বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

এক বিবৃতিতে আইসিসি জানিয়েছে, ‘পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের মধ্যকার আজকের ম্যাচের জন্য ১৬ হাজারের বেশি টিকিট বিক্রি করা হয়েছিল। কিন্তু হাজারেরও বেশি দর্শক টিকিট ছাড়াই ভেন্যুতে এসেছিলেন এবং জোর করে স্টেডিয়ামে ঢোকার চেষ্টা করেছিলেন।’

কোনো আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় এভাবে টিকিট ছাড়া স্টেডিয়ামে ঢোকার স্মৃতি অবশ্য তাজা। এই বছর ঘরের মাঠে ইউরোর ফাইনালেই স্বাগতিক ইংল্যান্ডের দর্শকেরা নিরাপত্তাবেষ্টনী ভেঙে ঢুকে পড়েছিলেন স্টেডিয়ামে। সেদিন লন্ডনের পুলিশকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে অনেক বেগ পেতে হয়েছিল।

default-image

গতকালও দুবাই পুলিশকে পরিস্থিতি সামলাতে কিছু কড়া পদক্ষেপ নিতে হয়েছে। বিবৃতিতে আইসিসি জানিয়েছে, ‘স্টেডিয়ামের ভেতরে থাকা সবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দুবাই পুলিশ নিরাপত্তাকর্মীরা স্টেডিয়ামে ঢোকা বন্ধ করে দিয়েছিল। সন্ধ্যা সাতটার দিকে দুবাই পুলিশ সব গেট বন্ধ রাখার নির্দেশনা দিয়েছে এবং ভেন্যুকে নিরাপদ রাখার জন্য কাউকে আর ঢুকতে দেওয়া হয়নি।’

default-image

কিন্তু এভাবে গেট বন্ধ করে দেওয়ায় অনেকেই টিকিট থাকার পরও ঢুকতে পারেননি মাঠে। পাকিস্তানের পাঁচ উইকেটের জয়ও তাই সরাসরি দেখার সুযোগ হারিয়েছেন তাঁরা। এ ব্যাপারে ইমেরিটস ক্রিকেট বোর্ডকে (ইসিবি) তদন্ত করার পরামর্শ দিয়েছে আইসিসি।

আর সেই সঙ্গে ভুক্তভোগী দর্শকদের কাছ থেকে ক্ষমা চেয়েছে আইসিসি, ‘আজকের ঘটনায় ইসিবিকে একটা পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করতে বলেছে আইসিসি এবং এ থেকে কিছু শিক্ষা নেওয়ার থাকলে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে। সেই সঙ্গে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কাজ করে ভবিষ্যতে যেন এমন কিছু না হয়, সেটা নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। টিকিট থাকা সত্ত্বেও কোনো দর্শক যদি স্টেডিয়ামে ঢুকতে ব্যর্থ হন, সে ক্ষেত্রে আইসিসি ও ইসিবি ক্ষমা চাইছে। এবং টিকিট সরবরাহকারীদের সঙ্গে যোগাযোগ করার অনুরোধ জানানো হচ্ছে।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন