পাকিস্তানের বিপক্ষে সেই জয়ের পর ভারতের উল্লাস।
পাকিস্তানের বিপক্ষে সেই জয়ের পর ভারতের উল্লাস। ফাইল ছবি: এএফপি

২০০৭ সালে প্রথম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ভারত। দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে অনুষ্ঠিত ফাইনালটি ছিল চরম উত্তেজনার। আগে ব্যাটিং করে ৫ উইকেটে ১৫৭ রান করে ভারত। জবাবে ৩ বল বাকি থাকতেই ১৫২ রানে গুটিয়ে যায় পাকিস্তান।

তবে তেরো বছর আগে সেই চরম উত্তেজনার ফাইনালের আগে একই বিশ্বকাপে একটি নাটকীয় ম্যাচ উপহার দিয়েছিল চির প্রতিদ্বন্দ্বী দুই দেশ এবং সেই জয়টি ছিল আজকের দিনে।

সেই বিশ্বকাপে ফাইনালের আগেও গ্রুপ পর্বে ডারবানে মুখোমুখি হয়েছিল চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত ও পাকিস্তান। গ্রুপ পর্বের ম্যাচটি উত্তেজনার পারদ ছড়িয়েছিল আরও।

বিজ্ঞাপন

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ৯ উইকেটে ১৪১ রান করে ভারত। ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে পাকিস্তানের সংগ্রহও তাই। ম্যাচটি ড্র হওয়ায় ভাগ্য গড়ায় বোল আউটে এবং শেষ পর্যন্ত সেখানেও জিতেছিল ভারত।

বোল আউটের নিয়মটা এখন আর নেই ক্রিকেটে। টি-টোয়েন্টির প্রথম যুগে ম্যাচে সমতা থাকলে দুই দলের পাঁচজনকে একটি করে বল করতে হতো। যে দল বেশি বল স্টাম্পে লাগাবে, তারাই জিতবে-এটাই ছিল নিয়ম। ভারতের প্রথম তিনজন বীরেন্দ্রর শেবাগ, হরভজন সিং ও রবিন উথাপ্পা সফল হলেও ব্যর্থ হয়েছিলেন পাকিস্তানের তিনজন। ফলে দুই বল হাতে রেখেই সেই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটি জিতে নেয় ভারত।

বিজ্ঞাপন

সেই জয়টিকেই আজ উদ্‌যাপন করছে ভারতীয় ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ আইপিএলের দলগুলো।
সেই ম্যাচের জয়ের নায়ক রবিন উথাপ্পা এখন রাজস্থান রয়্যালসে। টি-টোয়েন্টি অভিষেকেই ৩৯ বলে ৫০ রানের দুর্দান্ত একটি ইনিংস খেলেছিলেন উথাপ্পা আর বোল আউটে বল লাগিয়েছিলেন স্টাম্পেও।

সেই ম্যাচ শেষে উথাপ্পার একটি উদ্‌যাপনের ছবি দিয়ে রাজস্থানের টুইট, ‘দিনটি ছিল রবিনের। প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। ব্যাটে ৫০ রান। তারপর বোল আউট শেষে এই উদ্‌যাপন।’

বিজ্ঞাপন

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ সম্মান জানিয়েছেন বোল আউটের সেই তিন নায়ককেই। দলটি টুইট করেছে, ‘২০০৭ সালের এই দিনে বিখ্যাত বোল আউটে পাকিস্তানের বিপক্ষে এসেছিল জয়।’

ওদিকে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর টুইট, ‘২০০৭ সালে আজকেই এই দিনে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে বোল আউটে ৩-০ ব্যবধানে জয়।’

মন্তব্য পড়ুন 0