বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

সাকিব আল হাসানকে পাচ্ছি না এ ম্যাচে। বিরাট বড় সমস্যা এটি। সাকিব নেই মানে দলের দুটি স্পট নিয়ে ভাবতে হবে টিম ম্যানেজমেন্টকে। সাকিব নেই মানে আজ একজন স্পিনার নেই, দলের সেরা বোলারই নেই। দলের সমন্বয় তৈরি করতে খুব সমস্যা হবে। আজ নাসুম আহমেদকে খেলাতেই হবে।

শুনছি শামীম হোসেন সুযোগ পাবে এ ম্যাচে। সে আসলে হয়তো জায়গা ছেড়ে দিতে হতে পারে আফিফ হোসেনকে। এমনিতেই এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিষ্প্রভ সে। শামীম দলে ঢুকলে দল হয়তো ‘ফিনিশিং রোল’টা তাঁর কাছেই চাইবে।

default-image

আমি আজ রুবেল হোসেনকে দলে নেওয়ার পক্ষে। মোস্তাফিজুর রহমানকে খুব ক্লান্ত মনে হচ্ছে। ওকে বিশ্রামই দেওয়া উচিত। আমার দলটা এমন—লিটন, নাঈম, সৌম্য, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহ, শামীম, মেহেদী, নাসুম, তাসকিন, শরীফুল ও রুবেল।


ডমিঙ্গো বলেছেন, তিনি দক্ষিণ আফ্রিকার দুর্বলতা জানেন। সেটি যে স্পিন খেলায়, তাও বলেছেন। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে স্পিন খেলতে অসুবিধা হয়েছে তাদের ঠিকই, কিন্তু ওদের এমন ব্যাটসম্যান আছে, যারা যেকোনো কিছু ঘটিয়ে দিতে পারে। ডেভিড মিলার শ্রীলঙ্কার সঙ্গে কী করল, সবাই সেটা দেখেছেন।

default-image

আমি আবারও বলছি, এ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ভুল করাতে হবে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে ভালো বোলিং করেও যে হারে ক্যাচ পড়েছে, সে সব হলে সর্বনাশ। ব্যাটিংয়ে মৌলিক বিষয়গুলো ঠিক করে খেলতে হবে। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে মুশফিকুর রহিম যে স্কুপটি খেলেছিল, ওসব খেলা যাবে না।

আমাদের শক্তিমত্তা অনুযায়ী ব্যাটিং করতে হবে। দেখা যাক, আগের ম্যাচের ভুলগুলো থেকে বাংলাদেশ দল কিছু শিখেছে কিনা!

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন