default-image

নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে টানা হার ও চোটে বিপর্যস্ত বাংলাদেশ দল। অকল্যান্ডে আজ টি-টোয়েন্টি সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে তা ভালোই অনুভব করছে মাহমুদউল্লাহর দল। ভুল হলো। ঊরুর চোটে এ ম্যাচে খেলছেন না টি-টোয়েন্টিতে নিয়মিত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। এ ম্যাচে নেতৃত্ব দেবেন লিটন দাস। বৃষ্টি হানা দেওয়ায় ম্যাচ শুরু হতে দেরি হচ্ছে। মাহমুদউল্লাহ না খেলায় দীর্ঘ ১৫ বছর পর ‘পঞ্চপাণ্ডব’দের কেউই নেই বাংলাদেশ দলে।

বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে সপ্তম এবং সব সংস্করণ মিলিয়ে ১৮তম অধিনায়ক হিসেবে আজ জাতীয় দলের নেতৃত্ব দেবেন লিটন। মোট চার পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামতে পারে বাংলাদেশ। মাহমুদউল্লাহ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মেহেদী হাসান ও তাসকিন আহমেদের জায়গায় দলে ঢুকতে পারেন নাজমুল হোসেন শান্ত, রুবেল হোসেন, আল-আমিন হোসেন ও মোসাদ্দেক হোসেন।

default-image
বিজ্ঞাপন

ওয়ানডে সিরিজ চলাকালীন তামিম ইকবাল জানিয়েছিলেন, ব্যক্তিগত কারণে টি-টোয়েন্টি সিরিজে তিনি খেলবেন না। সাকিব আল হাসানও নিউজিল্যান্ড সফর থেকে ছুটি নিয়েছিলেন তৃতীয় সন্তানের জন্ম উপলক্ষে। মাশরাফি বিন মুর্তজা তো টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নিয়েছেন সেই ২০১৭ সালেই। কাঁধের চোটের কারণে টি-টোয়েন্টি সিরিজে কোনো ম্যাচ খেলতে পারছেন না মুশফিকুর রহিম। অর্থাৎ এই পাঁচ সিনিয়র তারকা খেলোয়াড়ের কাউকেই পাচ্ছে না বাংলাদেশ দল।

বাংলাদেশ ক্রিকেটকে দীর্ঘদিন সেবা দিয়ে যাওয়া এই পাঁচ ক্রিকেটার ছাড়া বাংলাদেশ সর্বশেষ ম্যাচ খেলেছে ২০০৬ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি। সেবার চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজে প্রথম টেস্টে এই পাঁচ ক্রিকেটারের কেউ দলে ছিলেন না। তখন অবশ্য সাকিব, তামিম, মাহমুদউল্লাহদের আন্তর্জাতিক অভিষেক হয়নি। বগুড়ায় ৮ মার্চ শুরু হওয়া পরের টেস্টে খেলেন মুশফিকুর রহিম। ১৫ বছর পর এই প্রথম ‘পঞ্চপাণ্ডব’দের ছাড়াই খেলতে নামছে বাংলাদেশ। এ সময়ের মধ্যে সব সংস্করণ মিলিয়ে ৪৪২ ম্যাচে পাঁচ সিনিয়র ক্রিকেটারের মধ্যে কেউ না কেউ দলে ছিলেন।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন