default-image

শেষ ভালো যার, সব ভালো তার। জ্যাক লিচের এখন নিশ্চয়ই এমন অনুভূতিই হচ্ছে। চেন্নাইয়ে ভারতের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে শেষ পর্যন্ত ইংল্যান্ড ২২৭ রানে জয়লাভ করায় আর দ্বিতীয় ইনিংসে লিচ নিজেই ৪ উইকেট নেওয়ায় তাঁকে কোনো প্রশ্নের মুখে পড়তে হচ্ছে না। অন্যথায় প্রথম ইনিংসে ভারতের ঋষভ পন্ত তাঁর বলে যেভাবে বাউন্ডারি হাঁকাচ্ছিলেন, প্রথমবার ভারত সফরে আসা লিচকে টেস্ট শেষে সেটি নিয়ে আতশি কাচের নিচেই পড়তে হতো।

তা হয়তো এখন হচ্ছে না, তবে লিচ নিজেও মুহূর্তটা একেবারে ভুলে যাচ্ছেন না। প্রথম ইনিংসে পন্তের মার খেয়ে একটা সময়ে নাকি ভবিষ্যতে আর ক্রিকেটে থাকবেন কি না, সে সিদ্ধান্ত নিয়েই নিজেকে প্রশ্ন করতে শুরু করে দিয়েছিলেন বাঁহাতি ইংলিশ স্পিনার।

বিজ্ঞাপন
default-image

চেন্নাইয়ে প্রথম টেস্টের তৃতীয় দিনের কথা। পন্ত এসেই মারতে শুরু করেন। অবশ্য এভাবে ক্রিজে এসে ঝড় তোলার অভ্যাস তাঁর পুরোনো। ভারতের অস্ট্রেলিয়া সফরেও তো পন্ত ঝড় তুলে ভারতের ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে প্রিয় হয়ে গেছেন। ব্রিসবেনে দ্বিতীয় ইনিংসে তাঁর অপরাজিত ৮৯ রানের দুর্দান্ত ইনিংসেই টেস্ট জেতে ভারত, গড়ে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টানা দ্বিতীয় টেস্ট জেতার কীর্তি।

তবে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের তৃতীয় দিন বিকেলে আরও ঝোড়ো ছিল পন্তের ব্যাট। ৯১ রান করেছেন ৮৮ বলে, চার ৯টি, ছক্কা ৫টি। ঝড়টা বেশি গেছে লিচের ওপর দিয়েই। এমনই যে একটা সময়ে ৮ ওভারে ৭৭ রান দিয়েছিলেন ইংলিশ স্পিনার! তখনই ক্রিকেটে নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্নটা মাথায় ঘুরপাক খাচ্ছিল লিচের।

স্কাই স্পোর্টসে ২৯ বছর বয়সী স্পিনার প্রথমে জানিয়েছেন চেন্নাই টেস্টে তাঁর পাঁচ দিনের অভিজ্ঞতার কথা, ‘ভারতে এটা আমার প্রথম সফর, আর কী শুরুই না হলো! প্রথম টেস্টে আমাদের জয়ের পথে সব ধরনের আবেগের মধ্য দিয়েই গেছি। অবশ্য এটার জন্যই তো ক্রিকেটকে এত ভালোবাসি।’

default-image

এরপরই উঠে এল পন্তের ওই ঝড়ের সময়ের অনুভূতির বিবরণ, ‘তৃতীয় দিনে আট ওভারে ৭৭ রান দেওয়ার পর আমি নিশ্চিতই ছিলাম না এরপর আর কখনো ক্রিকেট খেলতে চাইব কি না। সেখান থেকে ফিরে এসে দলের জয়ে অবদান রাখতে পেরেছি বলে সত্যিই গর্ব হচ্ছে।’ তবে এত বড় জয়ের পরও তাঁর কাছে জয়টাকে কঠিনই মনে হচ্ছে, ‘২২৭ রানে জয়ের পথেও এত কঠিন লাগবে ম্যাচটাকে—এমনটা কে ভেবেছিল?’

ভারতের প্রথম ইনিংসে ২ উইকেট নেওয়া লিচ দ্বিতীয় ইনিংসে নিয়েছেন ৪ উইকেট। চতুর্থ দিনে শেষ বিকেলে দ্বিতীয় ইনিংসে ৪২০ রানের লক্ষ্য নিয়ে নামে ভারত, দিন শেষ হওয়ার আগেই ভারতের ওপেনার রোহিত শর্মাকে ফিরিয়ে দেন লিচ। আর পঞ্চম দিনে তুলে নিয়েছেন চেতেশ্বর পূজারা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও শাহবাজ নাদিমের উইকেট।

এর মধ্যে রোহিতের উইকেটটিই লিচের মনে গেঁথে গেছে, ‘আমার কথা বলতে গেলে বলব, চতুর্থ দিনের শেষ দিকে যে ডেলিভারিতে রোহিত শর্মাকে আউট করেছি, ভবিষ্যতে ম্যাচগুলোর জন্য সেটিকে কল্পনায় গেঁথে রাখব। ওই মাপের একজন খেলোয়াড়কে দারুণ একটা বলে ফেরাতে পেরে খুব ভালো লাগছিল। তার ওপর উইকেট পাওয়ার সময়টাও খুবই ভালো ছিল, ওই উইকেট পাওয়াতেই আমাদের আর এমন মনে হয়নি যে পঞ্চম দিনে নেমে ১০ উইকেট নিতে হবে।’

বিজ্ঞাপন
default-image

আগামী কাল চেন্নাইয়েই ভারতের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের চার টেস্টের সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটি শুরু হবে। তবে প্রথম টেস্টে এত বড় জয় পেলেও ভারতকে নিয়ে বেশ সতর্ক লিচ, ‘ঘরের মাটিতে ভারতের আগের রেকর্ড যদি দেখেন—৩৪ ম্যাচে ২৮ জয় ও ৫ ড্র—এটাই আমাদের বুঝিয়ে দিচ্ছে যে আমরা কোন মানের প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখে পড়ব। ভারত উচ্চমানের একটা দল, ওরা ঘুরে দাঁড়াতে লড়াই করবেই। আমাদের তাই প্রস্তুত থাকতে হবে।’

এত কিছুর মধ্যে অবশ্য ইংল্যান্ডের অধিনায়ক জো রুটকেও একটা সনদ দিয়ে রেখেছেন লিচ। সিরিজের প্রথম টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করা রুট লিচের চোখে ‘স্পিনের বিপক্ষে বিশ্বের সেরা ব্যাটসম্যান।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন