বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

বিসিবির পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় আজ তিনি বাংলাদেশ দলের ব্যাটিং প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘ব্যাটিংটা আমাদের ভুগিয়েছে। আমরা কিন্তু ম্যাচগুলোতে জয়ের সুযোগ তৈরি করেছিলাম। শ্রীলঙ্কার সঙ্গে ভালো ব্যাটিং করেছিলাম, তা ছাড়া বাকি ম্যাচগুলোতে আমরা ভালো ব্যাটিং করতে পারছি না। পারিনি আসলে। এই টুর্নামেন্টে ব্যাটিংয়ে যে প্রত্যাশা ছিল, আমরা তার কাছাকাছি যেতে পারিনি।’

ব্যাটিং সমস্যাটার মূলে যে বাংলাদেশ দলের ওপেনাররা, সেটি তো এবারের বিশ্বকাপই প্রমাণ।

default-image

হাবিবুল এ ব্যাপারে বলেছেন, ‘পাওয়ারপ্লেতে আমাদের ব্যাটিংয়ে অনেক উন্নতি করতে হবে, যদি আমরা টি-টোয়েন্টিতে ধারাবাহিকভাবে ভালো করতে চাই, বড় আসরে ভালো করতে চাই। অবশ্যই ব্যাটিংয়ে আমাদের উন্নতি করতে হবে।’

লোয়ার অর্ডার পাওয়ার হিটারের অভাব তো বরাবরের মতো এবারও টের পেয়েছে বাংলাদেশ, ‘নিচের দিকেও কিন্তু আমাদের পাওয়ার হিটার দরকার। অন্য দলগুলোয় এমন অনেকেই আছে, যারা ওভারে ১০ থেকে ১২ রান করে তুলতে পারে। এই জায়গায় আমাদের কিছু ঘাটতি আছে, এটা নিয়েও কাজ করতে হবে।’

default-image

এ তো গেল ব্যাটিং-বোলিংয়ের কথা। ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটারদের ‘পিচ্ছিল হাত’ সমস্যার সমাধান মিলছে না। এবারের বিশ্বকাপে ছয় ম্যাচ খেলে ১২টি ক্যাচ হাতছাড়া করেছে বাংলাদেশ দলের ফিল্ডাররা।

হাবিবুল এ ক্ষেত্রেও দেখতে চান দ্রুত উন্নতি, ‘কোনো ম্যাচে ব্যাটিং-বোলিং তো খারাপ হতেই পারে। তবে ফিল্ডিংয়ে ধারাবাহিকভাবে ভালো করতেই হবে। সেটা যেকোনো ম্যাচেই হোক। বড় আসর হলে তো আরও গুরুত্বপূর্ণ। সেখানে আরও বেশি চাপ থাকে। মিস ফিল্ডিং আসলে দলের ছন্দটাই নষ্ট করে দেয়। এই এক জায়গায় আমি আরও অনেক উন্নতি দেখতে চাই ভবিষ্যতে।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন