৭২ রানের ইনিংস খেলার পথে মুম্বাইয়ের ঈশান কিষান।
৭২ রানের ইনিংস খেলার পথে মুম্বাইয়ের ঈশান কিষান। ছবি: আইপিএল

দুবাইয়ে আজ মুম্বাই ইন্ডিয়ানসকে হারাতে পারলেই শেষ চার নিশ্চিত হয়ে যেত দিল্লি ক্যাপিটালসের। তা তো হয়নি, উল্টো মুম্বাইয়ের কাছে ৯ উইকেটে হেরে অনিশ্চয়তার সুতোয় ঝুলে গেছে তাদের শেষ চার খেলার সম্ভাবনা। অন্যদিকে আগেই শেষ চার নিশ্চিত করা মুম্বাই আজকের জয়ে নিশ্চিত করে ফেলল শীর্ষ দুইয়ে থেকে কোয়ালিফায়ার খেলাও। ১৩ ম্যাচে ১৮ পয়েন্ট দলটির। ১৩ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে তিনে থাকা দিল্লি ২ নভেম্বর বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে জিততেই অবশ্য নিশ্চিত করে ফেলবে প্লেঅফ খেলা। তবে হেরে গেলে তাকিয়ে থাকতে হবে অন্য সব ম্যাচের ফলের দিকে।

এই আইপিএলে টানা দুই সেঞ্চুরি করা শিখর ধাওয়ান আজ ফিরেছেন শূন্য রানে। দিল্লির ওপেনিং জুটি ভেঙেছে স্কোরবোর্ডে ১ রান যোগ না হতেই। মুম্বাইয়ের পেস বোলিং আক্রমণের সামনে দিশেহারা দিল্লি ১৫ রানে হারিয়েছে আরেক ওপেনার পৃথ্বী শকেও (১০)।

বিজ্ঞাপন

শ্রেয়াস আইয়ার আর ঋষভ পন্তের তৃতীয় উইকেটে যোগ করা ৩৫ রানের জুটিটা যেন দিল্লির ‘মিছে আশা’! আয়ার ২৯ বলে ২৫ আর পন্ত ২৪ বলে ২১ রান করে আউট হতেই দিল্লির ভেঙে পড়াটা ছিল সময়ের ব্যাপার। মিডল অর্ডার ধাক্কা সামলাতে পারেনি। লোয়ার মিডল অর্ডারও স্কোরটা হৃষ্টপুষ্ট করতে পারেনি। লেজের ব্যাটসম্যানরা সেখানে আর কীই করতে পারবেন!

খুঁড়িয়ে চলা দিল্লি শেষ পর্যন্ত অলআউট হয়নি। ২০ ওভার শেষে ৯ উইকেটে তাদের স্কোর দাঁড়ায় ১১০ রান। মুম্বাইয়ের ট্রেন্ট বোল্ট ২১ রানে নিয়েছেন ৩ উইকেট। যশপ্রীত বুমরা তো আরও দুর্দান্ত—১৭ রানে পেয়েছেন ৩ উইকেট। বাকিরাও করেছেন কিপটে বোলিং।

default-image

১১১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নামা মুম্বাইয়ের ওপেনাররা হয়তো ভেবেছেন, এ আর কী কঠিন! ঈশান কিষান আর কুইন্টন ডি কক ওপেনিং জুটিতেই তুলে ফেলে ৬৮ রান। বোল্ড হওয়ার আগে ২৮ বলে ডি কক করেন ২৬ রান। কিষান ৪৭ বলে ৭২ রান করে ম্যাচ জিতিয়ে ফেরেন। ৮টি চার ও ৩টি ছক্কা মেরেছেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। সূর্যকুমার যাদব অপরাজিত ছিলেন ১১ বলে ১২ রান করে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0