২০০৭ সালের ১৭ মার্চ তারিখটা অনেক দিনই তাড়া করে বেড়িয়েছে রাহুল দ্রাবিড়কে। পোর্ট অব স্পেনের সেই ম্যাচে বাংলাদেশের কাছে হেরেছিল বাংলাদেশ, দ্রাবিড় নিজে করেছিলেন মাত্র ১৪ রান। ওই পরাজয়ই ভারতকে দেখিয়ে দিয়েছিল গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায়ের দরজা। বিশ্বকাপ উপলক্ষে ক্রিকইনফোর ধারাবাহিক কলামে দ্রাবিড় তুলে আনলেন সেই স্মৃতি।
২০০৭ বিশ্বকাপের পর অনেক চড়াই-উতরাই গেছে বাংলাদেশের, এই সময়টায় প্রাপ্তির আনন্দ যেমন ছিল, সঙ্গী হয়েছে পরাজয়ের হতাশাও। তবে দ্রাবিড় খোলাখুলি জানিয়ে দিলেন, বাংলাদেশকে যে উচ্চতায় দেখতে চেয়েছিলেন, সেখানে দেখতে পাননি, ‘২০০৭ সালে বাংলাদেশের কাছে হারের অনেক বড় মূল্য দিতে হয়েছিল আমাদের। আপনি হয়তো ভেবেছিলেন এরপর তারা ধীরে ধীরে আরও পরিণত হবে, আরও ধারাবাহিক হবে। কিন্তু সেটা কেন যেন হয়নি, অথচ ২০০৭ সালের পর পেরিয়ে গেছে অনেকটা সময়। আট বছর পরও কিন্তু শীর্ষ আট দলের সঙ্গে তাদের খুব বেশি জয় নেই। বাংলাদেশকে আরও অনেক বেশি জিততে হবে, আরও আত্মবিশ্বাসী হতে হবে।’
২০০৭ বিশ্বকাপে দ্রাবিড়ের মতো বাংলাদেশের কাছে পরাজয়ের স্বাদ পেয়েছিলেন গ্রায়েম স্মিথও। দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়কের সমালোচনার সুরটা যেন আরও বেশি চড়া, ‘তাদের কয়েকজন বাঁহাতি স্পিনার আছে, তাদের ব্যাটসম্যানরা “হয় মারে, নয় মরে”। ওদের ক্রিকেটে কোনো ধারাবাহিকতা নেই। ‘ওহ, কী দারুণ একজন পেস বোলার আসছে’ বা ‘এই ব্যাটসম্যানের দারুণ সম্ভাবনা আছে’—তাদের ক্ষেত্রে এ রকমটা খুব বেশি বলা যাচ্ছে না। তাদের মান সেই একই আছে। আমি জানি না কোচিং, ক্রিকেটীয় ভাবনা নাকি উন্নতির শ্লথগতি, কোনটার কারণে তাদের এই দশা।’ ক্রিকইনফো।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন