বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

দক্ষিণ আফ্রিকা দলের বর্তমান অবস্থা তুলে ধরেছেন বাঁহাতি স্পিনার কেশব মহারাজ, ‘আমরা সবাই প্রত্যেকের সংস্কৃতি, ধর্ম ও ভিন্নতাকে সম্মান করি। আমাদের দলে কোনো বর্ণবাদী নেই। এই মুহূর্তে দল হিসেবে আমরা খুব ভালো অবস্থায়ই আছি। গত সপ্তাহ আমাদের জন্য একটু কঠিন ছিল, কিন্তু আমি মনে করি, এ ঘটনা আমাদের সবাইকে আরও কাছ এনেছে এবং আমরা সবাই এ ঘটনা থেকে অনেক অণুপ্রেরণা নিতে পারব।’

দলের সবাই যে এখন বিতর্ক ভুলে মাঠে ভালো করতে উন্মুখ হয়ে আছে, সেটি ফুটে উঠল তাঁর কথায়, ‘এ ধরনের ঘটনা ছেলেরা সহজে সামলে নেওয়ার মতোই পরিণত। সবাই অনুশীলনে খুবই উৎফুল্ল ছিল। গত দুই দিনের ধাক্কা সবাই কাটিয়ে উঠেছে এবং সবার পুরো মনোযোগ এখন ক্রিকেটের দিকে ফিরে এসেছে।’

default-image

ডি কককে ছাড়াই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জয় পেয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে হারের পর দ্বিতীয় ম্যাচে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে তারা। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তৃতীয় ম্যাচ জিতে সেমিফাইনালের পথে আরেক ধাপ এগিয়ে যেতে চান মহারাজরা।

তবে আজ প্রোটিয়াদের সাবেক অধিনায়ক ডি কক ফিরবেন কি না, সেটা নিশ্চিত করে বলতে পারেননি বাঁহাতি এই স্পিনার, ‘দেখুন, তার খেলার পুরো ব্যাপারটি নির্ভর করছে নির্বাচকদের ওপর। তবে আমি এটা নিশ্চিত যে সে যদি সুযোগ পায়, তাহলে নির্দ্বিধায় দলে ফেরত আসবে।’

default-image

ডি ককের সক্ষমতা নিয়ে যে কারও মনে কোনো সন্দেহ নেই, সেটি বোঝা গেল দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে পাঁচটি টি-টোয়েন্টি খেলা এ স্পিনারের কথায়, ‘আমরা খুব ভালোমতোই জানি, তার মতো একজন ব্যাটসম্যান ব্যাট হাতে কী করতে পারে। সে প্রতিনিয়ত ম্যাচ জেতানোর মতো ইনিংস খেলে। গত সপ্তাহটা তার জন্য হয়তো একটু কঠিন গেলেও সে এ ধরনের পরিস্থিতি কাটিয়ে ওঠার মতো পরিণত। কুইনি হলো কুইনি এবং দলে তার উপস্থিতি আমরা খুবই পছন্দ করি।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন