default-image

আরও একবার বিতর্কে নিজের নামটা জড়িয়ে নিলেন বিতর্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন। এবার তাঁর বিতর্ক ছাপ ফেলছে খেলার জগতে। ইংল্যান্ডের মুসলিম ক্রিকেটার মঈন আলীকে ‘জঙ্গি’ ইঙ্গিত করে তসলিমা নাসরিনের টুইট বিতর্কের ঝড় তুলেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। ইংল্যান্ডের ক্রিকেটাররা এরই মধ্যে তাঁর মন্তব্যের বিরুদ্ধে কড়া জবাব দিয়েছেন। মঈন আলী নিজে এখনো কিছু বলেননি এ নিয়ে, তবে এবার জবাব এসেছে মঈন আলীর বাবার দিক থেকেও।

মঈনের বাবা মুনীর আলী ধুয়ে দিয়েছেন তসলিমা নাসরিনকে। তাঁর ছেলেকে জঙ্গি বলায় মনে বেশ আঘাত পেয়েছেন মুনীর আলী। তবে তসলিমা নাসরিনকে নিয়ে এখনই কিছু বলতে রাজি নন। মুনীর আলীর কথা, তসলিমা নাসরিনকে তিনি কোন চোখে দেখেন, সেটা তিনি কখনো তসলিমা নাসরিনের মুখোমুখি হলে তখন তাঁর মুখের ওপরই বলবেন! মঈন আলীর বিরুদ্ধে মৌলবাদসংক্রান্ত অভিযোগ এনেছেন তসলিমা নাসরিন, মঈনের বাবা উল্টো তসলিমা নাসরিনকেই বলছেন মৌলবাদী!

গতকাল মঙ্গলবার তাঁর প্রথম টুইটে বিতর্ক তৈরি হওয়ার পর পরবতী সময়ে আরেকটি টুইট করেন তসলিমা নাসরিন। ৫৮ বছর বয়সী লেখিকা তাতে লিখেছেন, মঈনকে নিয়ে তাঁর প্রথম টুইটটি ছিল ‘ব্যঙ্গ’ করে করা। সেটির জবাবে অভিধান খুলে ব্যঙ্গ শব্দটার অর্থ তসলিমা নাসরিনকে শিখে নিতে বলছেন মঈনের বাবা।

default-image
বিজ্ঞাপন

‘আমার ছেলে মঈনকে নিয়ে তসলিমা নাসরিনের হঠকারী মন্তব্যে আমি মনে খুব আঘাত পেয়েছি, বেশ চমকেও গেছি’—ভারতীয় দৈনিক ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসে বলেছেন মুনীর আলী। গতকাল মঈন আলীকে নিয়ে প্রথম টুইটে বিতর্কের পর সেটির ব্যাখ্যা দিয়ে আরেকটি টুইট করেছিলেন তসলিমা নাসরিন। তবে সেটি দেখার পর মুনীর আলীর মন্তব্য, ‘তাঁর ‘‘ব্যাখ্যা করা’’ টুইটে—যেখানে তিনি লিখেছেন যে তাঁর প্রথম মন্তব্যটা নাকি ব্যঙ্গ করে করেছেন, (সেই মন্তব্যে) এটাও লিখেছেন যে মৌলবাদের বিরুদ্ধে তাঁর অবস্থান। কিন্তু তিনি যদি আয়নায় নিজেকে দেখেন, জানবেন যে তাঁর টুইটটাই বোঝায় মৌলবাদ কাকে বলে—একজন মুসলিম ব্যক্তির বিরুদ্ধে কুৎসিত গৎবাঁধা বিবৃতি, যেটাতে ইসলামবিদ্বেষ স্পষ্ট।’

সরাসরি কিছু না বললেও তসলিমা নাসরিনকে ধুয়ে দিয়েছেন বটে মঈন আলীর বাবা। প্রথমে বললেন, ‘একজন মানুষ, যাঁর নিজের প্রতি সম্মান বলতে কিছু নেই, অন্যকে যিনি সম্মান দিতে পারেন না, তিনিই এত নিচে নামতে পারেন।’ এরপর অবশ্য নিজের রাগ সামলানোর বেশ চেষ্টা ছিল মুনীর আলীর, ‘সত্যি বলতে, আমি ভীষণ রেগে আছি। কিন্তু আমি জানি, এখন আমার রাগকে নিয়ন্ত্রণ না করলে তাঁর (তসলিমা নাসরিন) মতো মানুষের খেলার অংশ হয়ে যাব।’

তসলিমা নাসরিনকে যা বলার, কখনো সুযোগ পেলে সামনাসামনিই বললেন বলে জানালেন মুনীর আলী, ‘যদি কোনো দিন তাঁর সঙ্গে আমার দেখা হয়, সেদিন তাঁর মুখের ওপর বলব তাঁকে আমি কীভাবে দেখি। সেটার আগ পর্যন্ত এখন আমি তাঁকে বলব একটা অভিধান খুঁজে নিয়ে বিদ্রূপের অর্থটা পড়ে নিতে।’

গতকাল তসলিমা নাসরিনের এক টুইটের পরই যত বিতর্কের শুরু। এবার ভারতের টি-টোয়েন্টি লিগ আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংসে খেলছেন মঈন আলী। ৩৩ বছর বয়সী ইংলিশ অলরাউন্ডার ধর্মের বিধিবিধান মেনে চলা একজন মুসলিম। এর আগে যত দলে খেলেছেন, তার কোনোটির জার্সিতে মদজাতীয় পানীয়–সম্পর্কিত কোনো কোম্পানির লোগো থাকলে সেটি বাদ দিয়েছেন। আইপিলে এত বছর রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুতেও তা করেছেন, এবার চেন্নাইতে গিয়েও তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না।

দিন দুয়েক আগে খবর আসে, তাঁর জার্সি থেকে মদজাতীয় পানীয় প্রস্তুতকারী কোম্পানি এসএনজে ১০০০০-এর লোগো সরিয়ে দিতে চেন্নাইকে অনুরোধ করেছেন মঈন, চেন্নাই তা মেনেও নিয়েছে। কিন্তু পরশু আবার আসে উল্টো খবর। চেন্নাই জানায়, মঈন সে রকম কোনো অনুরোধই করেননি। এরপরই তসলিমা নাসরিনের ওই টুইট। প্রথম টুইটে লিখেছেন, ‘মঈন আলী ক্রিকেটার না হলে সিরিয়ায় গিয়ে আইএসআইয়ের সঙ্গে যোগ দিত।’

সমালোচনা-বিতর্কের ঝড় ওঠে সে টুইটে। অন্য অনেকের মধ্যে ইংল্যান্ড জাতীয় দলে মঈনের সতীর্থ ফাস্ট বোলার জফরা আর্চার মন্তব্য করেন তসলিমা নাসরিনের সেই টুইটে। আর্চার লেখেন, ‘আপনি কি সুস্থ? আমার তো মনে হয় না!’

বিজ্ঞাপন

চারদিকে সমালোচনা-বিতর্কের মধ্যে তসলিমা নাসরিন অবশ্য নিজের মন্তব্যের ব্যাখ্যা দিয়েছেন আরেকটি টুইটে। লিখেছেন, ‘নিন্দুকেরা ভালো করেই জানে, মঈন আলীকে নিয়ে করা টুইটটি ব্যঙ্গাত্মক। কিন্তু তারা এটাকে ইস্যু হিসেবে ধরে নিয়ে আমাকে অপদস্থ করছে। কারণ, আমি মুসলিম সমাজকে ধর্মনিরপেক্ষ করার চেষ্টা করি এবং ধর্মান্ধতার বিরুদ্ধাচরণ করি। মানবজাতির অন্যতম মর্মান্তিক বিষয় হলো, নারীবাদের পক্ষ নেওয়া বামপন্থীরা নারীবাদের বিপক্ষে অবস্থান নেওয়া ইসলামপন্থীদের সমর্থন দেয়।’

কিন্তু তাতে বিতর্ক তো কমেইনি, উল্টো যেন বেড়েছে। আর্চার সেই টুইটটি আবার রি-টুইট করে লেখেন, ‘ব্যঙ্গাত্মক? কিন্তু কেউ তো হাসছে না, এমনকি আপনিও না, এখন অন্তত যে কাজটা আপনি করতে পারেন, তা হলো টুইটটি মুছে ফেলা।’ ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের মধ্যে বেন ডাকেট ও স্যাম বিলিংস সবাইকে অনুরোধ করেছেন তসলিমা নাসরিনের টুইটার অ্যাকাউন্টটি ‘রিপোর্ট’ করার জন্য। ফাস্ট বোলার সাকিব মাহমুদ টুইটে তসলিমা নাসরিনকে বলেছেন, ‘জঘন্য।’

ক্রিকেটারদের সমালোচনা দৃশ্যত কিছুটা কাজ হয়েছে। মঈন আলীকে নিয়ে করা প্রথম টুইটটি মুছে দিয়েছেন তসলিমা নাসরিন।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন