বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

শাদাব পাকিস্তানে ফিরেছেন অস্ট্রেলিয়া থেকে। অস্ট্রেলিয়ার টি-টোয়েন্টি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ বিগ ব্যাশে এবার সিডনি সিক্সার্স দলে সুযোগ পেয়েছিলেন শাদাব। চারটি ম্যাচ খেলেই অবশ্য ফিরে আসতে হয়েছে তাঁকে। একে তো পাকিস্তানের নিজস্ব ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি লিগ পিএসএল শুরু হচ্ছে, তার ওপর বিশ্বজুড়ে করোনার সংক্রমণ জ্যামিতিক হারে বেড়ে চলেছে। সে কারণে শাদাবকে দ্রুত পাকিস্তানে ফিরে আসতে পরামর্শ দিয়েছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

নির্দেশনা মেনে কাল দেশে ফিরেছেন শাদাব। কিন্তু বিমানবন্দরে এমন অভ্যর্থনা পাবেন, সেটা হয়তো ঘুণাক্ষরেও ভাবেননি তিনি! ২৩ বছর বয়সী লেগ স্পিনার বিমানবন্দরে নামার পরের মুহূর্তের ভিডিও ধারণ করে সেটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়েছে পিএসএলের ফ্র্যাঞ্চাইজি ইসলামাবাদ ইউনাইটেড।

ভিডিওতে দেখা যায়, মাস্ক পরে অপেক্ষমাণ মানুষের মধ্যে দাঁড়িয়ে আছেন পাকিস্তানেরই পেসার হাসান আলী। হাতে একটা কাগজে লেখা, ‘মি. শাদাব খান।’ সাধারণত বিমানবন্দরে বড় কোনো অতিথির জন্য তাঁকে নিতে আসা ড্রাইভারকে যেভাবে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায় আরকি!

এখানে মজার বিষয়টা হচ্ছে, শাদাব ও হাসান একে অন্যের খুব ভালো বন্ধু। কিন্তু হাসানের আশপাশে আরও অনেক মানুষ থাকার কারণেই হোক কিংবা হাসানের মুখে মাস্ক থাকার কারণে, শাদাব প্রথমে হাসানকে চিনতেই পারেননি। তাঁকে এড়িয়ে চলেই যাচ্ছিলেন, কিন্তু এরপর সবকিছু ভিডিও করা হচ্ছে বুঝতে পেরেই হয়তো আবার ফিরে তাকান শাদাব। তখন হাসানকে দেখে চিনতে পারেন, আলিঙ্গনে বাঁধা পড়েন দুই বন্ধু।
ইসলামাবাদ ইউনাইটেড টুইটারে ভিডিওটি দিয়ে পোস্টের ক্যাপশনে লিখেছে, ‘সুখ হচ্ছে যখন আপনি লম্বা একটা ফ্লাইটের পর দেখবেন আপনার সবচেয়ে কাছের বন্ধু বিমানবন্দরে দাঁড়িয়ে।’

এবার বিগ ব্যাশে অবশ্য সময়টা ভালো কাটেনি শাদাবের। চার ম্যাচে ব্যাট হাতে রান করেছেন মাত্র ২০। বল হাতেও একই অবস্থা। রেনেগেডসের বিপক্ষে ৮ রান দিয়ে উইকেট পাননি, স্কর্চার্সের বিপক্ষে ১ উইকেট নিয়েছেন ৩৬ রানে, আর হিটের বিপক্ষে ২৭ রান দিয়েও উইকেটশূন্য।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন