বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

এখন জানা গেছে, পেইনের ঝামেলা আরও বাড়তে পারত। অশ্লীল বার্তার শিকার ভুক্তভোগী সেই নারী আইনি খরচ মেটানোর জন্য ক্ষমা ছাড়াও পেইনের কাছে আইনি খরচ বাবদ ৪০ হাজার ডলার চেয়েছিলেন। বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় সাড়ে ৩৪ লাখ টাকা।

ঘটনা মূলত ২০১৭ সালের নভেম্বরের। সেবারের অ্যাশেজ শুরুর ঠিক আগে আগে। ক্রিকেট তাসমানিয়ার এক নারী কর্মীকে কিছু যৌন উত্তেজক বার্তা ও অশ্লীল ছবি পাঠিয়েছিলেন পেইন। সেই নারী কর্মী বিষয়টি ক্রিকেট তাসমানিয়া ও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াকে জানান। এটা নিয়ে তদন্তও হয়। কিন্তু ক্রিকেট তাসমানিয়া ও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার কারও কাছেই তখন মনে হয়নি যে পেইন আচরণবিধি ভেঙেছেন! পেইনকে তারা কোনো ধরনের শাস্তি না দিয়েই ছেড়ে দেয়।

default-image

এদিকে ভুক্তভোগী ও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার মধ্যস্থতাকারী শন মুলকাহি জানিয়েছেন, পেইন তাঁর কাছে ক্ষমা চাইবেন, সেটি তো চেয়েছিলেনই, এর পাশাপাশি ওই নারী কর্মী নিজের আইনি খরচ মেটানোর জন্য ৪০ হাজার ডলার চেয়েছিলেন। তবে পেইনের এই কাণ্ড সবাই জানুক, এটা চাননি, ‘আমাকে বলা হয়েছিল ভুক্তভোগী ব্যাপারটা গোপনীয় রাখতে চান। তিনি চেয়েছিলেন ক্রিকেট তাসমানিয়া যেন তাঁর কাছে ক্ষমা চায়, আর আইনি খরচ বাবদ ৪০ হাজার ডলার দেয়।’


সেই নারীকে ক্ষতিপূরণ বাবদ আরও অর্থ দাবি করার প্রস্তাব দেওয়া হলেও তিনি রাজি হননি। দ্য এজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মুলকাহি নিজেই জানিয়েছেন এ কথা, ‘আমি তাঁকে বলেছিলাম, সামনেই অ্যাশেজ। এ ছাড়াও দক্ষিণ আফ্রিকার বল টেম্পারিং–কাণ্ডের জন্য অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটে টালমাটাল অবস্থা চলছে। ছাঁটাই হয়েছেন অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। এই অবস্থায় তিনি নিজের এই কাহিনির জন্য বাড়তি অর্থ দাবি করতে পারেন। তবে তিনি শেষমেশ সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন, এই ঘটনাকে আর বাড়তে দিতে চান না। এই ঘটনা সবাই জানুক, সেটা তিনি চান না।’

পেইনের এই কাণ্ডে আপাতত ঝড়ই বইছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটে। অ্যাশেজের আগে নতুন টেস্ট অধিনায়ক খুঁজছে অস্ট্রেলিয়া। সম্ভাব্য অধিনায়ক হিসেবে উঠে এসেছে পেসার প্যাট কামিন্সের নাম।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন