default-image

এ মুহূর্তে বাংলাদেশের ক্রিকেটে নাসির হোসেন যেন ভুলে যাওয়া এক নাম। একসময় জাতীয় দলের নিয়মিত এই তারকা নির্বাচকদের ভাবনায় নেই বেশ অনেক দিনই হয়েছে। ঘরোয়া ক্রিকেটেও তেমন একটা পারফরম্যান্স নেই তাঁর। অমিত সম্ভাবনার জায়গায় দাঁড়িয়েও নাসিরের পতনই দেখেছে বাংলাদেশের ক্রিকেট। তবে এই নাসিরই কাল আবার আলোচনায় আবুধাবি টি-টেন লিগে। এই প্রতিযোগিতার প্রথম দিন নাসিরের অধিনায়কত্বে ম্যাচ জিতেছে পুনে ডেভিলস। বল হাতে ৩ উইকেট নিয়ে সে জয়ে ভালো অবদানও রাখেন নাসির।

টস জিতে ডেকান গ্ল্যাডিয়েটরসকে প্রথমে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েছিলেন নাসির। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই বোলিং করতে এসে ২ উইকেট তুলে নেন তিনি। নিজের দ্বিতীয় বলেই বোল্ড করেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ তারকা সুনীল নারাইনকে। এরপর শেষ বলে ফেরান আফগানিস্তানের সাবেক উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান আহমেদ শাহজাদকে। এরপর সপ্তম ওভারে আবার বোলিংয়ে এসে ভারতের প্রশান্ত গুপ্তাকে ক্যারিবীয় ক্রিকেটার কেনার লুইসের ক্যাচ বানান তিনি। ২ ওভার বোলিং করে ১৮ রান দিয়ে তিনি নিয়েছেন ৩ উইকেট।

default-image
বিজ্ঞাপন

পুনের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৭ রান করেন আজম খান। পাকিস্তানি এই ক্রিকেটার মাত্র ১৩ বলে ৪ ছক্কায় এ ইনিংসটি খেলে ডেকানকে লড়াইয়ের মতো সংগ্রহ এনে দেন। ২৫ রান করেন দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটার ক্যামেরন ডেলপোর্ট। নাসিরের ৩ উইকেট ছাড়াও ২ উইকেট নিয়েছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত ওমানের ক্রিকেটার মুনিস আনসারি।

পুনে ডেকানের সংগ্রহ পেরিয়ে যায় ৯.২ ওভারে। নাসির অবশ্য ব্যাটিং করার সুযোগ পাননি। ক্যারিবীয় ক্রিকেটার লুইস ৫৭ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলে দলের জয়ে রাখেন বড় অবদান। তিনি মাত্র ২৮ বলে ৩ বাউন্ডারি ও ৬ ছক্কায় খেলেন ইনিংসটি। আরেক ক্যারিবীয় ক্রিকেটার চ্যাডউইক ওয়ালটন করেন ১৮। ইংলিশ ক্রিকেটার টম-কোহলার ক্যাডমোর করেন ১২। কাল অন্য ম্যাচে মোসাদ্দেক হোসেনের নেতৃত্বে ৫ উইকেটে জিতেছে মারাঠা অ্যারাবিয়ানস। নর্দান ওয়ারিয়র্সের ১২৭ রান তাড়া করতে নেমে জয় তুলে নেয় দলটি। ৩ বলে ৯ রানে অপরাজিত ছিলেন মোসাদ্দেক। নর্দানে খেলছেন বাংলাদেশের সাবেক ওপেনার জুনায়েদ সিদ্দিক।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন