default-image

খানিক খেলার পরই ঝুম বৃষ্টি। পোর্ট এলিজাবেথে চার দিন ধরে একই দৃশ্যের পুনরাবৃত্তি হচ্ছে। টেস্টের চতুর্থ দিনের খেলা, অথচ এখনো পর্যন্ত দুই দলের একটা করে ইনিংসই শেষ হয়নি। শেষ পর্যন্ত বৃষ্টি বেশি সময় হয়েছে, না খেলা—এটা হতে পারে কুইজের প্রশ্ন।
কাল যেটুকু খেলা হয়েছে তাতে অবশ্য ব্যাট-বলের লড়াই হয়েছে প্রায় সমানে সমান। দিনের শুরুর দিকে ব্যাট হাতে শাসন করেছেন দুই ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ব্যাটসম্যান ক্রেইগ ব্রাফেট ও মারলন স্যামুয়েলস। দুজনের সেঞ্চুরিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজও কাটিয়েছে ফলোঅনের শঙ্কা। কিন্তু এরপরই ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ব্যাটিং অর্ডারে ধস নামিয়ে শেষটা নিজেদের করে নিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার বোলাররা। বৃষ্টির কারণে আরও একবার খেলা বন্ধ হয়ে যাওয়ার সময় ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ ৯ উইকেটে ২৭৫। দিনের খেলার ইতিও এখানে। প্রথম ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকার চেয়ে ১৪২ রান পিছিয়ে। তবে যেহেতু ফলোঅন করতে হয়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজকে, আর আজ শেষ দিনেও বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে, ড্র-ই পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টের সম্ভাব্য নিয়তি বলে মনে হচ্ছে।
দুই উইকেটে ১৪৭ রান নিয়ে দিন শুরু করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ফলোঅন এড়াতে তখনো দরকার ৭১ রান। কিন্তু ব্রাফেট ও স্যামুয়েলস জুটি বেঁধে লক্ষ্যটা পেরিয়ে গেলেন খুব স্বছন্দে। তৃতীয় উইকেটে এ দুজনের ১৭৬ রানের জুটিতে রান উঠেছে ওভারপ্রতি ৩.৬৬ করে। ব্রাফেট পেয়েছেন টেস্ট ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি, স্যামুয়েলস ষষ্ঠ। কিন্তু চা-বিরতির একটু আগে পরপর দুই ওভারে স্যামুয়েলস আর ব্রাফেট ফিরে যেতেই ভোজবাজির মতো পাল্টে যায় দৃশ্যটা। ২৬০ থেকে ২৭৫ রানে যেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ হারায় ৫ উইকেট। ক্রিকইনফো, টেন ক্রিকেট।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন