default-image

এবারের আইপিএলে স্পিন বোলিংয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় সেরা পরিসিংখ্যান গুজরাটের। ওদিকে সবচেয়ে বাজে ব্যাটিং পাঞ্জাবের। স্পিনে ভালো বলে গুজরাট পেসে খারাপ এমন নয়। কিন্তু আজ সে পেসেই ঘায়েল গুজরাট। পাঞ্জাবের নতুন বলের দুই পেসার সন্দ্বীপ শর্মা ও কাগিসো রাবাদাই ম্যাচের মজা কেড়ে নিয়েছেন। দুজন মিলে ৮ ওভারে মাত্র ৫০ রান দিয়েছেন। রাবাদা পেয়েছেন ৪ উইকেট।

default-image

শুবমান গিল রান আউট হওয়ার পর ঋদ্ধিমানকে ফিরিয়েছেন রাবাদা। রিশি ধাওয়ান মাত্র ১ রানে ফিরিয়েছেন হার্দিক পান্ডিয়া। একপ্রান্ত ধরে রেখে সাই সুদর্শন ৫০ বলে ৬৫ রান করলেও সেটা গুজরাটকে মাত্র ১৪৩ রান এনে দিতে পেরেছে।

পাঞ্জাবের শুরুটা ছিল খুব বাজে। বাজে ফর্ম ধরে রেখে ১ রানে বিদায় জনি বেয়ারস্টো। কিন্তু ধাওয়ান ও রাজাপক্ষে সে ধাক্কা টের পেতে দেননি। স্পিনের বিপক্ষে পাঞ্জাব দুর্বল, এই জানা তথ্য কাজে লাগাতে পারছিল না গুজরাট। দলে একজনই স্পিনার। সেটা রশিদ খান হলেও পাওয়ার প্লেতে তাঁর বোলিংয়ে আপত্তি।

default-image

রশিদ আক্রমণে এসেছেন ৭ ওভার শেষে। ততক্ষণে পাঞ্জাবের রান ৫৮। ওদিকে রাজাপক্ষের রেকর্ড স্পিনের বিপক্ষে ভালো হওয়ায় রশিদও দাগ কাটতে পারেননি।

দ্বিতীয় উইকেট ভেঙেছে ৯৭ রান যুক্ত করার পর। ২৮ বলে ৪০ রান করা রাজাপক্ষে ফিরেছেন ফার্গুসনের বলেই। ম্যাচের তখন ৮ ওভার বাকি। পাঞ্জাবের দরকার মাত্র ৪৭ রান। সেটা মাত্র ৪ ওভারেই নিয়ে নিয়েছেন লিয়াম লিভিংস্টোন। ১০ বলে ২ চার ও ৩ ছক্কায় ৩০ রান নিয়েছেন। অন্য প্রান্তে ৫৩ বলে ৬২ রানে অপরাজিত ধাওয়ান।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন