ম্যাচ শেষে মাহমুদউল্লাহ ও আফিফ
সম্প্রচার শেষ ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯: ৪৪

৬ উইকেটে ম্যাচ জিতে সিরিজও জিতল বাংলাদেশ

১৫: ৩১, সেপ্টেম্বর ০৮

স্বাগত!

শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে আজ টি–টোয়েন্টি সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি বাংলাদেশ। সিরিজে ২–১ ব্যবধানে এগিয়ে মাহমুদউল্লাহর দল। শেষ ম্যাচটা জিতেছে নিউজিল্যান্ড।

১৫: ৩১, সেপ্টেম্বর ০৮

টস!

টস হেরে আগে ফিল্ডিং করবেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। টস জিতেছেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক টম ল্যাথাম। আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

১৫: ৩৪, সেপ্টেম্বর ০৮

বাংলাদেশ দলে কোনো পরিবর্তন নেই

তৃতীয় ম্যাচের একাদশই খেলাবে বাংলাদেশ। এ ম্যাচে দলে তাই কোনো পরিবর্তন আনা হয়নি।

বাংলাদেশ দল: মোহাম্মদ নাঈম, লিটন দাস, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ (অধিনায়ক), নুরুল হাসান (উইকেটকিপার), আফিফ হোসেন, মেহেদী হাসান, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মোস্তাফিজুর রহমান, নাসুম আহমেদ।

১৫: ৩৯, সেপ্টেম্বর ০৮

নিউজিল্যান্ড দলে দুই পরিবর্তন

জ্যাকব ডাফি এবং স্কট কুগেলিনের জায়গায় নিউজিল্যান্ড দলে ফিরেছেন হামিশ বেনেট ও ব্লেয়ার টিকনার।

নিউজিল্যান্ড দল: রচিন রবীন্দ্র, ফিন অ্যালেন, উইল ইয়াং, টম ল্যাথাম (অধিনায়ক ও উইকেটকিপার ), কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, হেনরি নিকোলস, টম ব্লান্ডেল, কোল ম্যাকোনকি, এজাজ প্যাটেল, ব্লেয়ার টিকনার ও হামিশ বেনেট।

১৬: ০২, সেপ্টেম্বর ০৮

আউট!

নিউজিল্যান্ডের ইনিংসে বোলিং শুরু করেন স্পিনার নাসুম আহমেদ। চতুর্থ বলেই রচিন রবীন্দ্রকে (৫ বলে ০) ক্যাচে পরিণত করেন তিনি। ক্যাচটি নেন সাইফউদ্দিন। নিউজিল্যান্ড রানের খাতা খোলার আগেই উইকেট হারাল। প্রথম ওভারে নিউজিল্যান্ড ১ উইকেট হারালেও কোনো রান তুলতে পারেনি।

১৬: ০৮, সেপ্টেম্বর ০৮

রিভার্স সুইপে ছক্কা!

সাকিবের করা দ্বিতীয় ওভারের পঞ্চম বলে রিভার্স সুইপে ছক্কা মারেন ওপেনার ফিন অ্যালেন। ২ ওভার শেষে ১ উইকেটে ১০ রান তুলেছে নিউজিল্যান্ড।

১৬: ১৩, সেপ্টেম্বর ০৮

অ্যালেনের ‘আত্মহত্যা’

আগের ওভারে রিভার্স সুইপে ছক্কা পেয়েছিলেন ফিন অ্যালেন। লোভটা পরের ওভারে সামলাতে পারেননি কিউই ওপেনার। নাসুমকে রিভার্স সুইপ করতে গিয়ে পয়েন্টে ক্যাচ দিয়ে আউট হন অ্যালেন। ৮ বলে ১২ রান করে আউট হলেন তিনি। ৩ ওভার শেষে ২ উইকেটে ১৬ রান তুলেছে নিউজিল্যান্ড। ২টি উইকেটই নাসুমের।

১৬: ২০, সেপ্টেম্বর ০৮

বাড়তি বাউন্স পাচ্ছেন সাকিব

ইনিংসের চতুর্থ ওভারে নতুন বলে বাড়তি বাউন্স পেলেন সাকিব। এই ওভারে তিনি মাত্র ১ রান দেন। ৪ ওভার শেষে নিউজিল্যান্ড ২ উইকেটে ১৭। উইকেটে টম ল্যাথাম ও উইল ইয়াং।

১৬: ২৮, সেপ্টেম্বর ০৮

পাওয়ার প্লে–র পরীক্ষায় উত্তীর্ণ বোলাররা

৬ ওভার শেষে ২ উইকেটে ২২ রান তুলেছে নিউজিল্যান্ড। পাওয়ার প্লে–তে কিউই ব্যাটসম্যানদের আটকে রাখার পাশাপাশি উইকেটও তুলে নিয়েছেন বাংলাদেশের স্পিনার নাসুম। সাকিব ও মেহেদীও নিয়ন্ত্রিত লাইন–লেংথে বল করেছেন।

১৬: ৩৭, সেপ্টেম্বর ০৮

রান তোলার চেষ্টায় ল্যাথাম–ইয়াং

সপ্তম ওভারে মেহেদীকে একটু চড়াও হয়ে খেলার চেষ্টা করেন ল্যাথাম–ইয়াং। একটি চারও আদায় করে নেন ল্যাথাম। ওই ওভারে এসেছে ৮ রান। সাইফউদ্দিনকেও পরের ওভারে চড়াও হয়ে খেলতে গিয়ে আরেকটু হলে উইকেট দিয়ে বসতেন ল্যাথাম। এই ওভারে এসেছে ৫ রান। ৮ ওভার শেষে ২ উইকেটে ৩৫ রান তুলেছে নিউজিল্যান্ড।

১৬: ৪৫, সেপ্টেম্বর ০৮

১০ ওভারে ৪৬/২

আগেরদিন হেনরি নিকোলস ও টম ব্লান্ডেল ৬ষ্ঠ উইকেটে গড়েছিলেন বড় একটা জুটি। আজ দ্রুত ২ উইকেট হারানোর পর কিউইদের পুনর্গঠনের কাজটা করছেন উইল ইয়াং ও টম ল্যাথাম। প্রথম ১০ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ৪৬ রান তুলেছে নিউজিল্যান্ড।

১৬: ৪৭, সেপ্টেম্বর ০৮

মেহেদীকে উইকেট দিলেন ল্যাথাম

মেহেদীকে এগিয়ে এসে খেলার কোনো দরকারই ছিল না কিউই অধিনায়ক টম ল্যাথামের। ক্রিজে দাঁড়িয়ে থেকেই রান পাচ্ছিলেন। ধৈর্য হারিয়ে ১১তম ওভারে মেহেদীকে এগিয়ে খেলতে গিয়ে স্টাম্পিংয়ের শিকার হন ল্যাথাম। ১ চারে ২৬ বলে ২১ রানে আউট হলেন তিনি।

১৬: ৫২, সেপ্টেম্বর ০৮

নাসুমের দুর্দান্ত ডেলিভারি!

বলটা একটু ঝুলিয়ে ছেড়েছিলেন নাসুম। বাতাসে বেশিক্ষণ ভেসে থাকায় বলটা বেশ বাঁক নেবে বোঝাই যাচ্ছিল। কিন্তু হেনরি নিকোলস হয়তো কল্পনাও করেননি এতটা বাঁক নেবে! উইথ দ্য স্পিন খেলতে গিয়েও ব্যাটে পাননি! বলটা অফ স্টাম্পের বাইরে পিচ করে আঘাত হাতে লেগ স্টাম্পে!

১৬: ৫৩, সেপ্টেম্বর ০৮

টানা দুই বলে দুই উইকেট নাসুমের

আগের বলে নিকোলসকে আউট করেন নাসুম। তাঁর পরের বলে উইকেটকিপার নুরুলকে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম। ১২তম ওভারে দ্বিতীয় ও তৃতীয় বলে উইকেট নিয়ে এখন হ্যাটট্রিকের সামনে নাসুম।

১৬: ৫৬, সেপ্টেম্বর ০৮

এক নাসুমেই কাঁপছে নিউজিল্যান্ড

১২তম ওভারে টানা দুই বলে ২ উইকেট নিয়ে কোনো রান দেননি নাসুম। এর মধ্য দিয়ে ডাবল উইকেট মেডেন নিয়ে ওভারটি শেষ করলেন তিনি। নিউজিল্যান্ড ১২ ওভার শেষে ৫ উইকেটে ৫২।

১৬: ৫৭, সেপ্টেম্বর ০৮

যে কীর্তিতে অপুর পরই নাসুম

নাজমুল ইসলাম অপুর পর দ্বিতীয় বাংলাদেশি বোলার হিসেবে একটি টি–টোয়েন্টি দুটি মেডেন নিলেন নাসুম। ৪ ওভারে ২ মেডেন নিয়ে ১০ রানে ৪ উইকেট নিলেন তিনি। এর চেয়ে কম রান দিয়ে ৪ উইকেট পেয়েছেন শুধু সাকিব আল হাসান।

১৭: ০৫, সেপ্টেম্বর ০৮

চোট পেয়ে উঠে গেলেন সাইফউদ্দিন

একটু থিতু হয়েছেন উইল ইয়াং, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকে ক্রিজ ছেড়ে বেড়িয়ে আসা মারা চারে সেটা স্পষ্ট হলো আরও। ১৪তম ওভারে নিউজিল্যান্ড তুলেছে ৮ রান।

ওভারের শেষ বলে স্ট্রেইট ড্রাইভ খেলেছিলেন ইয়াং, সেটা ধরতে গিয়ে আঙুলে চোট পেয়েছেন সাইফউদ্দিন। ফিজিওর সঙ্গে এরপর উঠে গেছেন তিনি।

২ ওভারে এখন পর্যন্ত ১৩ রান দিয়েছেন সাইফউদ্দিন।

মাঠে ঢুকেছেন নিউজিল্যান্ডের ফিজিও-ও। টম ব্লান্ডেলকে দেখছেন তিনি।

default-image
১৭: ১৫, সেপ্টেম্বর ০৮

মোস্তাফিজের উইকেট, নাঈমেরও

একটু আগে মোস্তাফিজের স্পাইক থেকে ঘাস সরিয়ে দিলেন মোহাম্মদ নাঈম। পরের বলে বলতে গেলে এনে দিলেন একটা উইকেটও!

মোস্তাফিজ কাটার করেছেন আবারও, সোজা ব্যাটে তুলে মেরেছিলেন টম ব্লান্ডেল। তবে মিড-অনে বাঁ দিকে ঝাঁপিয়ে বেশ ভালো ক্যাচ নিয়েছেন নাঈম।

৭২ রানে নিউজিল্যান্ড হারিয়েছে ৬ষ্ঠ উইকেট, ব্লান্ডেল ফিরেছেন ১০ বলে ৪ রান করে, মোস্তাফিজ পেয়েছেন নিজের প্রথম উইকেট।

১৭: ১৯, সেপ্টেম্বর ০৮

মোস্তাফিজের আরেকটি

নাঈমকে দেখে হয়তো অনুপ্রাণিত হলেন মোস্তাফিজ নিজেও!

কোল ম্যাকনকি খেলেছিলেন চেক শট, সেভাবে টাইমিং-ও হয়নি। এবার নিজের বলে নিজেই বাঁ দিকে ঝাঁপিয়ে মোস্তাফিজ নিয়েছেন অসাধারণ এক ক্যাচ।

৩ বল খেলে কোনো রান না করেই ফিরে গেলেন ম্যাকনকি, ৭৪ রানে ৭ম উইকেট হারাল নিউজিল্যান্ড। মোস্তাফিজ এক ওভারে নিলেন ২ উইকেট।

১৭: ২৩, সেপ্টেম্বর ০৮

অপেক্ষা বাড়ালেন সাকিব

টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ উইকেটেরে রেকর্ডে লাসিথ মালিঙ্গাকে ছুঁতে এ ম্যাচে সাকিবের প্রয়োজন ছিল একটি উইকেট। প্রথম দুই দুটি করে উইকেট নিয়ে মালিঙ্গার সঙ্গে ব্যবধান এক-এ নামিয়ে এনেছিলেন সাকিব। তবে তৃতীয় ম্যাচে উইকেট পাননি কোনো, ফলে থেমেছিলেন থেমেছিলেন ১০৬ উইকেট নিয়েই। আজ দ্বিতীয় ওভারে প্রথমবারের মতো বোলিংয়ে আসেন, তবে দেন ১০ রান। নিজের দ্বিতীয় ওভারে ১ রান দিলেও উইকেট পাননি কোনো। পরের দুই ওভারেও উইকেটশূন্য থেকেছেন সাকিব। সব মিলিয়ে ৪ ওভারে ২৫ রান দিয়েছেন তিনি।

মালিঙ্গাকে ছোঁয়ার অপেক্ষাটা তাই আরেকটু বেড়েছে তাঁর।

default-image
১৭: ৩৩, সেপ্টেম্বর ০৮

ফিরেই আঘাত সাইফউদ্দিনের

চোট পেয়ে উঠে গিয়েছিলেন। মাঠে ফিরলেন, বোলিংয়ে এলেন। সাইফউদ্দিন পেয়ে গেলেন দিনে নিজের প্রথম উইকেটও। তাঁর ইয়র্কারের কোনো জবাব ছিল না এজাজ প্যাটেলের কাছে।

উইল ইয়াংকে অন্য প্রান্তে রেখে ফিরলেন আরেকজন কিউই ব্যাটসম্যান, ইনিংসে ৭ বল বাকি থাকতে নিউজিল্যান্ড হারাল ৮ম উইকেট। রান ৯১।

১৭: ৪০, সেপ্টেম্বর ০৮

মোস্তাফিজের জোড়া আঘাত, ৯৩ রানে থামল নিউজিল্যান্ড

ক্রিজে এসেছিলেন তৃতীয় ওভারে। আরেকটা বড় বিপর্যয়ের হাত থেকে নিউজিল্যান্ডের ইনিংস আগলে রেখেছিলেন তিনিই। শেষ ওভারে এসে ফিফটির আগেই ফিরতে হলো উইল ইয়াংকে। মোস্তাফিজুর রহমানের বলে কাভারে মাহমুদউল্লাহর হাতে ধরা পড়েছেন তিনি ৪৮ বলে ৪৬ রান করে।

ঠিক পরের বলে ব্লেয়ার টিকনারকে ক্যাচ বানিয়ে কিউইদের ইনিংস শেষ করেছেন মোস্তাফিজ। নিউজিল্যান্ড থেমেছে ৯৩ রানেই।

১৭: ৫১, সেপ্টেম্বর ০৮

ফিল্ডিংয়ে নেই ব্লান্ডেল

ব্যাটিংয়ের সময় বাঁ পায়ের মাংসপেশিতে চোট পেয়েছেন টম ব্লান্ডেল। এ ম্যাচে আর ফিল্ডিং করতে পারবেন না তিনি। তাঁর বদলি হিসেবে নেমেছেন ডগ ব্রেসওয়েল, নিশ্চিত করেছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট।

১৭: ৫৮, সেপ্টেম্বর ০৮

২ ওভারে ৪ রান

প্রথম ওভারে হামিশ বেনেট দিয়েছেন ২ রান। দ্বিতীয় ওভারে এসে এজাজ প্যাটেল প্রথম ৫ বলে রান দেননি, পরেরটা করেছেন ওয়াইড, শেষ বলে হয়েছে একটা সিঙ্গেল। ২ ওভার শেষে ৪ রান বাংলাদেশের। রান তাড়া সহজ হবে বাংলাদেশের, নাকি নিউজিল্যান্ড বোলাররা দেখাবেন চমক?

১৮: ০২, সেপ্টেম্বর ০৮

ম্যাকনকি, লিটনের সুইপ এবং উইকেট

আগের ম্যাচে কোল ম্যাকনকিকে পরপর দুইটা সুইপের পর আবার স্লগ সুইপের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে এলবিডব্লু হয়েছিলেন লিটন দাস।

ম্যাকনকিকে আজও প্রথমে একটা স্লগ করে কাউ কর্নার দিয়ে চার মারলেন। পরের বলে আবারও জোরের ওপর সুইপ করতে গিয়ে ক্যাচ তুললেন লিটন। ম্যাকনকি একটু টার্নের দেখা পেয়েছিলেন। ডিপ স্কয়ারে ফিন অ্যালেনের ভালো ক্যাচে পরিণত হলেন লিটন।

এ ম্যাচের আগে লিটন বলেছিলেন, আগের ম্যাচে আরেকটু চিন্তা-ভাবনা করে খেলতে পারতেন তিনি। আজও পারতেন নিশ্চিতভাবেই। তবে লিটন সে পথে গেলেন না, গেলেন ড্রেসিংরুমের পথে।

১৮: ১১, সেপ্টেম্বর ০৮

নাঈমের ছয়

আগের ২ ওভারে হয়েছিল তিনটি চার। মোহাম্মদ নাঈম এবার মারলেন ইনিংসের প্রথম ছয়। ম্যাকনকির বলটা ছিল শর্ট লেংথে, আগে থেকেই জায়গা বানিয়ে লং-অনের ওপর দিয়ে টেনে ছয় মেরেছেন নাঈম।

৫ ওভার শেষে বাংলাদেশের রান ৩০।

১৮: ১৪, সেপ্টেম্বর ০৮

ফিরলেন সাকিব

এজাজ প্যাটেলের ঝুলিয়ে দেওয়া বলে ক্রিজ ছেড়ে বেড়িয়ে এসেছিলেন সাকিব। তবে সেটা পরিণত হয়েছে ব্লকহোলের বলে, সাকিব সেটা মিস করে গেছেন। স্টাম্পিংয়ে ভুল করেননি টম ল্যাথাম। যখনোই মনে হচ্ছিল তাঁর সঙ্গে নাঈমের জুটি ছিটকে দিতে পারে নিউজিল্যান্ডকে, তখনোই আউট হয়ে ফিরলেন সাকিব। সমানসংখ্যক বলে ৮ রান করেছেন তিনি।

১৮: ১৮, সেপ্টেম্বর ০৮

সাকিবের পর নেই মুশফিকও

এজাজ প্যাটেলের স্বপ্নযাত্রা চলছেই! সাকিবের পর একই ওভারে মুশফিককেও ফেরালেন এ বাঁহাতি স্পিনার!

ফুললেংথের বলটায় সুইপ করতে গিয়েছিলেন মুশফিক, বলের ফ্লাইট মিস করে গেছেন। ব্যাটের নাগাল পায়নি বল, হয়েছেন বোল্ড। সিরিজে দ্বিতীয়বার শূন্যতেই ফিরলেন মুশফিক।

পাওয়ার প্লে-র শেষ ওভারে ২ উইকেট হারাল বাংলাদেশ, প্রথম ৬ ওভারে তাদের রান ৩ উইকেটে ৩২।

১৮: ২৭, সেপ্টেম্বর ০৮

গুছিয়ে নেওয়ার চেষ্টা মাহমুদউল্লাহ-নাঈমের

মুশফিক ও সাকিবকে এক ওভারের মধ্যেই হারানোর ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে বেশ বেগ পেতে হবে বাংলাদেশকে, জানা কথা! ধাক্কাটা সামলে নেওয়ার চেষ্টা এখন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ও ওপেনার নাঈমের ব্যাটে। পাওয়ার প্লে-র পর তিন ওভারে এখন পর্যন্ত ৯ রান এসেছে। বাংলাদেশের রান ৯ ওভারে ৩ উইকেটে ৩৯।

মাহমুদউল্লাহ ১৩ বলে ৪ রানে অপরাজিত, নাঈমের রান ১৯ বলে ১৯।

১৮: ৩৬, সেপ্টেম্বর ০৮

এক-দুইয়ে ভর করে এগোচ্ছে বাংলাদেশ

বাংলাদেশের অস্ত্রে বাংলাদেশকেই ঘায়েল করার চেষ্টা করছে নিউজিল্যান্ড। দুই বাঁহাতি স্পিনার রচিন রবীন্দ্র আর এজাজ প্যাটেল দারুণ বুদ্ধিদীপ্ত বোলিং করছেন, তাঁদের বলে রানই বের করা কঠিন হয়ে পড়েছে। সেই পঞ্চম ওভারের পঞ্চম বলে ম্যাকনকির বলে নাঈমের ছক্কার পর বাংলাদেশ ইনিংসে কোনো বাউন্ডারি নেই।

তবে সিঙ্গেল-ডাবলসেই এগোচ্ছেন মাহমুদউল্লাহ-নাঈমরা। দশম ওভারে কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের বলে এসেছে ৫ রান, সবই দৌড়ে, ১১তম ওভারে রবীন্দ্রর বলে ৪টি সিঙ্গেল। ১১ ওভার শেষে বাংলাদেশ ৩ উইকেটে ৪৮।

১৮: ৩৯, সেপ্টেম্বর ০৮

৩৩ বল পর বাউন্ডারি

ম্যাকনকি বোলিংয়ে ফিরেছেন, বাউন্ডারি ফিরেছে বাংলাদেশের ইনিংসে! পঞ্চম ওভারের পঞ্চম বলে ম্যাকনকির বলেই নাঈমের ছক্কার পর বাংলাদেশের ইনিংস আর বাউন্ডারি দেখেনি, ১২তম ওভারে সেই ম্যাকনকির বলেই ছক্কা মেরে ইনিংসে ৩৩ বলের বাউন্ডারি-খরা কাটিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। একটু ফুল লেংথের বলে হাঁটু গেড়ে ডিপ মিডউইকেট বাউন্ডারির ওপারে ফেলেছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

এর বাইরে ওভারে আরও দুটি বলে ২ রান করে নিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ ও নাঈম। সব মিলিয়ে ওভারে ১২ রান এসেছে। ১২ ওভার শেষে বাংলাদেশের রান ৩ উইকেটে ৬০।

১৮: ৪১, সেপ্টেম্বর ০৮

রবীন্দ্রর ‘কোটা’ শেষ

দারুণ বোলিং করেছেন রচিন রবীন্দ্র। নিজের শেষ ও ইনিংসের ১৩তম ওভারেও দিলেন মাত্র ২ রান। তাঁর ৪ ওভার শেষ হয়ে গেছে, মাত্র ৮ রান দিয়েছেন বাঁহাতি স্পিনার। ১৩ ওভার শেষে বাংলাদেশের রান ৩ উইকেটে ৬২। জয়ের জন্য আর ৪২ বলে দরকার ৩২ রান।

১৮: ৫০, সেপ্টেম্বর ০৮

অল্পের জন্য বেঁচে গেলেন মাহমুদউল্লাহ

১৪তম ওভারের চতুর্থ বল। মাহমুদউল্লার বিরুদ্ধে স্টাম্পিংয়ের আবেদন। বেশ আত্মবিশ্বাসীই লাগছিল নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক ও উইকেটকিপার ল্যাথামকে। কিন্তু তৃতীয় আম্পায়ারের রিভিউ দেখাল, অল্পের জন্য বেঁচে গেছেন মাহমুদউল্লাহ।

ডি গ্র্যান্ডহোমের ওভারে রান এসেছে মাত্র ৩টি। কিন্তু বাংলাদেশের ওপর এখন ওভারপ্রতি রানের চাপের চেয়েও উইকেট না হারানোর চাপটা বেশি, তাতে মাহমুদউল্লাহর বেঁচে যাওয়া বড় স্বস্তিই। ১৪ ওভার শেষে বাংলাদেশের রান ৩ উইকেটে ৬৫।

১৮: ৫৩, সেপ্টেম্বর ০৮

নাঈমের হতাশা

এক রানের জায়গায় দুই রান নিতে চেয়েছিলেন নাঈম, কিন্তু স্কয়ার লেগে ফিল্ডার দ্রুতই বল পাঠালেন স্ট্রাইক প্রান্তে। উইকেটকিপার ল্যাথাম যখন স্টাম্প ভাঙছেন, নাঈম বেশ দূরেই ছিলেন! রানআউট!

দারুণ খেলতে থাকা নাঈমের ইনিংসের শেষটা হলো হতাশার। ৩৫ বলে ১ চার ও ১ ছয়ে ২৯ রান করেছেন নাঈম, চতুর্থ উইকেটে মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে তাঁর জুটিটা ছিল ৩৫ রানের।

১৮: ৫৬, সেপ্টেম্বর ০৮

৫ ওভারে দরকার আর ২৫ রান

ওভারের তৃতীয় বলে নাঈমের আউট হওয়ার পর ক্রিজে এসেই সিঙ্গেল নিয়েছেন আফিফ হোসেন। কিন্তু ওভারের শেষ বলে আবার অল্পের জন্য বেঁচে গেছেন মাহমুদউল্লাহ। থার্ডম্যান অঞ্চলে একটি রানই এসেছে, কিন্তু বল মাহমুদউল্লাহর ব্যাটে লাগার পর অনেকক্ষণ বাতাসে ছিল, গালিতে ফিল্ডার ঝাঁপিয়ে চেষ্টাও করেছিলেন। কিন্তু বল তাঁর নাগালের একটু বাইরে দিয়ে চলে যায়।

টিকনারের ওভারটিতে রান এসেছে ৪টি। ১৫ ওভার শেষে বাংলাদেশ ৪ উইকেটে ৬৯।

১৮: ৫৯, সেপ্টেম্বর ০৮

ছয় বলে পাঁচ সিঙ্গেল

শুধু শেষ বলে এক্সট্রা কাভারে ইয়াং ঝাঁপিয়ে পড়ে বল ধরে ফেলায় সিঙ্গেল হয়নি। না হলে এর আগে ডি গ্র্যান্ডহোমের ওভারের প্রথম পাঁচ বলের প্রতিটিতেই এক রান করে নিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ ও আফিফ।

১৬ ওভার শেষে বাংলাদেশের রান ৪ উইকেটে ৭৪। আর দরকার ২০ রান।

১৯: ০৩, সেপ্টেম্বর ০৮

ল্যাথামের এমন স্টাম্পিং মিস!

আগের তিন ওভারে ১২ রান দিয়ে ২ উইকেট নেওয়া প্যাটেল বোলিংয়ে ফিরেছেন। দ্বিতীয় বলেই উইকেট পেয়ে যেতে পারতেন। তাঁর বলে এগিয়ে এসে মারতে গিয়েও বলের লাইন মিস করেন মাহমুদউল্লাহ। কিন্তু উইকেটকিপার ল্যাথাম মিস করলেন! স্টাম্পিং করবেন কী, বলই ধরতে পারলেন না! ক্রিজের অনেক বাইরে থাকা মাহমুদউল্লাহও ফিরে আসেন নিরাপদে।

ওভারে ১ রান নিয়ে বাংলাদেশের রান ১৭ ওভারে ৪ উইকেটে ৭৫।

১৯: ১০, সেপ্টেম্বর ০৮

দারুণ ব্যাটিং মাহমুদউল্লাহ-আফিফের

ওভার শুরু হওয়ার আগে বলপ্রতি ১ রানের বেশিই দরকার ছিল বাংলাদেশের। কিন্তু হামিশ বেনেট ওভারের তৃতীয় বলে ওয়াইড দিয়ে বলে-রানে সমান করে দিলেন। পঞ্চম বলে মাহমুদউল্লাহ ও আফিফ দারুণ দৌড়ে নিলেন দুই রান। এর বাইরে প্রতি বলেই নিয়েছেন সিঙ্গেল।

ওভারে এল ৮ রান। বাংলাদেশ ১৮ ওভার শেষে ৪ উইকেটে ৮৩।

১৯: ১১, সেপ্টেম্বর ০৮

১৯তম ওভার করতে এসেছেন টিকনার 

টিকনারের প্রথম বলেই বিশাল ছক্কা মাহমুদউল্লাহর! ফুল লেংথের বলটাকে ক্রিজে দাঁড়িয়ে দারুণ ভঙ্গিতে সীমানাছাড়া করলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

এক ছক্কাতেই সমীকরণ একেবারে সহজ হয়ে গেল। ১১ বলে দরকার ৫ রান।

তৃতীয় বলে ১ রান নিলেন মাহমুদউল্লাহ। স্ট্রাইকে আফিফ। চতুর্থ বলে বেনেটের হঠাৎ উঁচু হয়ে ওঠা বাউন্সার লাগল আফিফের হেলমেটে! ফিজিও এসে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখলেন। আফিফ ঠিক আছেন।

ওভারের শেষ দুই বলে দুই সিঙ্গেল নিলেন মাহমুদউল্লাহ ও আফিফ। ১৯ ওভার শেষে রান ৪ উইকেটে ৯২।

১৯: ১৮, সেপ্টেম্বর ০৮

চার মেরে জেতালেন মাহমুদউল্লাহ 

দরকার ছিল ২ রান, কিন্তু মাহমুদউল্লাহ আর অত সিঙ্গেল-ডাবলের হিসাবে গেলেন না। ম্যাকনকির প্রথম বলেই চার মেরে দিলেন। ফুল লেংথের বল হাঁটু গেড়ে বসে ডিপ মিডউইকেট ও লং অনের মাঝামাঝি অঞ্চল দিয়ে পাঠিয়ে দিলেন সীমানার বাইরে!

৬ উইকেটে ম্যাচ জেতা হলো, সিরিজও জেতা হয়ে গেল বাংলাদেশের! পাঁচ টি-টোয়েন্টির সিরিজে চার ম্যাচ শেষেই ৩-১ ব্যবধানে এগিয়ে মাহমুদউল্লাহর দল।

১৯: ২২, সেপ্টেম্বর ০৮

অস্ট্রেলিয়ার পর নিউজিল্যান্ডও কুপোকাত

কদিন আগে অস্ট্রেলিয়াকে যেভাবে ধরাশায়ী করেছে, নিউজিল্যান্ডকেও সেভাবে ধরাশায়ী করল বাংলাদেশ। সিরিজের আগে যে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১০ টি-টোয়েন্টিতে কোনো জয় ছিল না, সেই নিউজিল্যান্ডকে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ হারিয়ে দিল মাহমুদউল্লাহর দল। বলা বাহুল্য, টি-টোয়েন্টিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এটিই প্রথম সিরিজ জয় বাংলাদেশের। ম্যাচই যেখানে এর আগে জেতেনি, সিরিজ জেতার তো প্রশ্নই আসে না!

১৯: ২৪, সেপ্টেম্বর ০৮

মাহমুদউল্লাহর হিসেবী ইনিংস, ল্যাথামের ভুল আর ম্যাকনকির দুঃস্বপ্ন 

স্কোরবোর্ডে মাত্র ৯৩ রান নিয়েও নিউজিল্যান্ড দারুণ লড়েছিল। দুই বাঁহাতি স্পিনার এজাজ প্যাটেল ও রচিন রবীন্দ্র ম্যাচ জমিয়ে তুলেছিলেন। কিন্তু মাহমুদউল্লাহ দারুণ ইনিংস খেলে ম্যাচটা বের করে নিয়ে এলেন। ৪৮ বলে ১ চার ও ২ ছক্কায় ৪৩ রানে অপরাজিত ছিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক, দলকে জেতানো বাউন্ডারিও এসেছে তাঁর ব্যাট থেকে।

মাহমুদউল্লাহকেই আরও আগে ফেরানোর সুযোগ হাতছাড়া করেছেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক ও উইকেটকিপার টম ল্যাথাম। প্যাটেলের বলে স্টাম্পিং মিস করেছেন ল্যাথাম, সে সময়ে মাহমুদউল্লাহর রান ছিল ২৫, বাংলাদেশ তখনো জয় থেকে ২০ রান দূরে।

ল্যাথামের পাশাপাশি এই ম্যাচ নিয়ে দুঃস্বপ্ন দেখবেন কিউই পেসার ম্যাকনকিও। ৩.১ ওভারে ৩৪ রান দিয়েছেন তিনি!