ধোনির অধিনায়কত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।
ধোনির অধিনায়কত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। ছবি: আইপিএল

কোথায় জানি সুরটা কেটে গেছে চেন্নাই সুপার কিংসের। এবারের আইপিএলে কোনো কিছুই ঠিকঠাক হচ্ছে না। মিডল অর্ডার জ্বলে উঠছে না, স্লগ ওভারে রান আটকাতে পারছেন না বোলাররা। মহেন্দ্র সিং ধোনি আগের মতো আর ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলছেন না। এমনকি তাঁর অধিনায়কত্ব নিয়েও প্রশ্ন উঠে যাচ্ছে!

গতকাল দিল্লি ক্যাপিটালসের বিপক্ষে অনেকটা সময় ব্যাকফুটে থাকলেও শেষ ওভারে আচমকা এগিয়ে গিয়েছিল চেন্নাই। ১৯তম ওভারে দুর্দান্ত বল করে মাত্র ৪ রান দিয়েছিলেন চেন্নাইয়ের ইংলিশ অলরাউন্ডার স্যাম কারেন। ফলে শেষ ওভারে ১৭ দরকার ছিল দিল্লির। উইকেটে দুজন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান থাকা অবস্থায় শেষ ওভারে রবীন্দ্র জাদেজার হাতে বল তুলে দেন চেন্নাই অধিনায়ক ধোনি। অক্ষর প্যাটেল তিন ছক্কা মেরে ৫ বলেই ২২ রান তুলে ম্যাচ শেষ করেছেন। ধোনির এমন সিদ্ধান্ত মানতেই পারছেন না স্প্রিন্টার ইয়োহান ব্লেক।

বিজ্ঞাপন

সময়ের হিসেবে যৌথভাবে ইতিহাসের দ্বিতীয় দ্রুততম মানব ব্লেক। ২০১২ অলিম্পিকে উসাইন বোল্টের মতো এক অতিমানবের উপস্থিতিই তাঁকে অলিম্পিকের একক সোনা পেতে দেয়নি। স্বদেশি বোল্টের পেছনে থেকে ১০০ ও ২০০ মিটারে রুপা জিতেছেন। ২০০ মিটারে তো সোনা না জেতা সবচেয়ে দ্রুততম দৌড়বিদের অলিম্পিক রেকর্ডও গড়েছিলেন। রিলেতে বোল্টের সঙ্গী হয়ে অবশেষে পেয়েছেন সে আকাঙ্ক্ষিত সোনার দেখা।

তবে ২০১২ ও ২০১৬ অলিম্পিকবিজয়ী নিজের সে পরিচয় ছাপিয়ে বহুদিন পর আলোচনায় এসেছেন ক্রিকেট দিয়ে। জ্যামাইকায় জন্ম, তাই ক্রিকেটের মহাভক্ত ব্লেক। নিয়মিত টেস্ট ক্রিকেট, ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (সিপিএল) বা আইপিএল নিয়ে টুইট করেন। আর সে সুবাদেই কাল ধোনির অধিনায়কত্ব নিয়ে ক্ষোভ জানিয়ে হঠাৎ আলোচনায় ‘দ্য বিস্ট’ খ্যাত ব্লেক।

বিজ্ঞাপন
default-image

শেষ ওভারে কাল জাদেজার হাতে ধোনি বল তুলে দিয়েছেন দেখে নিজেকে আটকাতে পারেননি ব্লেক। টুইটারে লিখেছেন, ‘গত কিছুদিনে এটাই ধোনির নেওয়া সবচেয়ে বাজে সিদ্ধান্ত। শেষে জাদেজাকে বল করানোর সিদ্ধান্তটা খুব বাজে ছিল। ব্রাভোর কী হয়েছে? মহেন্দ্র সিং ধোনি, খুবই খুবই খুবই খুবই বাজে সিদ্ধান্ত। বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের বিপক্ষে জাদেজাকে বল করতে পাঠাতে পারেন না।’

কাল ব্রাভোকে চাইলেও বল করাতে পারতেন না ধোনি। কারণ ডেথ ওভার স্পেশালিস্ট ডোয়াইন ব্রাভো এর আগেই ফিট না থাকায় মাঠ ছেড়েছেন। ধোনি জানিয়েছেন তাঁর হাতে মাত্র দুজন বোলার ছিলেন। হয় জাদেজা নয় তো লেগ স্পিনার কর্ণ শর্মা। অভিজ্ঞ জাদেজার কাছেই বল দিয়েছেন ধোনি। ব্লেক সেটা জানতেন না। টুইটারে ধোনিভক্তরা বেশ কড়া ভাষায় এ তথ্য তাঁকে জানিয়েছেন। ব্লেক তবু পিছপা হননি। এমন পরিস্থিতিতে কোনো বাঁহাতি স্পিনারকে বল দেওয়া মেনে নিতে পারেননি এই স্প্রিন্টার, ‘আমি বুঝতে পারছি ব্রাভো চোট পেয়েছে কিন্তু তবু আমি জাদেজাকে বল দিতাম না। কারণ, আমার হাতে তো শেন ওয়াটসন আছে যে দ্রুত বল করতে পারে।’

বিজ্ঞাপন
default-image

টুইটারে ভারতীয় কোনো তারকার সমালোচনা করলে সেটা নিয়ে খেপে ওঠেন ভারতীয় সমর্থকেরা। কালও এর ব্যতিক্রম হয়নি। একদিকে দল ভালো করছে না, ওদিকে আবার প্রিয় অধিনায়কের সমালোচনা—মেনে নিতে পারেনি ধোনিভক্তরা। নিজেকে রক্ষা করতে তাই আবার টুইট করতে হয়েছে ব্লেককে, ‘খেলাটা একটু বেশি ভালোবাসি বলেই এমন হয়। ভারতের সবাইকে বলছি আমি আপনাদের ভালোবাসি। যে ক্রিকেটকে আমরা এত ভালোবাসি সে খেলাটা উপভোগ করি। যখন খেলাকে এত ভালোবাসেন তখন কোন দল খেলছে সেটা গুরুত্বপূর্ণ নয়। আমি সবাইকে সমর্থন করি। ভারতের মানুষকে বলছি, আমি আপনাদের ভালোবাসি। কিন্তু আমি শেন ওয়াটসনকে দিয়েই বল করাতাম।’

মন্তব্য পড়ুন 0