বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

ইজাজ আলোচনায় এসেছেন অনেকটা অপ্রত্যাশিতভাবেই, বেশ অপ্রত্যাশিত একটা কারণে। তাঁকে মনে করিয়ে দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যান মারনাস লাবুশেন।

ইজাজের মতো লাবুশেনও মিডল অর্ডারেই খেলেন। হোবার্টে শুরু হয়েছে অ্যাশেজের শেষ টেস্ট। আগেই সিরিজ জিতে যাওয়া অস্ট্রেলীয়দের ওপর এই টেস্টে প্রথম থেকেই জেঁকে বসেছে ইংল্যান্ড। সে টেস্টে আজ লাবুশেন এমন এক কাণ্ড করেছেন, তাতে ২৬ বছর আগে করা ইজাজের এমন এক কীর্তির কথা সামনে এসেছে, যে কীর্তি ইতিহাসের পাতা থেকে মুছে গেলেই হয়তো স্বস্তি পেতেন এই পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান! স্টুয়ার্ট ব্রডের আপাতনির্বিষ একটা বলে ব্যাট লাগাতে না পেরে পা পিছলে পড়ে দৃষ্টিকটুভাবে বোল্ড হয়েছেন লাবুশেন। যে আউটের সঙ্গে ২৬ বছর আগে ইজাজের একটা আউট যেন মিলে যাচ্ছে হুবহু!

সেবার ইংল্যান্ডে সিরিজ খেলতে গিয়েছিল ওয়াসিম আকরামের দল। প্রথম টেস্ট লর্ডসে। টস জিতে ব্যাট করতে নামা পাকিস্তান শুরুতেই আমির সোহেলের উইকেট হারিয়ে কাঁপছে। সাঈদ আনোয়ারের সঙ্গে তখন ইনিংস মেরামত করার দায়িত্ব ওয়ান ডাউনে নামা ইজাজের, যে পজিশনে এখন অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলে থাকেন লাবুশেন।

সাতটা বল নির্বিঘ্নে পার করা গেলেও নিজের অষ্টম বল খেলতে গিয়ে গুবলেট পাকিয়ে ফেললেন ইজাজ। ইংলিশ মিডিয়াম পেসার ডমিনিক কর্কের উইকেট বরাবর ধেয়ে আসা একটা ইনসুইঙ্গার বুঝতে না পেরে বাঁ পা সামনে এগিয়ে আনলেন ইজাজ, একদম শেষ মুহূর্তে অফসাইডে শট খেলতে চাইলেন। কিন্তু বলে লাগা তো দূর, ব্যাট লাগল প্যাডে। ততক্ষণে মিডল স্টাম্পে বল লেগে উইকেট ছত্রখান!

ঠিক একইভাবে আজ আউট হয়েছেন লাবুশেন। ইজাজের সঙ্গে তাঁর পার্থক্য এটাই, দৃষ্টিকটুভাবে আউট হলেও অমন শট খেলার পর ইজাজ নিজের ভারসাম্য বজায় রাখতে পেরেছিলেন। কিন্তু লাবুশেন পারেননি। পা পিছলে পড়ে গিয়ে হাসির খোরাক হয়েছেন। লাবুশেনের আউট দেখে ইংলিশরা তো বটেই, দেখা গেল অস্ট্রেলিয়ার ড্রেসিংরুমে হেসে খুন খোদ লাবুশেনের সতীর্থ অধিনায়ক প্যাট কামিন্স আর সহ-অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ!

default-image

হোবার্ট টেস্টের প্রথম দিনে ২৪ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ৮৫ রান করেছে অস্ট্রেলিয়া। উইকেটে আছেন ট্রাভিস হেড আর ক্যামেরন গ্রিন। ইংলিশদের হয়ে ২টি করে উইকেট নিয়েছেন স্টুয়ার্ট ব্রড আর ওলি রবিনসন।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন