বিজ্ঞাপন
default-image

ফাইনালের আগে নিজের বোলিং নিয়ে আজ এক ভিডিও বার্তায় রুবেল বলেছেন, 'আমি বোলিং নিয়ে সন্তুষ্ট। কারণ আমি যেভাবে বোলিং করতে চাচ্ছি, আমার মনে হয় আমি সেভাবে বোলিং করছি, বিশেষ করে নতুন বলে। সবকিছু ঠিক আছে। আলহামদুলিল্লাহ আমি অনেক খুশি।’

টুর্নামেন্টে সব ফাস্ট বোলারই ভালো করছে। সবাই বেশ মিতব্যয়ী এবং নতুন বল, পুরোনো বলে উইকেট নিচ্ছে।
তাসকিন আহমেদ

শুধু রুবেল নন, বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপে অন্য পেসাররাও দারুণ সফল। টুর্নামেন্টের সেরা দশ উইকেট শিকারিদের তালিকায় আটজনই পেসার। করোনার সময় পেসাররা ফিটনেস নিয়ে কঠোর পরিশ্রম করেছেন। টানা ক্রিকেটের ধকল ছিল না। সঙ্গে জাতীয় দলের প্রতিযোগিতার চাপ তো আছেই। এসবই নাকি পেসারদের ভালো পারফরম্যান্সের কারণ।

রুবেল বলছিলেন, 'প্রত্যেকটা পেস বোলার, প্রত্যেক ক্রিকেটারই এই মহামারির সময় অনেক কষ্ট করেছে। সেটার ফল এখন পেস বোলাররা ভালোভাবে পাচ্ছে। প্রতিযোগিতা থাকাটা বাংলাদেশ দলের জন্যই ভালো। খেলায় প্রতিযোগিতা থাকলে আমার কাছেও ভালো লাগে।’

default-image

নাজমুল একাদশের মূল পেসার তাসকিন আহমেদও দারুণ ছন্দে। করোনার সময় কঠোর পরিশ্রম করেছেন তিনিও। ফিটনেস বাড়ানোর ফল পাচ্ছেন এখন। গত ম্যাচে তামিম একাদশের বিপক্ষে দারুণ বোলিং করে নিয়েছেন চার উইকেট।

ফাইনালেও নাজমুল একাদশকে ম্যাচ জেতানো পারফরম্যান্স করতে চান তাসকিন, 'টুর্নামেন্টে সব ফাস্ট বোলারই ভালো করছে। সবাই বেশ মিতব্যয়ী এবং নতুন বল, পুরোনো বলে উইকেট নিচ্ছে। আমাকে আরও উন্নতি করতে হবে, কিন্তু আগের চেয়ে বোলিং ভালো হচ্ছে। আমি কাজ করছি, আল্লাহ যদি চান সামনে আরও ভালো কিছু হবে। সবাই দোয়া করবেন।’

default-image

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপে ভালো সময় যাচ্ছে না ব্যাটসম্যানদের। বিশেষ করে টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা কিছুই করতে পারছেন না। তাসকিন সে জন্য বোলারদেরই কৃতিত্ব দিলেন, 'ব্যাটসম্যানদের কঠিন সময় যাচ্ছে, বিশেষ করে নতুন বলে প্রথম পাওয়ার প্লেতে। বোলারদের কৃতিত্ব দিতেই হবে যে তারা ধারাবাহিকভাবে ভালো জায়গায় বল করেছে, পরিকল্পনা কাজে লাগাচ্ছে। ব্যাটসম্যানদের সহজ বা খেলার মতো বল কম দেওয়া হয়েছে। সে জন্যই পেসাররা ভালো করেছে।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন