পাকিস্তানের হতাশা বাড়িয়ে যাচ্ছে বৃষ্টি

বিজ্ঞাপন
default-image
রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে প্রথম দিন থেকেই বৃষ্টির থাবা পড়েছে। প্রথম দিনে তবু প্রায় ৭০ ওভারের মতো খেলা হয়েছিল। দ্বিতীয় দিনে সেটা নেমে এসেছে ১৮ ওভারে। গতকাল ৫ ওভারের একটু বেশি মাঠে থেকেই উঠে যেতে হয়েছে দুই দলকে


দৃশ্যটা মন কেড়ে নেওয়ার মতো। গ্যালারি খাঁ খাঁ করছে, মাঠ বৃষ্টির পানিতে সিক্ত। অনেক জায়গায় থই থই পানি। এমন অবস্থায় গ্যালারিতে একটি বিন্দু হয়ে বসে আছেন এক দর্শক। এক দশক পর দেশের মাটিতে হওয়া টেস্টের এক মুহূর্তও হাতছাড়া করতে নারাজ এ দর্শক। মাঠ থেকে চলে যাওয়ার পর যদি খেলা শুরু হয়—এ শঙ্কায় মাঠ ছাড়েননি সেই ক্রিকেটপ্রেমী। কিন্তু আগ্রহী এ দর্শককে বেশিক্ষণ অপেক্ষায় রাখেনি পিসিবি। দুপুর ১২টা নাগাদই জানিয়ে দেওয়া হয় আজ আর রাওয়ালপিন্ডিতে খেলা হচ্ছে না।

বহু প্রতীক্ষিত রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে প্রথম দিন থেকেই বৃষ্টির থাবা পড়েছে। প্রথম দিনে তবু প্রায় ৭০ ওভারের মতো খেলা হয়েছিল। দ্বিতীয় দিনে সেটা নেমে এসেছে ১৮ ওভারে। গতকাল ৫ ওভারের একটু বেশি মাঠে থেকেই উঠে যেতে হয়েছে দুই দলকে। আর আজ তো একটি বলও হয়নি। গত রাতের বৃষ্টি মাঠের পরিস্থিতি এতটাই খারাপ করে দিয়েছে যে খেলা শুরু করা যায়নি কোনোভাবেই। সে সঙ্গে অন্ধকার আকাশও বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংসই শেষ হয়নি এখনো। দিমুথ করুণারত্নের হ্যান্সি ক্রনিয়ের মতো ইতিহাসে নাম লেখানোর ইচ্ছা না জাগলে ৬ উইকেটে ২৮২ রান করা সফরকারীদের প্রথম টেস্ট ড্র করা নিশ্চিত হয়ে গেছে।

আগামীকাল আবহাওয়া ঠিক হয়ে যাবে এ আশা করা হচ্ছে। কিন্তু টেস্টের শেষ দিনে ৩৪ উইকেটের মীমাংসা হওয়ার সম্ভাবনা নেই কোনোভাবে। ২০০০ সালে সেঞ্চুরিয়নে প্রায় এমন এক পরিস্থিতিতে ৮ উইকেটে ২৪৮ রান করা দক্ষিণ আফ্রিকা শেষ দিনে ইনিংস ঘোষণা করেছিল। ইংলিশ অধিনায়ক নাসের হুসেইনের সঙ্গে কথা বলে এক মজার টেস্টের জন্ম দিয়েছিলেন ক্রনিয়ে। ইংল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকা দুই দলই একটি করে ইনিংস না খেলার ঘোষণা করে। ফলে ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংসে ২৪৯ রানের লক্ষ্য নিয়ে খেলতে নেমেছিল। উত্তেজনার জন্ম দেওয়া সে ম্যাচে অ্যালেক স্টুয়ার্ট ও মাইকেল ভনের ফিফটিতে ২ উইকেটে জিতেছিল ইংল্যান্ড।

আগামীকাল পাকিস্তানকে ২৮৩ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দিতেই পারেন করুণারত্নে। একটাই সমস্যা—পরবর্তী সময়ে জানা যায় জুয়াড়িদের প্ররোচনায় অমন দুর্দান্ত প্রস্তাব দিয়েছিলেন ক্রনিয়ে। তাই করুনারত্নে তেমন কোনো প্রস্তাব দিলে সেটাও যে সন্দেহের দৃষ্টিতে দেখা হবে না, সে নিশ্চয়তা নেই!

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন