সাকিব সিরিজজুড়েই ছিলেন উজ্জ্বল।
সাকিব সিরিজজুড়েই ছিলেন উজ্জ্বল।ছবি: প্রথম আলো

প্রায় এক বছর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছে বাংলাদেশ। সে ফেরায় সঙ্গী হয়েছেন নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আসা সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশের সিরিজ জয়ে সাকিবের ফেরাটাও তাঁর স্বভাবসুলভ সিরিজ–সেরা হয়ে। ওয়ানডের পরই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ। এরপরই নিউজিল্যান্ড সফরে যাবে বাংলাদেশ। কিন্তু সে সফরে সাকিবকে পাওয়া নিয়েই শঙ্কা জেগেছে।

মার্চের তৃতীয় সপ্তাহে তৃতীয় সন্তানের বাবা হতে যাচ্ছেন সাকিব। একই সময়ে নিউজিল্যান্ডে গিয়ে সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। তিনটি ওয়ানডে ও তিনটি টি-টোয়েন্টির সিরিজ খেলতে বাংলাদেশের নিউজিল্যান্ড যাওয়ার কথা ২২ ফেব্রয়ারি। কিন্তু তৃতীয় সন্তানের আগমন উপলক্ষে সে সিরিজ সাকিব যাবেন না বলেই শোনা যাচ্ছে। বিসিবির বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, এরই মধ্যে নির্বাচকদের বিষয়টি মৌখিকভাবে জানিয়েছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন
এখনো খুব একটা ভালো মনে হচ্ছে না। ২৪ ঘণ্টা না গেলে ভালোভাবে কিছু বলা সম্ভব নয়।
তাঁর চোট নিয়ে প্রশ্নে সাকিব আল হাসান

কিন্তু সে আলোচনা সবার মধ্যে ছড়িয়ে পড়াটা পছন্দ হয়নি সাকিবের। বিশেষ করে ওয়েস্ট সিরিজের বিপক্ষে ওয়ানডে চলার সময়টাতেই এমন খবর নিয়ে আলোচনা ভালো লাগছে না তাঁর।

আজ ম্যাচ শেষে নিউজিল্যান্ড সফরে যাওয়া না যাওয়া প্রসঙ্গে সাকিব হাসতে হাসতে বলেন, ‘এ বিষয়টা নিয়ে টেস্ট সিরিজের পরেই ভালোভাবে ধারণা পাওয়া যাবে। এগুলো আসলে ভেতরের কথা, বাইরে কীভাবে আসে, সেটাও আমি জানি না। কিন্তু এগুলো আসলে দলের ম্যানেজমেন্ট এবং আমার যখন একান্ত আলোচনা হবে, তখনই বোঝা যাবে।’

default-image

আজ সিরিজের শেষ ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১২০ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। সাকিব সিরিজ–সেরা হলেও চোটের কারণে আজ পুরো ম্যাচ খেলতে পারেননি। কুঁচকিতে চোট নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাঁকে। ম্যাচ শেষে নিজের চোটের মাত্রা সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘এখনো খুব একটা ভালো মনে হচ্ছে না। ২৪ ঘণ্টা না গেলে ভালোভাবে কিছু বলা সম্ভব নয়।’

আজ পুরো ম্যাচটি না খেলতে পারার হতাশাও লুকাননি সাকিব, ‘যেভাবে সিরিজটা গেল, খুবই খুশি। শেষ ম্যাচে পুরোটা সময় মাঠে থাকতে পারলে আরও ভালো লাগত। পুরো সিরিজে এটাই হতাশার। তবে ব্যাটিং-বোলিং সব মিলিয়ে খুশি।’

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন