আজ কৌশলে কে এগিয়ে থাকবেন?
আজ কৌশলে কে এগিয়ে থাকবেন?ছবি: টুইটার

ছয় মাস সময় কীভাবেই না বদলে দেয় সব!

গত আইপিএল ভালো কাটেনি ঋষভ পন্তের। অস্ট্রেলিয়া সফরে ভারতের টেস্ট দল তো দূরে থাক, টি-টোয়েন্টি আর ওয়ানডে দলেও জায়গা না পাওয়ার দশা হয়েছিল ভারতীয় উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যানের। ওজন বেড়েছে বলে দলে ডাক পাবেন না পন্ত, এমন কথা রটেছিল। ফ্র্যাঞ্চাইজি কোচ রিকি পন্টিং তাঁকে নিয়ে অসন্তুষ্টি জানিয়েছিলেন। সেই পন্তই এবারের আইপিএল দিল্লি ক্যাপিটালসের অধিনায়ক।

পন্তের ভাগ্যের এমন বদলে অস্ট্রেলিয়া সফরই মূল ভূমিকা রেখেছে। যাঁর ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটেই জায়গা পাওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তা ছিল, সেই পন্ত টেস্ট সিরিজে মনে রাখার মতো দুটি ইনিংস খেলেছেন। এরপর ইংল্যান্ড সিরিজ দিয়ে তো দলে জায়গাই পাকা করে ফেলেছেন। তরুণ ক্রিকেটারদের গুরুত্ব দেওয়ার নীতিতে নামা দিল্লি তাই শ্রেয়াস আইয়ারের চোটের সময়টায় পন্তের কাঁধেই দলের ভার দিয়ে দিয়েছে।

সে সুবাদে আজ দারুণ এক উপলক্ষের সৃষ্টি হয়েছে। অধিনায়ক হিসেবে আজই অভিষেক হচ্ছে উইকেটকিপার–ব্যাটসম্যান পন্তের। আর আজ তাঁর বিপক্ষে টস করতে নামবেন ভারতীয় ক্রিকেটে উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যানদের মানদণ্ডকে প্রায় ধরাছোঁয়ার বাইরে নিয়ে যাওয়া মহেন্দ্র সিং ধোনি। আজ চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে খেলতে নামছে দিল্লি ক্যাপিটালস।

বিজ্ঞাপন
default-image

ভারতীয় ক্রিকেটের বর্তমান সেরা দুই উইকেটকিপারের লড়াই দেখার অপেক্ষা শুরু হয়ে গেছে। এর মধ্যে জাতীয় দলের কোচ রবি শাস্ত্রী এ লড়াইয়ের অন্য এক দিক তুলে এনেছেন সবার কাছে। উইকেটের পেছন থেকে দিকনির্দেশনা দেওয়ার ব্যাপারে ধোনি অতুলনীয়। তাঁর নিখুঁত নির্দেশনা যেকোনো স্পিনারকে আরও ক্ষুরধার করে তোলে।

২০০৭ সাল থেকে অধিনায়কত্ব করে আসায় মাঠে ধোনির মুখ সারাক্ষণই নড়তে থাকে। ম্যাচের প্রতি মুহূর্তেই সতীর্থদের নির্দেশনা দেন। সৌভাগ্যক্রমে স্টাম্প মাইক্রোফোন অন থাকলে সে নির্দেশনা শুনতে পান দর্শকেরা।

স্টাম্পের পেছন থেকে কথা বলায় কম যান না পন্তও। ধোনির মতো অবশ্য নির্দেশনা দেওয়ায় ব্যস্ত থাকেন না, বরং প্রতিপক্ষকে খোঁচানোতেই তাঁর যত আগ্রহ। ২০১৯ সালে টিম পেইনের সঙ্গে খোঁচাখুঁচি করে ‘বেবি সিটারে’র চাকরিও জুটিয়ে নিয়েছিলেন। এত বেশি কথা বলেন যে প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যান বিরক্ত হয়ে ওঠেন।

default-image

অধিনায়কত্ব পাওয়ার পর পন্তের কথা বলার হার যে আরও বাড়বে তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই শাস্ত্রীর। টুইটারে আজকের ম্যাচ নিয়ে ‘টিজার’ দিয়ে রেখেছেন ভারত দলের কোচ, ‘গুরুর বিপক্ষে শিষ্য। আজ অনেক মজা হবে। স্টাম্প মাইক থেকে ভেসে আসা কথা অবশ্যই শুনবেন সবাই।’

উইকেটের পেছনে এ দুজনের কথাবার্তা আগ্রহ নিয়ে এমনিতেই শোনার কথা সবার। ধোনি ম্যাচের কোন মুহূর্তে কী করা দরকার, এ নিয়ে যে নির্দেশনা দেন, সেটা যেকোনো উঠতি ক্রিকেটারের জন্যই মহামূল্যবান। ওদিকে পন্ত প্রতিপক্ষের মনোযোগ নাড়িয়ে দেওয়ার আদি ও অকৃত্রিম উপায়ে বিশ্বাসী।

পন্ত এ ম্যাচ নিয়ে নিজের উত্তেজনার কথা লুকাননি, ‘অধিনায়ক হিসেবে আমার প্রথম ম্যাচ মাহি ভাইয়ের (ধোনি) বিপক্ষে। আমার জন্য খুব ভালো অভিজ্ঞতা, কারণ তাঁর কাছ থেকে অনেক শিখেছি। খেলোয়াড় হিসেবে আমার নিজেরও অভিজ্ঞতা আছে...আমার নিজের অভিজ্ঞতা এবং এমএস ধোনির কাছ থেকে পাওয়া শিক্ষা কাজে লাগাব। এবং সিএসকের বিপক্ষে ভিন্ন কিছু করে দেখাতে চাই।’

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন