default-image
>বিপিএলে আজ সিলেট থান্ডারকে ৫৫ বল হাতে রেখে ৮ উইকেটে হারিয়েছে রাজশাহী রয়্যালস

লক্ষ্যটা এক শ রানেও নিচে। রাজশাহী রয়্যালস তাই নির্ভার হয়েই উড়ন্ত সূচনা করতে পারত। কিন্তু উড়ন্ত সূচনাটা করলেন সিলেট থান্ডারের স্পিনার নাঈম হাসান। তাঁর তৃতীয় বলেই বোল্ড হযরতউল্লাহ জাজাই। বিশ্রী এক শট খেলে আউট হয়েছেন এ আফগান। তখন অনেকেই হয়তো ভেবেছিলেন, লো-স্কোরিং এ ম্যাচে হয়তো উত্তেজনা ভর করতে পারে। কিন্তু আফিফ হোসেন-লিটন দাস মিলে সিলেট সমর্থকদের প্রত্যাশিত উত্তেজনায় জল ঢেলে দিলেন। মাত্র ১০.৫ ওভারেই ৮ উইকেটের জয় তুলে নেয় রাজশাহী।

সপ্তম ওভারের শেষ বল পর্যন্ত টিকেছে লিটন-আফিফের জুটি। দ্বিতীয় উইকেটে ৩৯ বলে ৬২ রানের ঝোড়ো জুটি গড়েন দুজন। ২৫ বলে ৩০ রান করে আফিফ যখন (৬.৬ ওভার) আউট হলেন ম্যাচের ভাগ্য ততক্ষণে নির্ধারিত। লিটন অন্য প্রান্তে দ্যুতি ছড়িয়েছেন উইকেটের চারপাশে বাহারি সব স্ট্রোক খেলে। এই ছুটির দিনে বিকেলে গ্যালারিতে আসতে শুরু করা দর্শকেরা লিগের স্ট্রোক প্লে-তে আগের ইনিংসে সিলেটের ব্যাটিংয়ের রানখরা ভুলে যেতে পারেন। আফিফের কথাও বলতে হয়। চতুর্থ ওভারে এবাদত হোসেনকে কভারের ওপর দিয়ে যে ছক্কাটা মারলেন, স্রেফ চোখ জুড়িয়ে দেয়।

লিটন ও শোয়েব মালিক মিলে জয় তুলে নেওয়ার আনুষ্ঠানিকতাটুকু সেরেছেন। ২৬ বলে ৪৪ রান করে অপরাজিত ছিলেন লিটন। ৭টি চার মারেন তিনি। অন্য প্রান্তে ১১ বলে ১৬ রানে অপরাজিত ছিলেন শোয়েব।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন