প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে দেখা গিয়েছিল খেলোয়াড়দের।
প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে দেখা গিয়েছিল খেলোয়াড়দের। প্রথম আলো ফাইল ছবি

করোনায় জৈব সুরক্ষাবলয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট হলেও ঘরোয়া ক্রিকেট বন্ধই হয়ে আছে। গত ২২ ফেব্রুয়ারি প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট জাতীয় লিগ শুরু হয়েছিল। কিন্তু মার্চে করোনার সংক্রমণ বেড়ে গেলে দুই রাউন্ড পরই স্থগিত করতে হয় তা। দলগুলোর অনেক খেলোয়াড়–কর্মকর্তাও তখন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন।

ঘরোয়া ক্রিকেট বন্ধ থাকায় বন্ধ হয়ে আছে দেশের বেশির ভাগ ক্রিকেটারের আয়ের উৎসও। তবে তাঁদের সামনে আবারও আশার আলো দেখা দিয়েছে আজ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) দেওয়া এক ঘোষণায়। বিসিবি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, ২০১৯–২০ মৌসুমের স্থগিত প্রিমিয়ার লিগটি নতুন করে শুরু হবে ৩১ মে থেকে।

বিজ্ঞাপন

বঙ্গবন্ধু ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ নামে এই লিগ এবার হবে টি–টোয়েন্টি সংস্করণে। ২০২০ সালের ১৯ মার্চ করোনার কারণেই লিগ বন্ধ হয়ে গিয়েছিল ৬টি ম্যাচ হওয়ার পর।

প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ শুরুর আগেই ঢাকায় হয়ে যাবে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশ দলের তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। সে ক্ষেত্রে ৩১ মে থেকে শুরু লিগে খেলতে পারার কথা জাতীয় দলের ক্রিকেটারদেরও।

সিসিডিএমের চেয়ারম্যান কাজী ইনাম আহমেদ বলেছেন, ‘প্রিমিয়ার লিগ ৩১ মে থেকে শুরুর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। আগে নেওয়া সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এটি হবে টি–টোয়েন্টি সংস্করণে। ব্যস্ত আন্তর্জাতিক সূচি এবং আসন্ন টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে আমাদের মনে হয়েছে ২০১৯–২০ মৌসুমে টি–টোয়েন্টি লিগ আয়োজন করলেই ভালো হবে।’

করোনা সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে এবার ক্রিকেটার–কর্মকর্তাদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার ওপর বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন সিসিডিএম প্রধান। স্বাস্থ্যবিধি মেনে লিগ আয়োজনের ব্যাপারে ক্লাব ও ক্রিকেটারদের সমর্থন চেয়েছেন তিনি।

default-image

প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ শুরুর আগেই অবশ্য ঢাকায় হয়ে যাবে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশ দলের তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। সম্ভাব্য সূচি অনুযায়ী ম্যাচ তিনটি হওয়ার কথা ২৩, ২৫ ও ২৭ মে। সে ক্ষেত্রে ৩১ মে থেকে শুরু লিগে খেলতে পারার কথা জাতীয় দলের ক্রিকেটারদেরও।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন