default-image

আইপিএলের আরও একটি ম্যাচ, সানরাইজার্স হায়দরাবাদের আরও একটি হার। এ নিয়ে চলতি মৌসুমে টানা তিন ম্যাচ হারল দলটা। এ মুহূর্তে পয়েন্ট তালিকার একেবারে তলানিতে ডেভিড ওয়ার্নারের দল। যেহেতু আইপিএল সবে শুরু হয়েছে, তাই এখনই হায়দরাবাদ ‘ব্যর্থ’—এটা বলার কোনো কারণ নেই। তবুও অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারকে বেশ ভালোই পোড়াচ্ছে দলের ব্যর্থতা। হায়দরাবাদের বাজে সময়ে খোঁজ পড়েছে কেন উইলিয়ামসনের। প্রশ্ন উঠেছে, তাঁকে কেন খেলানো হচ্ছে না। অধিনায়ক ওয়ার্নার অবশ্য জানিয়েছেন, নিউজিল্যান্ড তারকা দ্রুতই ফিরছেন হায়দরাবাদের একাদশে।

গতকাল মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের কাছে ১৩ রানের হেরেছে তারা। তীরে এসে তরি ডোবারই গল্প এটি। তবে এই হার নতুন করে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে হায়দরাবাদের ব্যাটিংয়ের সমস্যাগুলো। আর উইলিয়ামসনের অনুপস্থিতি যেন হায়দরাবাদকে পোড়াচ্ছে আরও বেশি করে। মিডল অর্ডার ব্যাটিংয়ে নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ককে হায়দরাবাদের স্তম্ভ বলা চলে। কিন্তু তা সত্ত্বেও উইলিয়ামসনকে কোনো এক কারণে কখনোই নিয়মিত খেলাতে চায় না হায়দরাবাদ। দলের বিদেশিদের মধ্যে জনি বেয়ারস্টো কিংবা অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারের জায়গা যেমন একাদশে পাকা, দলের সহ-অধিনায়ক হওয়া সত্ত্বেও কেন উইলিয়ামসনের ব্যাপারে ঠিক সেটা বলা যায় না। গতবারের মতো এবারের আইপিএলে হায়দরাবাদের মিডল অর্ডার ব্যাটিংকে বড় ভঙ্গুর দেখাচ্ছে। তাই উইলিয়ামসনের অনুপস্থিতি বেশ বাজেভাবে টের পাচ্ছে দল। এখন দলকে জয়ের পথে ফেরাতে কিউই তারকার ব্যাটিং-শৈলীটা বেশি করে প্রয়োজন। আইপিএল ইতিহাসে ৩৯.৪৮ গড় আর ১৩৯ স্ট্রাইক রেট যে ব্যাটসম্যানের, তাঁকে বেশি দিন মাঠের বাইরে কীভাবে রাখতে পারে হায়দরাবাদ?

default-image
বিজ্ঞাপন

উইলিয়ামসন চোটের কারণেই খেলতে পারছেন না। চোটের কারণেই গত মাসে বাংলাদেশের বিপক্ষে সীমিত ওভারের সিরিজে খেলেননি। চোট সেরে উঠতে থাকার মধ্যেই আইপিএলে এসেছেন। পুনর্বাসনের প্রক্রিয়াটা চলছে তাঁর। অনেকটাই সুস্থ হয়ে উঠলেও পুরোপুরি ফিট হয়ে উঠতে নাকি সময় লাগবে উইলিয়ামসনের। যদিও গতকাল ম্যাচের আগে জানা গিয়েছিল, উইলিয়ামসন ফিট। কিন্তু তা সত্ত্বেও ঝুঁকি নিতে চায়নি হায়দরাবাদ। তাঁর জায়গায় খেলিয়েছে আনকোরা দেশীয় ব্যাটসম্যান বিরাট সিংকে। ওয়ার্নার কাল ম্যাচ শেষে জানিয়েছেন সেটিই, ‘আমাদের ফিজিও ব্যাপারটা নিয়ে ভালো বলতে পারবেন। তবে উইলিয়ামসন এখন অনেকটাই সুস্থ হয়ে উঠেছে। আশা করছি, খুব শিগগির সে দলে ফিরতে পারবে। হায়দরাবাদ দলে তো তাঁর গুরুত্ব অপরিসীম।’

উইলিয়ামসন নিজে আশাবাদী, তিনি শিগগিরই হায়দরাবাদের জার্সিতে ফিরতে পারবেন। সানরাইজার্স হায়দরাবাদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম প্ল্যাটফর্মে তিনি সেই আশাবাদের কথা বলেছেন গত মাসে, ‘সব ঠিক থাকলে হয়তো আগামী সপ্তাহেই মাঠে ফিরব।’

উইলিয়ামসনকে হায়দরাবাদের কতটা প্রয়োজন, তা একটা ছোট্ট পরিসংখ্যানেই স্পষ্ট। ২০১৮ সাল থেকে হায়দরাবাদে খেলছেন নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটার। এ সময় তাঁর উপস্থিতিতে দলটি জয় পেয়েছে ৫০ শতাংশের বেশি ম্যাচে। আর উইলিয়ামসন না থাকলে সেটিই নেমে এসেছে ২৫ শতাংশের আশপাশে। অবশ্য গতবারও এভাবে শুরুর ম্যাচগুলোয় উইলিয়ামসনকে বসিয়ে রেখেছিল হায়দরাবাদ। মিডল অর্ডারে খেলানো হতো আবদুস সামাদ, অভিষেক শর্মা, বিজয় শঙ্করদের।

উইলিয়ামসনের মতো এমন একজন ক্রিকেটার মাঠের বাইরে থাকার মূল্য বেশ চড়া হবে, সেটাই অনুভব করছে হায়দরাবাদ।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন