বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

সুপার টুয়েলভে গ্রুপ ওয়ানে আজ মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। এই ম্যাচের জয়ের ওপর অনেকটাই নির্ভর করছে ইংল্যান্ড ও পাকিস্তানের সেমিফাইনালে মুখোমুখি হওয়ার সমীকরণ। কাগজে-কলমে অবশ্য এখনই সেটা স্পষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। যদি গ্রুপে দুইয়ে পাকিস্তান সব ম্যাচে জেতে, তাহলে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবেই সেমিফাইনালে খেলবেন বাবর আজমরা। আর এক নম্বর গ্রুপের সব ম্যাচ জিতলে ইংল্যান্ডও এই গ্রুপের সেরা হবে। সে ক্ষেত্রে সেমিফাইনালে পাকিস্তানকে এড়াতে পারবে ইংল্যান্ড।

পাকিস্তানের গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়া প্রায় নিশ্চিত হয়ে গেছে। নিজেদের গ্রুপে শুরুতেই কঠিন তিনটি ম্যাচ পেয়েছিল দলটি। ভারত, নিউজিল্যান্ড ও আফগানিস্তানকে হারিয়ে প্রাথমিক কাজটা শেষ করে ফেলেছে তারা। বাকি দুই ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ প্রথম পর্ব পেরিয়ে আসা স্কটল্যান্ড ও নামিবিয়া। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা পাকিস্তানের বিপক্ষে এই দুই দলের জয়ের পক্ষে বাজি ধরার লোক খুব একটা পাওয়া যাবে না।

default-image

এ জন্য আজকের ম্যাচটিকে ইংল্যান্ডের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলছেন ভন। আর এই ম্যাচ জিতে ইংল্যান্ড যেন পাকিস্তানকে এড়াতে পারে, সেটাও চাইছেন সাবেক ইংলিশ অধিনায়ক, ‘অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ইংল্যান্ডের এ ম্যাচ মহাগুরুত্বপূর্ণ। যে–ই জিতুক না কেন, তারা গ্রুপের সেরা হয়ে এই পর্ব শেষ করবে। আমি নিশ্চিত, পাকিস্তানও গ্রুপসেরা হয়েই তাদের এই পর্ব শেষ করবে। আমি সেমিফাইনালে পাকিস্তানের মুখোমুখি হতে চাই না।’

ভন চাইছেন অন্য কোনো দল যেন পাকিস্তানকে সেমিফাইনালে বিদায় করে দেয়, ‘যদি আমরা অন্য সেমিফাইনালে খেলি, তাহলেই আমি বেশি খুশি হব। আশা করব, অন্য কোনো দল যেন পাকিস্তানকে ছিটকে দেয়। আমরা এখনো ফাইনাল থেকে অনেক দূরে আছি, কিন্তু ওদের জেতার মতো সবকিছু আছে।’

default-image

পাকিস্তানের ব্যাটিং লাইনআপে মুগ্ধ ভন। বাবর আজম, মোহাম্মদ রিজওয়ান, ফখর জামান, আসিফ আলীদের মতো ব্যাটসম্যান রয়েছেন পাকিস্তানের টপ অর্ডারে। এমন একটা শক্তিশালী দলকে হারানো সহজ হবে না বলছেন ভন, ‘এই পাকিস্তান দলের ওপেনিং জুটিটা দেখুন (আজম ও রিজওয়ান), মিডল অর্ডারে অভিজ্ঞ হাফিজ ও মালিক রয়েছে। এখন তারা চমৎকার ফিনিশারও পেয়েছে। তা ছাড়া ওদের বোলিং লাইনও শক্তিশালী। ওরা একটা ভয়ংকর দল।’

গতকাল আফগানিস্তানকে হারানোর ম্যাচে অসাধারণ ব্যাটিং করেছেন আসিফ আলী। ম্যাচের ১৯তম ওভারে ৪ ছক্কা মেরে হৃদয় ভেঙেছেন আফগানদের। ৭ বলে ২৫ রানে অপরাজিত ছিলেন আসিফ। ম্যাচ বের করে তবেই মাঠ ছাড়েন আসিফ। এটা দেখেও ভয়ে আছেন ভন, ‘পাকিস্তান যেভাবে ম্যাচগুলো শেষ করছে, তাতে অন্য দলগুলোকেও যেন একটা বার্তা দিচ্ছে। আফগানিস্তান তাদের বেশ চাপে ফেলেছিল। কিন্তু পাকিস্তান যেভাবে জিতেছে, সেটা চমৎকার একটা দলগত জয়। এ জয়ে তাদের সবার অবদান রয়েছে, যেটা এই টুর্নামেন্টে অন্য সবার জন্যই চিন্তার বিষয়।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন