁচজন বোলারকেই।

১৪: ৪১, জুলাই ১৮

জুটি ভাঙলেন সাকিব

তাসকিন, মিরাজের পর সাকিবের আঘাত। সাকিবের ফুললেংথের বলে লাইন মিস করেছেন চাকাভা, হয়েছেন বোল্ড। ভেঙেছে টেলরের সঙ্গে তাঁর ৪৭ রানের জুটি। দলীয় ৮০ রানে তৃতীয় উইকেট হারিয়েছে জিম্বাবুয়ে।

১৪: ৫১, জুলাই ১৮

ক্রিকেটের 'পারফেক্ট কন্ডিশন'

হারারে থেকে প্রতিনিধি:

গত ম্যাচে বেশ শীত ছিল হারারেতে। তবে এদিনের আবহাওয়া বেশ ভাল। তাপমাত্রা ১৫ ডিগ্রি। আকাশও পরিস্কার, রোদও আছে। ক্রিকেটের জন্য যাকে বলে ‘পারফেক্ট কন্ডিশন’।

১৫: ১১, জুলাই ১৮

জিম্বাবুয়ের একশ

২৩তম ওভারে একশ ছুঁয়ে ফেললো জিম্বাবুয়ে। চাকাভার উইকেটের পর বেশ সতর্ক তারা। তৃতীয় উইকেট পড়ার পরের ৭ ওভারে বাউন্ডারি হয়েছে মাত্র একটি।

১৫: ২৩, জুলাই ১৮

এভাবেও আউট হওয়া যায়!

বিশ্বাস করতে হলে আদতে দেখতে হবে, টেলর কীভাবে আউট হলেন!

একবার বেঁচেছিলেন পা থেকে জুতা খুলে গিয়েও স্টাম্পের আগে গিয়ে থেমে যাওয়ায়। তবে এবার টেলর সেই হিট-উইকেটই হলেন! শরীফুলের শর্ট বলে আপার কাট করতে গিয়েও পারেননি, তবে সে শটের প্রতিক্রিয়ায় ব্যাটটা ঘুরিয়ে এনেছিলেন পেছনের দিকে। তখন পর্যন্ত সবকিছু স্বাভাবিকই ছিল। বিপত্তি ঘটলো যখন টেলরের ব্যাট গিয়ে আঘাত করলো স্টাম্পে- অদ্ভুতুড়ে আউট! অন-ফিল্ডে দায়িত্বে থাকা দুই আম্পায়ার গিয়েছিলেন টিভি আম্পায়ারের কাছে, প্রথম রিপ্লেতেই বুঝা গেছে টেলরের ব্যাট কী করেছে!

৪৬ রান করেই থামতে হলো জিম্বাবুয়ে অধিনায়ককে। অদ্ভুত ব্রেকথ্রু পেলো বাংলাদেশ।

১৫: ৩৫, জুলাই ১৮

টেলরের দুই রকম দিন

এ ইনিংসেই গ্রান্ট ফ্লাওয়ারকে টপকে জিম্বাবুয়ের হয়ে ওয়ানডেতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের মালিক হয়েছেন ব্রেন্ডন টেলর। তাঁর সামনে এখন শুধু আরেক ফ্লাওয়ার- অ্যান্ডি। তবে এদিনই একটা ‘প্রথম’ তিক্ত স্বাদ পেলেন টেলর। আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে এই প্রথম হিট-উইকেট হলেন তিনি। শুধু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট নয়, স্বীকৃত ক্রিকেটেই প্রথমবার এমনভাবে আউট হওয়ার স্বাদ পেলেন টেলর।

১৫: ৪৬, জুলাই ১৮

চোট পেয়ে মাঠ ছাড়লেন মিরাজ

নিজের বলে ফিল্ডিং করতে গিয়ে নন-স্ট্রাইক প্রান্তের ব্যাটসম্যানের ব্যাট ও বলের মাঝে এসে পড়েছিল মিরাজের ডান হাত। সে আঘাতে ফেটে গেছে হাত, এরপর ফিজিওর সঙ্গে মাঠ ছেড়েছেন তিনি। ডান হাত বলে ঝুঁকিটা বেশি, মিরাজের তো সেটিই 'বোলিং-হ্যান্ড'! মিরাজের অসম্পূর্ণ ওভার শেষ করেছেন মোসাদ্দেক হোসেন। অবশ্য এই ওভার শেষ করার ব্যাপারটা এ সফরে মোসাদ্দেকের জন্য এবারই প্রথম নয়। ওয়ানডে সিরিজের আগে প্রস্তুতি ম্যাচে মোস্তাফিজ চোট পেয়ে উঠে গিয়েছিলেন, সে ওভারও শেষ করেছিলেন তিনি।

বাংলাদেশ ফিল্ডারের চোটও এই ম্যাচে এটি প্রথম নয়। এর আগে ফিল্ডিংয়ে ‘রক্তাক্ত’ হয়েছেন তাসকিন আহমেদও। বাউন্ডারি লাইনে ফিল্ডিং করতে গিয়ে তাঁরও ডান হাতের কনুইয়ের নিচের অংশ ছড়ে গেছে। তিনি অবশ্য মাঠেই আছেন।

১৫: ৫৭, জুলাই ১৮

আবারও ব্রেকথ্রু সাকিবের

ডিওন মায়ার্স ও ওয়েসলি মাধভেরের জুটিটা বড় হতে দিলেন না সাকিব। তাঁকে টেনে মারতে গিয়ে লং-অন থেকে ডানদিকে ছুটে আসা মাহমুদউল্লাহর হাতে ধরা পড়েছেন ৫৯ বলে ৩৪ রান করা মায়ার্স। ১৪৬ রানে পঞ্চম উইকেট হারিয়েছে জিম্বাবুয়ে।

১৬: ০৭, জুলাই ১৮

কতদূর যাবে জিম্বাবুয়ে? 

১৬: ২৫, জুলাই ১৮

৭ম বোলার হিসেবে আফিফ

মিরাজের অসম্পূর্ণ ওভার শেষ করার পর আরেকটি করেছিলেন মোসাদ্দেক হোসেন। এবার ৭ম বোলার হিসেবে আফিফ হোসেনকে এনেছেন তামিম। যদিও শুরুটা মনমতো হয়নি আফিফের, প্রথম ওভারে দিয়েছেন ১১ রান। তাঁর ওভারে হয়েছে ইনিংসের দ্বিতীয় ছক্কাও। মাধভেরে সেটি মেরেছেন লং-অফ দিয়ে। ত্রিশ পেরিয়ে গেছে মাধভেরের সঙ্গে সিকান্দার রাজার জুটি।

১৬: ৩৬, জুলাই ১৮

মাধভেরের ফিফটি, ফিফটি জুটি, জিম্বাবুয়ের ২০০

মাঠে ফিরেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ, ফিরেছেন বোলিংয়েও। তাঁর বলেই ইনসাইড-আউটে চার মেরে ক্যারিয়ারের তৃতীয় ফিফটি পূর্ণ করেছেন ওয়েসলি মাধভেরে, বাংলাদেশের বিপক্ষে যা দ্বিতীয়। ৫২ বলেই মাইলফলকে পৌঁছে গেছেন তিনি। সিকান্দার রাজার সঙ্গে তাঁর জুটি ছুঁয়েছে পঞ্চাশ। ৭ ওভার বাকি থাকতে ২০০-ও পেরিয়ে গেছে জিম্বাবুয়ে।

১৬: ৪৬, জুলাই ১৮

তামিমের দারুণ ক্যাচে ফিরলেন মাধভেরে

ছিলেন লং-অফে, সেখান থেকে বাঁ দিকে ছোটা শুরু করলেন। শেষ মুহুর্তে ডাইভ দিলেন তামিম ইকবাল। ওয়েসলি মাধভেরের ক্যাচটা বাংলাদেশ অধিনায়ক নিলেন দারুণভাবে। শরীফুল ইসলামকে স্লাইস করেছিলেন মাধভেরে, টাইমিং হয়নি ঠিকঠাক। এরপর তামিমের ওই অসাধারণ ক্যাচেই থামতে হলো তাঁকে, ৬৩ বলে ৫৬ রান করার পর। ইনিংসে ৫ চার ও একটি ছয় মেরেছেন তিনি। ২০৯ রানে ৬ষ্ঠ উইকেট হারিয়েছে জিম্বাবুয়ে, শরীফুল পেয়েছেন তাঁর দ্বিতীয়টি।

১৬: ৫৪, জুলাই ১৮

শরীফুলের তৃতীয়

শরীফুলের বলটা ছিল লো-ফুলটস। লুক জঙ্গুয়ে সেটিই তুলে দিলেন মিডউইকেটে। বাউন্ডারি থেকে ছুটে এসে আরেকটি ভাল ক্যাচ, এবার ফিল্ডার মোসাদ্দেক হোসেন। শরীফুলের অবশ্য জঙ্গুয়ের ‘বাজে শট’-এ কিছু যায় আসে না, তিনি পেয়ে গেছেন তৃতীয় উইকেট। ৭ম উইকেট হারিয়েছে জিম্বাবুয়ে, ওপাশে টিকে আছেন সিকান্দার রাজা।

১৬: ৫৮, জুলাই ১৮

এবং চতুর্থ

নিজের ৯ম ওভারের শেষ বলে চতুর্থ উইকেটটিও পেয়ে গেলেন শরীফুল। শর্ট বলে তুলে মারতে গিয়ে আকাশে তুলেছিলেন ব্লেসিং মুজারাবানি, সে ক্যাচ নিতে লিটন দাসকে তেমন কিছু করতে হয়নি। শেষে এসে আবারও খেই হারিয়েছে জিম্বাবুয়ে।

১৭: ০১, জুলাই ১৮

রইল বাকি এক

দুটি চার মেরেছিলেন, তবে এ ওভারেই ফিরতে হলো সিকান্দার রাজাকে। ফেরার দিনে এই অলরাউন্ডার করেছেন ৪৪ বলে ৩০ রান। সাইফউদ্দিনের ধীরগতির শর্ট বলে র‍্যাম্পের মতো শট খেলতে গিয়েছিলেন রাজা, ধরা পড়েছেন লিটনের হাতে।

১৭: ১২, জুলাই ১৮

২৪০ রানে থামল জিম্বাবুয়ে

অল-আউট না হলেও ২৪০ রানেই থামল জিম্বাবুয়ে।

শুরু থেকেই নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়েছে জিম্বাবুয়ে। ৩য় উইকেটে ব্রেন্ডন টেলর ও রেজিস চাকাভা তুলেছিলেন ৪৭ রান, এরপর ৬ষ্ঠ উইকেটে গিয়ে সিকান্দার রাজার সঙ্গে ওয়েসলি মাধভেরের জুটিতে উঠেছিল ৬৩ রান। জিম্বাবুয়ে ইনিংসের উল্লেখযোগ্য জুটি এ দুটিই। টেলর শুরু করেছিলেন ভালোই, তবে অদ্ভুত ভাবে হিট-উইকেট হয়ে ফিফটি পাননি তিনি। মাধভেরে ফিফটি পেয়েছেন, তবে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে তাঁকে ফিরিয়েছেন শরীফুল। এই বাঁহাতি পেসার শেষ পর্যন্ত ৪ উইকেট নিয়েছেন ৪৬ রানে, এর আগে ৩ ম্যাচে তাঁর উইকেট ছিল তিনটি।

শরীফুল ছাড়াও উইকেট পেয়েছেন ফ্রন্টলাইনের বাকি চারজন বোলারই। ৪২ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন সাকিব, একটি করে নিয়েছেন তাসকিন, সাইফউদ্দিন ও মিরাজ।

শেষ ১০ ওভারে ৫৫ রানের বেশি তুলতে পারেনি জিম্বাবুয়ে।

১৭: ২৫, জুলাই ১৮

হার্ডলাইফ থেকে প্রসপার—নামেও কিছু আসে যায়

"জিম্বাবুয়েতে সন্তানের নাম রাখার ব্যাপারে মজার ও অদ্ভুত কিছু সংস্কৃতি আছে। ধরুন, কোনো মা–বাবার আশা, তাঁদের সন্তান খুব মেধাবী হবে। তাঁরা তখন সন্তানের নামের সঙ্গে বসিয়ে দিতে পারেন ‘ট্যালেন্ট’ শব্দটা। জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটের আর্টস অ্যান্ড গ্রাফিকস ডিজাইনার ট্যালেন্ট জভানইয়ানার নামটা সেভাবেই রাখা। নামের প্রথম অংশের অর্থ তো বুঝেছেনই, মেধাবী। স্থানীয় ‘শোনা’ ভাষায় দ্বিতীয় অংশ ‘জভানইয়ানার’ শব্দটিরও একটা ইংরেজি অর্থ আছে, ‘টু মাচ’, বাংলায় ‘অত্যন্ত’ বা ‘খুব বেশি’।"

ইনিংস-বিরতিতে পড়ুন তারেক মাহমুদের হারারের ডায়েরি

১৭: ৪৪, জুলাই ১৮

প্রথম ওভারে এক

ব্লেসিং মুজারাবানির প্রথম ওভারে হয়েছে শুধু একটি ওয়াইড। ৬ বল খেলে শূন্যতেই আছেন তামিম ইকবাল। তামিমের শূন্যের কথা আলাদা করে বলার কারণ- আগের ম্যাচে শূন্যতেই ফিরেছিলেন তিনি, গড়েছিলেন রেকর্ডও

১৭: ৫১, জুলাই ১৮

৮ বলের অপেক্ষার পর দুই বাউন্ডারি

প্রথম ৮ বলে শূন্য, তবে এরপর তামিম যে দুটি শট খেললেন, তাতে ৮ বল অপেক্ষা করাই যায়! মুজারাবানির প্রথমে শর্ট অফ আ লেংথের বলটা পয়েন্টের ওপর দিয়ে স্ল্যাশ করেছিলেন দারুণ টাইমিংয়ে, হয়েছে চার। এক বল পর একটু ফুললেংথে গিয়েছিলেন মুজারাবানি, তামিম এবার করেছেন দারুণ এক কাভার ড্রাইভ। প্রথম দুই ওভারে এক রান ওঠার পর তৃতীয় ওভারে এসেছে ৮ রান।

১৮: ০৬, জুলাই ১৮

অল্পর জন্য বাঁচলেন তামিম

টেন্ডাই চাতারার বলটা আগবাড়িয়ে খেলতে গিয়ে স্লিপে ক্যাচ তুলেছিলেন তামিম। ব্রেন্ডন টেলরের হাতের একটু আগে পড়েছে সেটি। এর আগে এ ওভারে তামিম কাভার ড্রাইভে মেরেছেন আরেকটি চার। ৬ ওভার শেষে বাংলাদেশের রান ২০।

১৮: ২০, জুলাই ১৮

লিটনের তিন চার

প্রথম অফস্টাম্পের বাইরে গুডলেংথ চ্যানেলে করেছিলেন টেন্ডাই চাতারা, সামনে এসে সেটিকে মিডউইকেটে পাঠিয়েছিলেন লিটন দাস। পরেরটি প্যাডের ওপর ছিল, সেটি লিটন ক্লিপ করেছেন আরেকটু ফাইনে। এরপরের বলটিও ছিল প্যাডের ওপর, এবার স্কয়ার লেগ দিয়ে গ্যাপ বের করেছেন লিটন। এ ওভারের আগে ১৭ বলে ৪ রান ছিল লিটনের, ২২ বলে তাঁর রান গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১৭।

১৮: ২৩, জুলাই ১৮

রাজার দারুণ ক্যাচে ফিরলেন তামিম

চাতারাকে সরিয়ে লুক জঙ্গুয়েকে এনেছিলেন টেলর, তাঁর প্রথম বলেই চার মেরেছিলেন তামিম। তবে জিম্বাবুয়েকে ব্রেকথ্রু দিলেন জঙ্গুয়েই। এ উইকেটে অবশ্য সিকান্দার রাজার অবদানও কম নয়! জোরের ওপর খেলেছিলেন তামিম, পয়েন্টে বাঁদিকে ঝাঁপিয়ে দারুণ ক্যাচ নিয়েছেন এ ম্যাচ দিয়েই ফেরা রাজা। বাংলাদেশ অধিনায়ক ফিরেছেন ৩৪ বলে ২০ রান করে, ৩৯ রানে প্রথম উইকেট হারাল বাংলাদেশ।

১৮: ৩২, জুলাই ১৮

চাকাভা-লিটনের ‘সংঘর্ষ’

মিডউইকেটে খেলে সিঙ্গেলের জন্য দৌড় শুরু করেছিলেন লিটন। তবে সাকিব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন তাঁকে। দারুণ ফিল্ডিংয়ের পর অবশ্য থ্রো-টা সরাসরি লাগেনি, তবে সে থ্রো ধরতে আসা উইকেটকিপার রেজিস চাকাভার সঙ্গে ‘সংঘর্ষ’ হয়ে গেছে লিটনের। উলটো হয়ে পড়ে গেছেন লিটন, মাঠে এসেছিলেন ফিজিও। কিছুক্ষণ বিরতির পর অবশ্য খেলা শুরু করেছিলেন লিটন। আগের ম্যাচে ব্যাটিংয়ের সময়ই একদফা চোট পেয়েছিলেন লিটন, এরপর উইকেটকিপিং করেননি। আজ অবশ্য শুরু থেকেই ছিলেন উইকেটের পেছনে।

১৮: ৩৫, জুলাই ১৮

ফিরলেন লিটনও

চাকাভার সঙ্গে সংঘর্ষের পরই কিনা, মনযোগটা একটু নড়ে গেল লিটনের। রিচার্ড এনগারাভার বাইরের বলে প্রথমে ব্যাট চালালেন। সে দফা সংযোগ না হলেও পরের বলে পুল করতে গিয়ে আকাশে তুললেন বল। মিড-অনে সহজ ক্যাচ নিয়েছেন টেলর, ৩৩ বলে ২১ রান করে ফিরলেন আগের ম্যাচে সেঞ্চুরি করা লিটন। ৪৬ রানে বাংলাদেশ হারাল দ্বিতীয় উইকেট, ফিরলেন দুই ওপেনারই।

১৮: ৪২, জুলাই ১৮

আরেকটি আলগা শটে মৃত্যু ডেকে আনলেন মিঠুন

প্রথম ম্যাচে বাইরের বলে ব্যাট চালিয়ে ধরা পড়েছিলেন, এবার মোহাম্মদ মিঠুন খেললেন আরও আলগা শট। অফস্টাম্পের বাইরে রিচার্ড এনগারাভার বলে শুধু ক্যাচটা তোলার জন্যই যেন খেললেন সেটি। পয়েন্টে আরেকটি ভাল ক্যাচ, এবার ফিল্ডার ওয়েসলি মাধভেরে। ৪ রানের ব্যবধানে ২ উইকেট হারাল বাংলাদেশ, ১১ রানে হারাল ৩টি। মিঠুন ফিরলেন ২ রান করে, প্রথম ম্যাচে ১৯ রানের পর।

১৮: ৫৯, জুলাই ১৮

আজ হবে সাকিবের দিন?

৪ ইনিংস আগেও করেছেন ফিফটি, তার আগে আছে ৪৩ রানের আরেকটা ইনিংস। তবে শেষ ৪ ইনিংসে ১৫, ০, ৪ ও ১৯ রান- সাকিবের সঙ্গে যেন সেটিই বেমানান। বিশেষ করে নিষেধাজ্ঞার আগে বিশ্বকাপে তাঁর স্বপ্নের ফর্মটাই যেন প্রত্যাশা বাড়িয়ে দিয়েছিল আরও। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে মোটামুটি শুরু করেও ইনিংস বড় করতে পারেননি। আজ অবশ্য দায়িত্বটা আরও বড় তাঁর। তামিমের উইকেটের পর নেমেছেন, দ্রুত আরও দুই উইকেট যেতে দেখেছেন একপ্রান্তে দাঁড়িয়ে। সাকিব ‘স্বরূপে’ ফিরবেন আজ?

default-image
১৯: ০৯, জুলাই ১৮

‘নিয়ম’ ভেঙে, ‘নিয়ম’ মেনে রান-আউট মোসাদ্দেক

দুটি অলিখিত নিয়ম। এক- মিসফিল্ডে রান নিতে নেই। দুই- ইনিংসে ধস নামলে একটি রান-আউট থাকবেই। মোসাদ্দেক হোসেন এক নম্বর নিয়মটা ভাঙলেন, এ কারণে এলো দ্বিতীয়টি। রিচার্ড এনগারাভার লেগস্টাম্পের বাইরের ওয়াইড বলটা প্রথমে ঠিকঠাক ধরতে পারেননি রেজিস চাকাভা। সাকিব দাঁড়িয়ে থাকলেও মোসাদ্দেক শেষে গিয়ে দৌড় শুরু করেছিলেন। চাকাভা তাঁর ভুল শুধরে সরাসরি থ্রো-য়ে ভাঙলেন স্টাম্প, মিসফিল্ডে রান নেওয়ার ভুলের মাশুল দিতে হলো মোসাদ্দেককে, হলেন রান-আউট। ৩৬ রানের ব্যবধানে ৪ উইকেট হারাল বাংলাদেশ, মোসাদ্দেক ফিরেছেন ৯ বলে ৫ রান করে।

১৯: ২১, জুলাই ১৮

সাকিবের আরেকটি মাইলফলক

প্রয়োজন ছিল ২৬ রান। ওয়েসলি মাধভেরের মিসফিল্ডে সাকিব ২৩ থেকে পৌঁছে গেলেন ২৭ রানে। আরেকটি রেকর্ড হয়ে গেল সাকিবের। ওয়ানডেতে সাড়ে ছয় হাজার রান ছোঁয়ার পথে তৃতীয় বাংলাদেশী হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১২ হাজার রান হয়ে গেল সাকিবের। ১৪ হাজার ৪৩ রান নিয়ে এ তালিকায় সবার ওপরে তামিম ইকবাল। দুইয়ে থাকা মুশফিকুর রহিমের রান ১২ হাজার ৫৫৯। আলাদা করে টেস্ট ও ওয়ানডেতেও রানের সংখ্যায় সাকিব আছেন তামিম ও মুশফিকের পরই। অবশ্য টি-টোয়েন্টিতে তামিমের পরই তিনি। এ সংস্করণে মুশফিকের অবস্থান চার নম্বরে, তাঁর আগে আছেন মাহমুদউল্লাহ।

১৯: ২৪, জুলাই ১৮

বাংলাদেশের ১০০ 

এক মিসফিল্ডে সাকিবের মাইলফলক, আরেকটিতে ১০০ ছুঁয়ে ফেলল বাংলাদেশ। ২৩তম ওভারে হলো সেটি। জয়ের জন্য এখন ২৭ ওভারে প্রয়োজন ১৪১ রান। সাকিবের সঙ্গে অপরাজিত মাহমুদউল্লাহ।

১৯: ৪৫, জুলাই ১৮

জুটি ভাঙল সাকিব-মাহমুদউল্লাহর

বোলিংয়ে ফিরেই আঘাত করলেন ব্লেসিং মুজারাবানি। তাঁর ক্রস-সিমের বাড়তি বলটায় ব্যাট চালিয়ে উইকেটের পেছনে ধরা পড়লেন মাহমুদউল্লাহ। ৩৫ বলে ২৬ রান করে ফিরলেন মাহমুদউল্লাহ, ভাঙল সাকিবের সঙ্গে তাঁর ৫৫ রানের জুটি। ১৩০ রানে ৫ম উইকেট হারাল বাংলাদেশ।

১৯: ৫১, জুলাই ১৮

সাকিবের ফিফটি

ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৪৯তম ফিফটি হয়ে গেল সাকিবের। ২০১৯ সালের বিশ্বকাপের পর এটি দেশের বাইরে তাঁর প্রথম ফিফটি, যদিও এ নিষেধাজ্ঞার পর এ সফরের আগে সব ওয়ানডেই তিনি খেলেছিলেন দেশের মাটিতে। সিকান্দার রাজার বলে চার মেরে ফিফটি পূর্ণ করেছেন তিনি। মাহমুদউল্লাহর উইকেটের পর নিশ্চিতভাবেই চাপটা আরও বেড়ে গেছে তাঁর। সাকিব পারবেন বাংলাদেশকে উদ্ধার করতে?

২০: ০১, জুলাই ১৮

মিরাজ থাকলেন না বেশিক্ষণ

মিরাজ যেন বিশ্বাসই করতে পারছিলেন না। অবিশ্বাসের মতো তেমন কিছু ঘটেওনি অবশ্য। মাধভেরেকে স্লগ করতে গিয়েছিলেন, মিডউইকেটে ধরা পড়েছেন ১৫ বলে ৬ রান করে। আফিফ হোসেনের আগে পাঠানো হয়েছিল তাঁকে, তবে সাকিবকে বেশিক্ষণ সঙ্গ দিতে পারলেন না। ১৪৫ রানে বাংলাদেশ হারাল ৬ষ্ঠ উইকেট।

২০: ২৮, জুলাই ১৮

আফিফের উইকেটে আরেকটু ডুবল বাংলাদেশ

দুই বাঁহাতি ক্রিজে, দুই প্রান্ত থেকে বেশিরভাগ সময় এসেছিলেন দুই অফস্পিনার। সিকান্দার রাজাই ব্রেকথ্রু দিলেন জিম্বাবুয়েকে। তাঁর ঝুলিয়ে দেওয়া বলে ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে এসে খেলতে গিয়ে লাইন মিস করেছেন আফিফ, হয়েছেন স্টাম্পড। জয় থেকে ৬৮ রান দূরে থাকতে ৭ উইকেট হারিয়ে ফেলল বাংলাদেশ। আফিফের উইকেটের পর প্রয়োজনীয় রানসংখ্যাও বেড়ে গেছে বলের চেয়ে।

২০: ৩৭, জুলাই ১৮

বাঁচলেন সাইফউদ্দিন

রানটা ছিল না সেখানে, তবে সাইফউদ্দিন জোরের ওপর নিতে গিয়েছিলেন সেটিই। মিড-অফে থাকা মিল্টন শুম্বার থ্রো-টা আরেকটু ভাল হলেই ফিরতে হতো সাইফউদ্দিনকে। এ দফা বেঁচে গেছেন তাই। শেষ ৫৪ বলে বাংলাদেশের প্রয়োজন ৫৩ রান। জিম্বাবুয়ে শেষ ১০ ওভারে তুলেছিল ৫৫ রান, তবে সে সময়ে তাদের উইকেট ছিল বাংলাদেশের চেয়ে দুইটি বেশি।

২০: ৪৫, জুলাই ১৮

হতে হতে হলো না!

হতে পারতো অন্যতম সেরা একটি ক্যাচ। রেজিস চাকাভা শেষ মুহুর্তে দিয়েছিলেন বড় একটা লাফ, গ্লাভসে নিয়েছিলেনও বলটা। তবে রাখতে পারেননি শেষ পর্যন্ত। এনগারাভার শর্ট বলে পুল করতে গিয়ে ক্যাচ তোলা সাইফউদ্দিন বেঁচে গেছেন আরেকবার। শেষ ৪২ বলে বাংলাদেশের প্রয়োজন ৪৫ রান। প্রথম ম্যাচটা একপেশে হলেও এ ম্যাচে ছড়াচ্ছে রোমাঞ্চ।

২০: ৪৮, জুলাই ১৮

২০০ পেরোলো বাংলাদেশ

শেষ ৮২ বলে ছিল না বাউন্ডারি। জঙ্গুয়েকে জায়গা বানিয়ে সে খরা কাটালেন সাকিব। বাংলাদেশের ২০০ রানও হয়ে গেল। আপাতত জিম্বাবুয়ে ও জয়ের মাঝে ব্যবধান সাকিবই।

২১: ০০, জুলাই ১৮

আরেকটু কাছে বাংলাদেশ

শেষ ৪ ওভারে বাংলাদেশের প্রয়োজন ২৬ রান। ৮৫ রানে অপরাজিত সাকিব, তাঁর সঙ্গী সাইফউদ্দিনের রান ১৬।

২১: ০৫, জুলাই ১৮

১৮ বল, ২০ রান 

শর্ট থার্ডম্যানে লাফিয়ে উঠে হাত লাগিয়েছিলেন এনগারাভা, তবে সাকিবের ক্যাচটা তিনিও নিতে পারেননি শেষ পর্যন্ত। শেষ ৩ ওভারে বাংলাদেশের প্রয়োজন ২০ রান।

২১: ১০, জুলাই ১৮

১২ বলে দরকার ১২ 

মুজারাবানির করা ৪৮তম ওভারে এসেছে ৮ রান। সাকিব অপরাজিত ৯০ রানে, বাংলাদেশের প্রয়োজন ১২।

২১: ১৫, জুলাই ১৮

শেষ ওভার, ৩ রান

৪৯তম ওভারে বাউন্ডারিতে জয়ের আরও কাছে বাংলাদেশ। শেষ ৬ বলে প্রয়োজন মাত্র ৩ রান।

২১: ১৯, জুলাই ১৮

সাকিবে ভর করে সিরিজ জিতল বাংলাদেশ

জিম্বাবুয়ের এ লাইন-আপের তর্কসাপেক্ষে সেরা বোলার মুজারাবানিকে চার মেরে বাংলাদেশের জয় নিশ্চিত করলেন সাকিব। দল চাপে ছিল, তবে সাকিব 'স্বরূপে' ফিরলেন এ দিনই। ৯৬ রানের অপরাজিত ইনিংসে মেরেছেন ৮টি চার। তাঁকে ভাল সঙ্গ দিয়েছেন ৩৪ বলে ২৮ রান করে অপরাজিত থাকা সাইফউদ্দিন। এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ।

পিচ সে অর্থে কঠিন ছিল না ব্যাটিংয়ের জন্য। তবে অসময়ে উইকেট হারিয়ে চাপে পড়েছিল বাংলাদেশ। প্রথমে ১১ রানের ব্যবধানে ৩ উইকেট হারিয়েছিল বাংলাদেশ, এর দুটিই সাকিব ক্রিজে আসার পর। মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে সাকিবের ৫৫ রানের জুটি টেনেছিল বাংলাদেশকে এরপর, তবে পার করাতে পারেনি। সাকিব এরপর কিছুক্ষণ ভুগেছেন সঙ্গীর অভাবে- ব্যাটিং অর্ডারে আগে আসা মেহেদী হাসান বা তাঁর পর আফিফ হোসেন সেভাবে সঙ্গ দিতে পারেননি তাঁকে। সাইফউদ্দিন এসেও শুরুতে একটু নড়বড়ে ছিলেন, তবে তাঁকে নিয়েই সাকিব এগিয়েছেন। দুজনের ৮ম উইকেট জুটিতে উঠেছে ৬৯ রান। সে জুটিই নিশ্চিত করেছে জয়।

৪ ইনিংস পর সাকিব ফিফটি পেয়েছেন, শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থেকেছেন ৯৬ রান করে। ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ৯০ পেরিয়ে এ নিয়ে দ্বিতীয়বার অপরাজিত থাকলেন তিনি। সর্বশেষ ২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৯২ রানের ম্যাচজয়ী ইনিংসে আউট হননি তিনি।

সেদিনের মতো এদিনও ম্যাচসেরা হয়েছেন সাকিব।