কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের যৌথ মালিক প্রীতি জিনতা।
কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের যৌথ মালিক প্রীতি জিনতা। ছবি: টুইটার

প্রীতি জিনতা ক্রিকেট ভালোবাসেন। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের ম্যাচে তাঁকে নিয়মিতই দেখা যায় গ্যালারিতে। সংযুক্ত আরব আমিরাতে এবার আইপিএল গড়ালেও দৃশ্যটা পাল্টায়নি। পাঞ্জাবের প্রায় প্রতি ম্যাচেই গ্যালারিতে দেখা যায় ফ্র্যাঞ্চাইজি দলটির এই যৌথ মালিককে।

এবার অবশ্য বেশিরভাগ সময়ই ভগ্নমনোরথে ফিরতে হচ্ছে প্রীতিকে। ঠোঁটের বাঁকে সেই ভুবনভোলানো হাসিটা আর থাকছে না। পাঞ্জাব যে এবার যাচ্ছেতাই খেলছে আইপিএলে। তবে কাল দৃশ্যটা পাল্টেছে। পাঞ্জাব জিতেছে, যে জয়ের পর প্রীতি বলছিলেন, আরেকটু হলেই তাঁর হার্ট অ্যাটাক হয়ে যেত!

শারজায় কাল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর মুখোমুখি হওয়ার আগে টেবিলের তলানিতে ছিল পাঞ্জাব। আগের ৭ ম্যাচে ছিল মাত্র ১ জয়। বেঙ্গালুরুকে কাল ৮ উইকেটে হারালেও টেবিলে তাদের অবস্থানের পরিবর্তন ঘটেনি। তবে কাল সহজ ম্যাচ ভীষণ কঠিন করে জেতায় প্রীতি রসিকতা করেছেন নিজের দল নিয়েই।

বিজ্ঞাপন

জয়ের জন্য শেষ দুই ওভারে মাত্র ৭ রান দরকার ছিল পাঞ্জাবের। ১৯তম ওভারে ক্রিস গেইল–লোকেশ রাহুল মিলে ৫ রান তোলার পর শেষ ওভারে সমীকরণ দাঁড়ায় ২ রান। যুজবেন্দ্র চাহালের করা সেই ওভারে এই ২ রান তুলতেই ঘাম ছুটে যায় উইকেটে ‘সেট’ হয়ে যাওয়া গেইল–রাহুলের।

গেইল তো আউট হয়েছেনই, জয়ের জন্য পাঞ্জাবকে অপেক্ষা করতে হয়েছে শেষ বল পর্যন্ত। ছক্কা মেরে জয় এনে দেন নিকোলাস পুরান। স্নায়ুক্ষয় করে তুলে আনা জয়ের আনন্দে গ্যালারিতে উল্লাস করেন বলিউড অভিনেত্রী প্রীতি জিনতা।

default-image
বিজ্ঞাপন

পরে মজা করে টুইট করেছেন পাঞ্জাবের এই জয় নিয়ে, ‘শেষ পর্যন্ত আমাদের জন্য ভীষণ প্রয়োজনীয় জয়টা মিলল। আশা করি আমাদের দল ক্রিকেটের নামে লোকের হার্ট অ্যাটাকের কারণ হয়ে দাঁড়াবে না। একটা প্রয়োজনীয় সতর্কবার্তা দিই—পাঞ্জাবের ম্যাচ দুর্বলচিত্তের লোকদের জন্য নয়। তবে আরসিবির বোলারদের ঘুরে দাঁড়ানোর প্রশংসা রইল।’

প্লে অফ পর্বে উঠতে পাঞ্জাবকে এখন আর হারলে চলবে না। বাকি সবগুলো ম্যাচই জিততে হবে। ৮ ম্যাচে ২ জয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তলানিতে পাঞ্জাব। দলটির হাতে রয়েছে আর ৬ ম্যাচ। পরশু নিজেদের পরের ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের মুখোমুখি হবে পাঞ্জাব।

মন্তব্য পড়ুন 0