default-image

কাল বিকেল ফাহিম আশরাফ যখন ফিরলেন, তখন স্কোরবোর্ড পাকিস্তানের রান ৮ উইকেটে ২৯৫। দক্ষিণ আফ্রিকান বোলাররা পাকিস্তানি লেজ কত দ্রুত ছেঁটে ফেলতে পারেন, সেটিই ছিল দেখার। কিন্তু ইয়াসির শাহ নামের একজন ছিলেন এই লেজে, যাঁর কিনা টেস্টে সেঞ্চুরি আছে। সেই ইয়াসির আজ তৃতীয় দিন সকালে ভোগালেন প্রোটিয়া বোলারদের। কেবল তিনিই নন, ভুগিয়েছেন ‘বোলার’ পরিচয়ের হাসান আলী, এমনকি অভিষিক্ত বাঁহাতি স্পিনার নোমান আলীও। লেজের দারুণ ব্যাটিংয়ে করাচি টেস্টে পাকিস্তানের প্রথম ইনিংস থেমেছে ৩৭৮-এ, দক্ষিণ আফ্রিকার চেয়ে ১৫৮ রানে এগিয়ে থেকে।

হাসান আলীকে বোল্ড করে অষ্টম দক্ষিণ আফ্রিকান হিসেবে টেস্টে ২০০ উইকেটের মাইলফলক ছুঁয়েছেন কাগিসো রাবাদা। ৮১৫৪ বলে ২০০তম উইকেট পেয়েছেন প্রোটিয়া পেসার। বলের হিসেবে ২০০-তে তৃতীয় দ্রুততম রাবাদা। পাকিস্তানের ওয়াকার ইউনিস (৭৭৩০) ও রাবাদার সতীর্থ ডেল স্টেইনই (৭৮৪৮) শুধু এর চেয়ে কম বল করে ২০০ উইকেট পেয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

প্রথম দিন ইয়াসির শাহ আর নোমান আলীর বোলিংয়ে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২২০ রানে গুটিয়ে দিয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমেই বিপর্যয়। ৩৪ রানে ৪ উইকেট নেই। সেই ধ্বংসস্তূপে দাঁড়িয়েই কাল সারাটা দিন লড়াই করেছেন ফাওয়াদ আলম, আজহার আলী আর ফাহিম আশরাফ। ফাওয়াদ তো তুলে নিয়েছেন তাঁর টেস্ট ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরিটি। ফাহিম আর আজহারের দুই ফিফটিতে পাকিস্তান পৌঁছে গিয়েছিল মোটামুটি স্বস্তিকর অবস্থানে। কিন্তু অতটুকুতে সন্তুষ্ট থাকলেন না পাকিস্তানি টেল এন্ডাররা। দলকে নিয়ে গেলেন বেশ ভালো অবস্থানেই। দাঁতে দাঁত চেপে কাগিসো রাবাদা, লুঙ্গি এনগিডি, কেশব মহারাজ আর জর্জ লিন্ডেদের বোলিং তোপ সামলে দলকে চালকের আসনে বসিয়ে দিয়েছেন তাঁরা। শেষ ২ উইকেটে ৮৩ রান তুলেছে পাকিস্তান।

ইয়াসির শাহ ৩৮ করেছেন। তাঁর ইনিংসটি অবশ্য খুব ধীরস্থির ছিল না। ওয়ানডে স্টাইলেই ব্যাট চালিয়েছেন। ৩৭ বল খেলেছেন তিনি। ৪টি বাউন্ডারি আর ১ ছক্কায় দক্ষিণ আফ্রিকান বোলারদের হতাশার মাত্রা কেবল বাড়িয়েছেনই। হাসান ৩৩ বলে ২১ আর নোমান ৪৯ বল খেলে ২৪ রান করেছেন।

করাচি টেস্টের উইকেট যেমন, তাতে স্পিনারদের রাজত্ব করার কথা। পাকিস্তানের ইয়াসির আর নোমানের মতোই দক্ষিণ আফ্রিকার বোলারদের ‘রাজা’ কেশব মহারাজ। তিনি ৩২.২ ওভার বোলিং করে ৯০ রান দিয়ে নিয়েছেন ৩ উইকেট। রাবাদা, এনগিডি আর আনরিখ নর্কিয়া নিয়েছেন ২টি করে উইকেট।

টেস্টের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের হাতে নিয়ে পাকিস্তান দল এখন তাকিয়ে বোলারদের দিকে। আড়াই দিন বাকি থাকা এই টেস্টে জয়ের দিকে তাকাতে শাহিন শাহ আফ্রিদি, হাসান আলী, ইয়াসির শাহ, আর নোমান আলীদেরই যে বাজিমাত করতে হবে।

এই প্রতিবেদন লেখার সময় নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। বিনা উইকেটে ৩৭ রান রান তুলে লাঞ্চে গেছে দলটি।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন