default-image
>ব্যাটসম্যান সৌম্য ধীরে ধীরে হচ্ছেন অলরাউন্ডার সৌম্য। নতুন দায়িত্ব উপভোগও করছেন জাতীয় দলের এই ক্রিকেটার।

টপ অর্ডারে বিশ্বমানের বোলারদের বিপক্ষে বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ের সামর্থ্য রাখেন সৌম্য সরকার। পাওয়ার প্লেতে ৩০ গজের সুবিধাটা বাংলাদেশের যে কয়জন ব্যাটসম্যান খুব ভালো নিতে পারেন, তাঁদের মধ্যে অন্যতম সেরাই তিনি। কিন্তু কয়েক মাস ধরে সৌম্য যেন বদলে ফেলছেন নিজের ‘ব্যাটসম্যান’ পরিচয়। ব্যাটিংয়ের সঙ্গে সমানতালে তিনি করে যাচ্ছেন বোলিংও। নিজেকে অলরাউন্ডার হিসেবে পরিচিত করে যাচ্ছেন তিনি। সবশেষ পাকিস্তান সফরেও দেখা গেছে ‘অলরাউন্ডার’ সৌম্যকে।

সৌম্যর অলরাউন্ডার হওয়ার শুরু বাংলাদেশ ‘এ’ দলের শ্রীলঙ্কা সফরের সময়। এরপর ঘরের মাঠে ইমার্জিং এশিয়া কাপের পর বিপিএলেও বোলিং করেছেন সমানতালে। সফলও হয়েছেন। বোলিং করলেও ‘এ’ দল, ইমার্জিং এশিয়া কাপ ও বিপিএলে ব্যাট করেছেন টপ অর্ডারে। কিন্তু পাকিস্তান সিরিজে সৌম্যকে লোয়ার অর্ডারে খেলানো নিয়ে প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো জানিয়েছেন, লোয়ার অর্ডারে দ্রুত রান তোলার মতো ব্যাটসম্যান না থাকায় সৌম্যকে নিচে খেলানো হচ্ছে।

সৌম্য এখন নিজেকে অলরাউন্ডারই ভাবতে শুরু করেছেন। অলরাউন্ডার হলেই নাকি তাঁর ক্যারিয়ারের জন্য ভালো হবে। আজ মিরপুর একাডেমি মাঠে বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) দল ওয়ালটন মধ্যাঞ্চলের অনুশীলন শেষে তিনি বলছিলেন, ‘অবশ্যই, আমার জন্য ভালো হবে। আগে এক দিক (ব্যাটিং) নিয়ে চিন্তা করতাম। এখন দুই দিক পাচ্ছি। শুধু ব্যাটিংয়ে খারাপ করলে মনে হয় দিনটা শেষ হয়ে গেল আজ। এখন সুযোগ বেশি থাকবে ভালো করার।’

পাকিস্তান সফরে অবশ্য ব্যাট হাতে তেমন কিছু করতে পারেননি। সে সুযোগও ছিল না তাঁর। দুই ইনিংসেই নেমেছেন ইনিংসের শেষ দিকে। বোলিংটাও খুব ভালো হয়নি। বাংলাদেশ সিরিজ হেরেছে ২-০ ব্যবধানে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0