করাচি টেস্ট হারল দক্ষিণ আফ্রিকা
করাচি টেস্ট হারল দক্ষিণ আফ্রিকাছবি: এএফপি

এক দিন বেশি ছুটি পেল দক্ষিণ আফ্রিকা?

কথাটা রসিকতার ছলে বলা হলেও সত্য। করাচি টেস্টের ফল মিলেছে আজ চতুর্থ দিনে। কাল শেষ ও পঞ্চম দিনে কোনো দলকে মাঠে নামতে হবে না। এদিক বিচারে এক দিন বেশি ছুটি পেল প্রোটিয়ারা। কিন্তু এই ছুটির আমেজ সফরকারী দল কতটুকু উপভোগ করতে পারবে? দুই ইনিংস মিলিয়ে দলীয় সংগ্রহ একবারও আড়াই শ ছুঁতে পারেনি কুইন্টন ডি ককের দল। স্পিন খেলায়ও দেখা গেছে শিক্ষানবিশের ছাপ। পারফরম্যান্স এমন হলে হার তো অবধারিত।

করাচিতে আজ এক সেশন বাকি থাকতেই তা মেনে নিতে হলো প্রোটিয়াদের। জয়ের জন্য মাত্র ৮৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেটে জিতেছে পাকিস্তান। এই রান তাড়া করতে নেমে পাকিস্তানের ৩ উইকেট হারানোই বরং চোখে বিঁধতে পারে। ৩০ রান করে আউট হন পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। দুই টেস্টের সিরিজে ১–০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল স্বাগতিক দল।

পাকিস্তান এই টেস্ট জিততে যাচ্ছে, তা খানিকটা আঁচ করা গিয়েছিল কাল তৃতীয় দিনের খেলা শেষে। দ্বিতীয় ইনিংসে ১৮৭ রান তুলতে ৪ উইকেট হারিয়েছিল প্রোটিয়ারা। এর মধ্যে মাত্র ১০ রানের মধ্যে ৩ উইকেট পড়েছিল ইয়াসির শাহ ও নোমান আলীর স্পিনে কুপোকাত হয়ে। তখনই বোঝা গিয়েছিল আজ চতুর্থ দিনে স্পিনে নাকাল হতে পারে সফরকারী দল। ঘটেছেও ঠিক তা–ই। আজ ৫৮ রান তুলতে বাকি ৬ উইকেট হারায় ডি ককের দল। এর মধ্যে ৫ উইকেটই দুই স্পিনারের। দ্বিতীয় ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকা ২৪৫ রানে গুটিয়ে যাওয়ায় জয়ের জন্য ৮৮ রানের সহজ লক্ষ্য পায় পাকিস্তান। পাকিস্তানের আগের ইনিংসে সেঞ্চুরি তুলে নেওয়া ফাওয়াদ আলমের ব্যাট থেকে এসেছে জয়সূচক রান।

default-image
বিজ্ঞাপন

প্রথম তিন দিনে তবু ভালোই লড়েছিল প্রোটিয়ারা। কিন্তু আজ ম্যাচ পরিস্থিতি অনুযায়ী গুরুত্বপূর্ণ দিনে তারা দাঁড়াতেই পারেনি। আজ মাত্র ২৫.৩ ওভার টিকেছে তাদের ইনিংস। দ্বিতীয় ইনিংসে বেশিক্ষণ টিকতে না পারার খেসারত গুনে ম্যাচটা হারতে হলো দক্ষিণ আফ্রিকাকে। করাচি এমনিতেই টেস্টে পাকিস্তানের জন্য দুর্গ। এ মাঠে ৪৩ টেস্ট খেলে ২৩ জয় পেয়েছে পাকিস্তান। ১৮ ড্র এবং হার মাত্র ২টি।

ইয়াসির ও নোমানের স্পিন খেলতে না পারাও প্রোটিয়াদের হারের অন্যতম কারণ। দুই ইনিংস মিলিয়ে মোট ১৪ উইকেট নেন দুই স্পিনার। বাকি ৪ উইকেট পাকিস্তানি পেসারদের। ২টি রান আউট। টেস্ট অভিষেকে এক ইনিংসে ৫ উইকেট নিয়েছেন পাকিস্তানি স্পিনার নোমান।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন