বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

অবিশ্বাস্য লাগছে তো? হ্যাঁ, এটাই সত্য। অন্তত চেন্নাইয়ের সাবেক ব্যাটসম্যান সুব্রমনিয়ম বদ্রিনাথের কথা মানলে তো বটেই। ২০০৮ সালে প্রথম আইপিএল শুরুর আগে আট ফ্র্যাঞ্চাইজি আটজন ভারতীয় তারকাকে ভাগাভাগি করে নিয়েছিল ‘আইকন’ খেলোয়াড় হিসেবে।

কলকাতার ছেলে সৌরভ গাঙ্গুলী, বেঙ্গালুরুর রাহুল দ্রাবিড়, মুম্বাইয়ের শচীন টেন্ডুলকার, দিল্লির বীরেন্দর শেবাগ, পাঞ্জাবের যুবরাজ সিং আর হায়দরাবাদের ভিভিএস লক্ষ্মণ নিজ নিজ শহরের ফ্র্যাঞ্চাইজি ছেড়ে যাননি। গিয়েছিলেন যথাক্রমে কলকাতা নাইট রাইডার্স, রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু, মুম্বাই ইন্ডিয়ানস, দিল্লি ডেয়ারডেভিলস, কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ও ডেকান চার্জার্সে। ওদিকে ধোনির রাজ্য বিহারের কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি না থাকায়, আর চেন্নাই থেকে উঠে আসা তেমন কোনো তারকা খেলোয়াড় তখন ভারতের জাতীয় দলে না থাকায় ধোনি পাড়ি জমান চেন্নাইয়ে। একই সমস্যায় পড়া রাজস্থান রয়্যালস তেমন কাউকে না পেয়ে শেন ওয়ার্নের হাতে অধিনায়কত্ব দেয়।

default-image

কিন্তু ধোনির প্রতিও প্রথমে আগ্রহী ছিল না চেন্নাই। বদ্রিনাথ জানিয়েছেন, দিল্লির ছেলে বীরেন্দর শেবাগই ছিল আইকন হিসেবে চেন্নাই কর্তাব্যক্তিদের প্রথম পছন্দ। এখন ধারাভাষ্যকার হিসেবে কাজ করা বদ্রিনাথ নিজের ইউটিউব চ্যানেলে বলেছেন, ‘আইপিএল ২০০৮ সালে শুরু হয়। আর আইকন হিসেবে চেন্নাইয়ের প্রথম পছন্দের কথা যদি বলা হয়, তাহলে সেটা ধোনি ছিলেন না, ছিলেন শেবাগ। চেন্নাইয়ের কর্তাব্যক্তিরা শেবাগকে দলে আনার ব্যাপারে নিশ্চিত ছিলেন। কিন্তু পরে শেবাগ নিজের শহরের ফ্র্যাঞ্চাইজি ছেড়ে আসতে চাননি। জানিয়েছিলেন, দিল্লিতেই যেহেতু বেড়ে উঠেছেন, সেই ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে তাঁর সম্পর্কটা অন্য রকম হবে।’


নিলামের আগে ভারত প্রথম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জেতে। সেটাও ধোনির পক্ষে কাজ করে বলে জানিয়েছেন বদ্রিনাথ, ‘চেন্নাই তখন বুঝতে পারে যে শেবাগের দিল্লিতেই খেলা উচিত। এরপর নিলামের সময় এল। তারা দেখল, দুজনের মধ্যে কে ভালো খেলোয়াড়। ধোনি তখন ভারতকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতিয়েছেন। এরপরই চেন্নাই সিদ্ধান্ত নেয় ধোনিকে কেনার।’

default-image

ধোনিকে দলে নিয়ে তখন একের চেয়ে বেশি সুবিধা পেয়েছিল চেন্নাই, এমনটাই মনে করেন বদ্রিনাথ, ‘সেবার ছয় কোটি রুপি দিয়ে ধোনিকে কেনা হয়। ধোনিকে দলে নিয়ে চেন্নাই এক ঢিলে তিন পাখি মারে। প্রথমত, ধোনি তখন বিশ্বের অন্যতম সেরা অধিনায়ক। এমন কোনো ট্রফি নেই, যা অধিনায়ক হিসেবে সে জেতেনি। দ্বিতীয়ত, ব্যাট হাতে ম্যাচ শেষ করে আসায় তাঁর জুড়ি মেলা ভার। টি-টোয়েন্টি দলে একজন ফিনিশার থাকা দরকার অনেক। মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের পোলার্ড আছে, কলকাতা নাইট রাইডার্সের আছে আন্দ্রে রাসেল। চেন্নাইয়ের আছে ধোনি। তৃতীয়ত, ও একজন অসাধারণ উইকেটরক্ষক। আমার দেখা অন্যতম সেরা উইকেটকিপার সে।’

শেবাগের জায়গায় ধোনিকে নিয়ে চেন্নাই যে ভুল করেনি, সেটা তো পরিসংখ্যানই বলে দিচ্ছে!

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন