বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম জিম্বাবুয়ের সিরিজের বাকি অংশ পারিবারিক কারণে খেলতে পারছেন না। তিনি আজ হারারে থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেবেন। হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে ১৬, ১৮ ও ২০ জুলাইয়ের ওয়ানডে ম্যাচে তাঁকে পাচ্ছে না বাংলাদেশ দল। ২৩ জুলাই শুরু হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি সিরিজেও তিনি থাকছেন না। বিসিবি সবাইকে এই মুহূর্তে মুশফিকুর ও তাঁর পরিবারের গোপনীয়তাকে সম্মানের অনুরোধ করছে।’

default-image

এর আগে জিম্বাবুয়ে সফরের একমাত্র টেস্টের পর তিনটি ওয়ানডে খেলেই দেশে ফেরার কথা ছিল মুশফিকের। টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে ছুটি নিয়েছিলেন তিনি। সে জন্য মুশফিককে বাইরে রেখেই টি-টোয়েন্টির দল ঘোষণা করেন নির্বাচকেরা। তবে জিম্বাবুয়ের জৈব সুরক্ষাবলয় থেকে বেরিয়ে দেশে ফিরলে অস্ট্রেলিয়া সিরিজের আগে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে তাঁকে। এতে সময়মতো অস্ট্রেলিয়া সিরিজের জন্য দলের সঙ্গে জৈব সুরক্ষাবলয়ে থাকতে পারবেন না তিনি। তাই টি-টোয়েন্টি সিরিজটা খেলতেই হতো মুশফিকের।

default-image

গতকালই প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন মুশফিকের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছিলেন। প্রথম আলোকে তিনি বলেছিলেন, ‘সে যদি জিম্বাবুয়ে সফরে টি-টোয়েন্টি খেলতে না চায়, তাহলে জৈব সুরক্ষাবলয় থেকে বের হয়ে দেশে ফিরে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে তাকে। সে ক্ষেত্রে অস্ট্রেলিয়া সিরিজে জৈব সুরক্ষাবলয়ে সময়মতো ঢোকা কঠিন হয়ে পড়বে তার জন্য। অস্ট্রেলিয়া সিরিজে তাকে প্রয়োজন। এ কারণে সে সিদ্ধান্ত বদলে ফেলেছে।’

এক দিন পরই জানা গেল, শুধু টি-টোয়েন্টি নয়, জিম্বাবুয়ে সফরের ওয়ানডেও খেলবেন না মুশফিক।

মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন