বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

৬৩ ওভারে ৫ উইকেটে ১৪৭ রানে চতুর্থ দিনের খেলা শেষ করেছিল নিউজিল্যান্ড। আজ ১০.৪ ওভারের মধ্যে মাত্র ২২ রান তুলতেই বাকি ৫ উইকেট হারিয়ে অলআউট হয় কিউইরা।

সকালের সেশনে ২টি করে উইকেট নেন ইবাদত হোসেন ও তাসকিন আহমেদ। ১টি উইকেট মেহেদী হাসান মিরাজের। নিউজিল্যান্ড প্রথম ইনিংসে ৩২৮ রানে অলআউট হয়। বাংলাদেশ নিজেদের প্রথম ইনিংসে তুলেছে ৪৫৮।

ক্যারিয়ারের ১১১তম টেস্ট খেলতে নামা ৩৭ বছর বয়সী টেলরের অভিজ্ঞতায় তাকিয়ে ছিল নিউজিল্যান্ড। ১৭ রানে এগিয়ে থেকে আজ পঞ্চম ও শেষ দিনে ব্যাটিংয়ে নামেন টেলর ও রাচিন রবীন্দ্র। দ্বিতীয় ওভারে দারুণ এক ডেলিভারিতে টেলরকে বোল্ড আউট করেন ইবাদত।

বল তাঁর ব্যাটের কানায় লেগে স্টাম্প ভেঙে দেয়। ১০৪ বলে সর্বোচ্চ ৪০ রান করে ফেরেন টেলর। এরপর শর্ট লেগে ইবাদতের বলে কাইল জেমিসনের দারুণ ক্যাচ নেন শরীফুল ইসলাম। টানা দুই ওভারে দুই উইকেট নেন ইবাদত। জেমিসন আউট হওয়ার পরের ওভারে রাচিন রবীন্দ্রকে (১৬) লিটন দাসের ক্যাচে পরিণত করেন তাসকিন। এরপর টিম সাউদিকেও তুলে নেন তিনি। মিরাজের বলে ট্রেন্ট বোল্টের দারুণ ক্যাচ নেন বদলি ফিল্ডার তাইজুল ইসলাম।

নিউজিল্যান্ডকে দ্রুত অলআউট করে ম্যাচের চতুর্থ ইনিংসে জয়ের জন্য সহজ লক্ষ্য পেয়ে গেল বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে সব সংস্করণ মিলিয়ে এখনো প্রথম জয়ের খোঁজ করা বাংলাদেশের জন্য এ ম্যাচটা দারুণ সুযোগ। টেস্টে বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের ঘরে এ সংস্করণে ঐতিহাসিক এক জয়ের লক্ষ্যে ম্যাচের চতুর্থ ইনিংসে ব্যাট করতে নামবে বাংলাদেশ।

টেলরকে আউট করে টেস্টে প্রথমবারের মতো ইনিংসে ৫ উইকেটের দেখা পেলেন ইবাদত। ১১ টেস্টের ক্যারিয়ারে কাল দারুণ বল করে ৪ উইকেট নেন ইবাদত।

আজ টেলর ও জেমিসনকে দ্রুত ফিরিয়ে আরও বড় কিছুর ইঙ্গিত দিচ্ছেন তিনি। টেস্টে বাংলাদেশের পেসারদের মধ্যে এক ইনিংসে সেরা বোলিংয়ের রেকর্ড এখন ইবাদতের। এ পর্যন্ত ২০ ওভারে ৪৬ রানে ৬ উইকেট নিয়েছেন তিনি। সকালে এ পর্যন্ত ২ উইকেট নিয়েছেন তাসকিন। কাল ১ উইকেট নেন তিনি।

অন্য প্রান্ত থেকে বল করছেন তাসকিন আহমেদ। সকালের সেশন দুজন পেসারই দারুণ শুরু এনে দিয়েছেন।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন