বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সেন্ট্রাল পাঞ্জাবের দ্বিতীয় একাদশের হয়ে ঘরোয়া টি–টোয়েন্টিতে ৫ ইনিংসে ভালো করতে পারেননি। এদিকে পাকিস্তান দলে তাঁর ফেরার সম্ভাবনা নেই বললেও চলে। এই পরিস্থিতি বুঝেই কি নতুন ঠিকানা গড়তে যুক্তরাষ্ট্রে গেলেন উমর আকমল?

প্রশ্নটি পাকিস্তান সংবাদমাধ্যমের। আজ উমর আকমলের এক টুইটের কারণেই প্রশ্নটি উঠেছে, ‘ব্যক্তিগত কিছু কাজের জন্য যুক্তরাষ্ট্রে যাচ্ছি। সবকিছু ঠিকঠাকমতো হলে সেখানে কিছুদিন থাকব। আমার জন্য সমর্থকেরা সব সময় যেভাবে প্রার্থনা করেন, এখনো তা করার অনুরোধ জানাচ্ছি।’

সূত্র মারফত দেশটির সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রে কিছু ম্যাচ খেলবেন ৩১ বছর বয়সী এ ক্রিকেটার। পাকিস্তানের আরেক ক্রিকেটার সামি আসলামের মতো যুক্তরাষ্ট্র দলে দীর্ঘস্থায়ী চুক্তিই নাকি পেতে চান আকমল। গত বছর পাকিস্তানের নিউজিল্যান্ড সফরের দলে জায়গা না হওয়ায় যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান টেস্ট ওপেনার সামি আসলাম।

আপাতত সেখানে লিগ ও অন্যান্য প্রতিযোগিতায় খেলবেন তিনি। ২০২৩ সালের নভেম্বরে যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় দলে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবেন ২৫ বছর বয়সী সামি আসলাম।

আকমলকে নিয়ে সূত্রের উদ্ধৃতি, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে উমর আকমল নিজের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ আর দেখছেন না। বর্তমান পিসিবি ম্যানেজমেন্টের অধীনে পাকিস্তান জাতীয় দলে তাঁর খেলার সম্ভাবনা খুব কম।’

তবে পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, এ মৌসুমে কায়েদে আজম ট্রফিতে একাদশে সুযোগ পেলে দেশে ফিরে আসবেন।

পাকিস্তান ক্রিকেটে নানাভাবে বিতর্কিত উমর আকমলের টুইটে সমর্থকেরা বিরূপ মন্তব্যও করেছেন। একজনের মন্তব্য, ‘দয়া করে ফিরে এসো না।’ আরেকজনের মন্তব্য, ‘ফিরে এসো না, ওখানেই থাকো।’ আরেকটি মন্তব্য, ‘যাও। আমরা তোমাকে পেছনে ফেলে এসেছি।’

সংক্ষিপ্ত সংস্করণে উমর আকমল একসময় পাকিস্তান দলে নিয়মিত ছিলেন। ওয়ানডেতে ৩৪.৩৪ গড়ে ২ সেঞ্চুরিসহ ৩১৯৪ রান করেছেন তিনি। টি–টোয়েন্টিতে ২৬ গড়ে ১২২.৭৩ স্ট্রাইকরেটে তুলেছেন ১৬৯০ রান। কিন্তু বাজে ফর্ম, ফিটনেস হারানো এবং মাঠের বাইরে বিতর্কিত নানা কর্মকাণ্ডের খেসারত দিয়ে দলে জায়গা হারান উমর আকমল।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন