ডমিঙ্গো  ভেবেছিলেন এবারের নিউজিল্যান্ড সফরেই হারের বৃত্ত থেকে বের হবে বাংলাদেশ।
ডমিঙ্গো ভেবেছিলেন এবারের নিউজিল্যান্ড সফরেই হারের বৃত্ত থেকে বের হবে বাংলাদেশ।ফাইল ছবি: প্রথম আলো

‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে খেলার পর বাকি দলগুলোকে পাড়ার ক্লাব মনে হতো।’—আশির দশকের ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে খেলার অভিজ্ঞতা এভাবেই ব্যাখ্যা দিতেন ইমরান খান। আজ বাংলাদেশ দলের নির্বাচক হাবিবুল বাশারও একই কথা একটু ঘুরিয়ে বললেন। নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশ দলের ভরাডুবি নাকি শ্রীলঙ্কা সফরে ভালো করতে সাহায্য করতে পারে।

আজ সংবাদমাধ্যমে নিউজিল্যান্ড সিরিজে বাংলাদেশের প্রাপ্তি প্রসঙ্গে হাবিবুল বলেছেন, ‘এটা বোঝা যাবে আমাদের পরবর্তী সিরিজ শ্রীলঙ্কা সফরে। সাধারণত একটা কঠিন সিরিজ পার করে আসার পর পরের সিরিজটা একটু সহজ হয়। আমার অভিজ্ঞতা থেকে বলা। ভিন্ন সংস্করণ, কন্ডিশনও আলাদা। প্রাপ্তি বলতে আমাদের উপলব্ধিটা। আমরা কোথায় দাঁড়িয়ে আছি, আমাদের কোন কোন জায়গায় উন্নতি করতে হবে। নিজেদের সম্পর্কে উপলব্ধি করাটাই এই সফরের বড় প্রাপ্তি।’

বিজ্ঞাপন

নিউজিল্যান্ড সফরে বাংলাদেশ দলের ইতিবাচক বলতে তেমন কিছুই ছিল না। ব্যাটিং ছিল ছন্নছাড়া। ফিল্ডিং ছিল দৃষ্টিকটু। বোলিং মোটামুটি হলেও ম্যাচ জেতানোর মতো স্পেল দেখা যায়নি স্পিন ও পেসারদের কাছ থেকে। তবে এসবের জন্য প্রস্তুতির ঘাটতিতে অজুহাত হিসেবে দেখাতে চান না হাবিবুল। শুধু নিজেদের যা সামর্থ্য সেটা না দেখানোর আক্ষেপ শোনালেন নির্বাচক।

তবে নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনের কথাও মনে করিয়ে দিয়েছেন তিনি, ‘নিউজিল্যান্ডকে আমি আলাদা করে রাখতে চাই। কারণ, নিউজিল্যান্ডে শুধু বাংলাদেশ দল নয়, যারাই যায় সংগ্রাম করে। একটু ভিন্ন কন্ডিশন যেকোনো দেশের থেকে। এমনকি অস্ট্রেলিয়াতে (সর্বশেষ সফর ২০০৮ সালে) গিয়েও আমাদের এত অসুবিধা হয়নি। আমি জানি না আসলে কী কারণ হতে পারে। তবে দেখেন অস্ট্রেলিয়াও কিন্তু নিউজিল্যান্ডে গিয়ে হেরে এসেছে। আমি এটাকে কোনো অজুহাত হিসেবে দেখাতে চাই না, তুলনা করতে চাই না। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনটা যেকোনো দেশের জন্যই চ্যালেঞ্জিং হয়। কিন্তু এবার আমাদের আশা ছিল, অন্যবারের চেয়ে ভালো দল নিয়ে গিয়েছি, পারফরম্যান্সে উন্নতি হবে। সেটা হয়নি, আমার জন্য অবশ্যই হতাশার।’

default-image

হতাশায় ভেসে যাওয়ার ফুরসত অবশ্য নেই বাংলাদেশ দলের। এক সপ্তাহ পরই শ্রীলঙ্কায় দুই টেস্ট খেলতে যাবে মুমিনুল হকের দল। দু-এক দিনের মধ্যেই শ্রীলঙ্কা সফরের দল ঘোষণা করার কথা। বেশ কয়েকজন ক্রিকেটারের চোটের শঙ্কা থাকায় যা একটু দেরি হচ্ছে। হাবিবুল জানালেন, ‘ফিটনেস নিয়ে একটা চিন্তা আছে। আমি যতটুক জানি মুশফিক ফিট হয়ে যাবে। আমরা ওকে পাব। আরও কয়েকটা জায়গায় চিন্তার বিষয় আছে। হাসান মাহমুদের ফিটনেসের বিষয় আছে, আমরা তার রিপোর্ট আজ বা কাল পেয়ে যাব। ফিটনেসের বিষয় থাকায় আমরা দলটা এখনো দিতে পারিনি। আজ-কালের মধ্যে সবার রিপোর্ট পেয়ে যাব। এরপরই দল চূড়ান্ত করে ফেলব।’

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন