default-image

জাতীয় ক্রিকেট লিগের প্রথম রাউন্ডের শেষ দিনে এসে করোনায় আক্রান্ত হলেন টেস্ট পেসার  ইবাদত হোসেন। কোভিড পজিটিভ হওয়ায় খুলনার বিপক্ষে ম্যাচের শেষ দিন মাঠে নামতে পারেননি সিলেটের এই পেসার। কোভিড বদলি হিসেবে তাঁর জায়গায় খেলেছেন আরেক পেসার রেজাউর রহমান।

বুধবার করোনাভাইরাসের মৃদু লক্ষণ দেখা দিলে সতর্কতাস্বরূপ পরীক্ষা করানো হয়। আজ সেই পরীক্ষায় পজিটিভ আসায় আইসোলেশনে পাঠানো হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন প্রথম ধাপে সিলেট ও খুলনার ম্যাচের ম্যাচ রেফারি রকিবুল হাসান, ‘আজ ওর পজিটিভ ফল আসার পর বদলি হিসেবে রেজাউরকে নামানো হয়। আইসিসির নতুন নিয়ম অনুযায়ী লাইক-ফর-লাইক বদলি দেওয়া যায়।’

বিজ্ঞাপন
default-image

ইবাদতের না থাকায় অবশ্য ম্যাচের ফলে খুব একটা পরিবর্তন আসেনি।

ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ৮ উইকেটে সিলেটকে হারায় বর্তমান চ্যাম্পিয়ন খুলনা। মাত্র ৭৩ রান তাড়া করতে নেমে যে ২ উইকেট হারিয়েছে খুলনা, তার একটি নিয়েছেন ইবাদতের বদলি খেলোয়াড় রেজাউর। দ্বিতীয় ইনিংসে এক ওভারই বোলিং করেছেন রেজাউর। সিলেটের দ্বিতীয় ইনিংসে ২৯ বল খেলে ১৪ রান করেছেন ২২ বছর বয়সী এ পেসার। ছিটকে যাওয়ার আগে প্রথম ইনিংসে ব্যাট হাতে ২ রানের পাশাপাশি বল হাতে ৩ উইকেট নিয়েছিলেন ইবাদত।

এর আগে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে ঢাকা মেট্রোর বাঁহাতি ওপেনার সাদমান ইসলামের। প্রথম রাউন্ডের ম্যাচ খেলতে পারেননি তিনি। এখন আছেন আইসোলেশনে। দ্রুত সুস্থ হলে খেলবেন দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে। ইবাদত ও সাদমান—দুজনই আবার বাংলাদেশ টেস্ট দলের নিয়মিত সদস্য। আগামী ১২ এপ্রিল বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফরে যাওয়ার কথা। প্রস্তুতির জন্য জাতীয় লিগে খেলা দরকার ছিল দুজনের। কিন্তু করোনা এসে প্রস্তুতিতে দিল বাধা।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন