default-image

আইপিএলে আট ম্যাচ খেলে এখন পর্যন্ত আট ম্যাচেই হেরেছে মুম্বাই। ওদিকে মাত্র দুই ম্যাচ জিতেছে চেন্নাই। ওদিকে এবারই আইপিএলে যোগ দেওয়া গুজরাট টাইটানস প্রথম আট ম্যাচেই জিতেছে সাতটিতে। গুজরাটের মতোই এবার যোগ হওয়া লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টস আছে তিনে। বেটওয়ের সঙ্গে কথোপকথনে পিটারসেন তাই ফেবারিটের প্রসঙ্গে গুজরাটের নামই বলেছেন আগে, ‘এই মুহূর্তে আইপিএলে গুজরাট টাইটানসকে আটকানো খুব কঠিন হবে বলে মনে হচ্ছে। ওরা ম্যাচে ভালো অবস্থায় থাকুক, মোটামুটি থাকুক বা খারাপ অবস্থায় থাকুক, নিয়মিত ম্যাচ জেতার উপায় খুঁজে বের করছে। আপনার মধ্যে জয়ী এই মানসিকতা থাকলে সেটা ভাঙা কঠিন।’

default-image

এই দলের মধ্যে শেন ওয়ার্নের সবাইকে চমকে দেওয়া প্রথম আইপিএলের সে দলের ছাপ দেখছেন পিটারসেন, ‘ওদের স্কোয়াড দেখে প্রথমে মনে হয়নি ওরা টেবিলের চূড়ায় থাকবে, কিন্তু ওরা ছন্দে আছে। ২০০৮ সালে শেন ওয়ার্নের অধীনে আইপিএল জেতা রাজস্থান রয়্যালসের কথা মনে করিয়ে দিচ্ছে ওরা। কাগজে-কলমে ওরা সেরা ছিল না, কিন্তু সবাই জানত ওরা কী করছে এবং ওদের দারুণ মানসিকতা ছিল। যখন এভাবে জিতবেন, তখন ড্রেসিংরুমের আবহটাই খুব ইতিবাচক হয়ে যায়। কেউ হার নিয়ে কথা বলে না, সবার মুখে হাসি থাকে এবং সবাই ইতিবাচক চিন্তা করে। এর ফলে নিজের মতো খেলার এবং এতে আরও ভালো করার সুযোগ করে দেয়।’

default-image

সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে গুজরাটের জয়ের ম্যাচটাকে উদাহরণ হিসেবে টেনেছেন পিটারসেন, ‘ওরা ভয় পায় না। মনে মনে যা ঠিক মনে করছে, তাই করে। সেদিন রাতে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে রশিদ খান কীভাবে ম্যাচ বের করে নিল, সেটাই দেখুন। ওর মধ্যে ওই ইতিবাচক চিন্তা ছিল বলেই করতে পেরেছে।’

ফেবারিটের চিন্তায় আরও দুই দলের কথা বলেছেন পিটারসেন। মজার ব্যাপার পয়েন্ট টেবিলে সমান ১২ পয়েন্ট পাওয়া রাজস্থানের নাম নিলেও লক্ষ্ণৌকে পাত্তা দিচ্ছেন না পিটারসেন, ‘রাজস্থান রয়্যালসও খুব ভালো করছে। আর ওদের যে অভিজ্ঞতা, তাতে দিল্লি ক্যাপিটালসও শেষ চারের জন্য ভালো দৌড় দেবে বলে মনে হচ্ছে। এবারের শিরোপা দৌড়ে আমার চোখে এরাই তিন ফেবারিট দল।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন