default-image

পুরোনো সেই স্মৃতি এখনো জীবন্ত। ক্রিকেটপ্রেমীদের তা সহসা ভুলে যাওয়ার কথা নয়। ভারতীয় সমর্থকদের জন্য তো হিরণ্ময় স্মৃতি। ভারতের ইনিংসের সূচনা করছেন শচীন টেন্ডুলকার ও সৌরভ গাঙ্গুলী। ওয়ানডে ইতিহাসেরই অন্যতম সেরা এ ওপেনিং জুটি। নস্টালজিয়া পেয়ে বসলে আরও মনে থাকার কথা, ওয়ানডেতে দুজন ওপেন করতে নেমে বেশির ভাগ সময় প্রথম বলটির মুখোমুখি হতেন সৌরভ। কেন?

এ প্রশ্ন আজকের না। দুই কিংবদন্তির খেলোয়াড়ি জীবন থেকেই ভক্তদের কাছে তা বিরাট রহস্য। এত দিন পর সেই রহস্য ফাঁস করলেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক ও বর্তমানে বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী। ভারতের টেস্ট ওপেনার মায়াঙ্ক আগারওয়ালের সঙ্গে অনলাইন আড্ডায় তা জানিয়েছেন সাবেক বাঁ হাতি এ ব্যাটসম্যান। ভিডিওটি প্রকাশ করা হয়েছে বিসিসিআইয়ের টুইটার অ্যাকাউন্টে।

মায়াঙ্কের প্রশ্নের জবাবে বিষয়টি নিয়ে মুখ খোলেন সৌরভ, 'হ্যাঁ, সে আমাকে সব সময় স্ট্রাইক নিতে বলত। সব সময় আমাকে না পাঠিয়ে মাঝে-মধ্যে তোমারও প্রথম বলটা খেলা উচিত, বলতাম আমি। কিন্তু তার কাছে সব সময় এর জবাব প্রস্তুত থাকত।' তা, কী সেই জবাব? সৌরভ জানালেন, দু-রকম পরিস্থিতির জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের কাছে সব সময় দুটি জবাব তৈরি থাকত। 'দুটো জবাব তার তৈরি থাকত। ফর্মে থাকলে বলত, এটা চালিয়ে যেতে তার অপর প্রান্তেই (নন-স্ট্রাইক) থাকা উচিত। আর ফর্মে না থাকলে বলত অপর প্রান্তেই থাকা উচিত। এটা চাপ কমিয়ে দেয়'—বলেন সৌরভ।

তবে টেন্ডুলকার যে একেবারেই স্ট্রাইক নেননি তা কিন্তু নয়। মাঝে-মধ্যে চিরায়ত দৃশ্যের ব্যত্যয় ঘটেছে। সেটি অবশ্য সৌরভের চালাকির জন্য। বিসিসিআই সভাপতি নিজেই জানালেন সে কথা, 'যেহেতু তার কাছে জবাব তৈরি থাকত তাই সোজা গিয়ে অপর প্রান্তে (নন স্ট্রাইক) দাঁড়াতে হতো। ম্যাচটা ততক্ষণে টিভিতে সম্প্রচার হওয়া শুরু হয়ে যেত। তখন সে প্রথম বল খেলতে (স্ট্রাইক নেওয়া) বাধ্য হয়েছে। এটা একবার বা দুবার ঘটেছে।'

ওয়ানডেতে টেন্ডুলকার-সৌরভের ওপেনিং জুটি থেকে ১৭৬ ইনিংসে ৪৭.৫৫ গড়ে ৮,২২৭ রান পেয়েছে ভারত। ওয়ানডেতে আর কোনো ওপেনিং জুটি ৬ হাজার রানের ওপাশে যেতে পারেনি।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন