শ্রীলঙ্কা সফর আপাতত স্থগিত। বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা কাল এই খবরটা পেয়ে হয়তো একটু মন খারাপই করেছে। তবে আজ তাদের জন্য সুখবর দিয়েছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট (এনজেডসি)। ২০২১ সালের মার্চে বাংলাদেশের নিউজিল্যান্ড সফরের সূচি প্রকাশ করেছে তারা।

এই সফরে মুশফিকুর রহিম-তামিম ইকবালরা একটি ম্যাচ খেলবেন ক্রাইস্টচার্চে। ২০১৯ সালে নিউজিল্যান্ড সফরে সে শহরেরই এক মসজিদে জুমার নামাজ পড়তে গিয়ে ভয়াবহ এক বন্দুক হামলার সাক্ষী হয়েছিলেন তারা। এক উন্মাদ বন্দুকধারী মসজিদে হামলা চালিয়ে হত্যা করেছিল জনা পঞ্চাশেক নিরীহ মানুষকে। বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়েরা মসজিদে প্রবেশের আগেই হয়েছিল সে হামলা। ভাগ্যক্রমেই সেদিন বেঁচে গিয়েছিলেন বাংলাদেশের ক্রিকেট তারকারা।

নিউজিল্যান্ডে এবারের সফরে বাংলাদেশ দল তিন ম্যাচের একটি ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে। তামিম মুশফিকরা ক্রাইস্টচার্চে খেলবেন ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটি। ১৭ মার্চ দ্বিতীয় ওয়ানডে হবে সেখানে। ১৩ মার্চ ডানেডিনে প্রথম ওয়ানডে খেলে বাংলাদেশ দল ক্রাইস্টচার্চ যাবে ১৫ মার্চ। সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেটি হবে ২০ মার্চ, ওয়েলিংটনে। ওয়ানডে সিরিজ শেষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু হবে ২৩ মার্চ। ম্যাচটি হবে নেপিয়ারে। ২৬ মার্চ অকল্যান্ডে হবে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি। হ্যামিল্টনে সিরিজের শেষ ম্যাচ ২৮ মার্চ।

default-image
বিজ্ঞাপন

প্রথম ম্যাচ ডানেডিনে হলেও বাংলাদেশের সফর শুরু হবে ক্রাইস্টচার্চ দিয়ে। সিরিজ শুরুর আগে শহরটিতে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে বাংলাদেশ দলকে। সেখানে লিংকন ইউনিভার্সিটিতে এনজেডসির হাই পারফরম্যান্স সেন্টারে অনুশীলন করবেন বাংলাদেশের খেলোয়াড়েরা। সফরটি আয়োজনে নিউজিল্যান্ড সরকার এখনো এনজেডসিকে চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়নি। তবে এনজেডসির প্রধান নির্বাহী ডেভিড হোয়াইট নিশ্চিত, সফরটি যথা সময়েই হবে।

শ্রীলঙ্কা সফর স্থগিত হয়ে যাওয়ার পেছনে ছিল ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকার বিষয়টি। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটকে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে না থাকার অনুরোধ করা হয়েছিল। কিন্তু সেটি মেনে নেয়নি শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট। আর সেখানে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকার সময়ে অনুশীলনের কোনো সুযোগ-সুবিধাও পাওয়া যেত না।

মন্তব্য পড়ুন 0