এবার কি হবে শাপমোচন? ২৯ মার্চ মেলবোর্নের ফাইনালেই কি তারা হাসবে শিরোপা জয়ের হাসি? দক্ষিণ আফ্রিকা নিশ্চয়ই সেই দিন আর মুহূর্তটির ছবি আঁকছে। টুর্নামেন্ট অবশ্য মাত্রই শুরু, এখনই আশার বেলুন ফোলানো একটু তাড়াতাড়ি হয়ে যায়। তবে অ্যালান ডোনাল্ড কিন্তু অস্ফুটে সেই ইচ্ছাটা জানিয়ে দিলেন। আগামীকাল ভারতের সঙ্গে দক্ষিণ আফ্রিকা মুখোমুখি সেই মেলবোর্নে। দক্ষিণ আফ্রিকার ইতিহাসের অন্যতম সেরা পেসারের চোখে এই ম্যাচটি ফাইনালের মহড়াও বটে।
দক্ষিণ আফ্রিকাকে মেলবোর্নে এক অর্থে ১২ জনের বিপক্ষে খেলতে হবে। এমসিজি যে বর্ণিল হয়ে থাকবে ভারতের তেরঙা পতাকায়। অজস্র প্রবাসী ভারতীয় গ্যালারিকে এক টুকরো ইডেন গার্ডেন বা ওয়াংখেড়ে বানিয়ে ফেলতে চেষ্টার কমতি রাখবেন না। ডোনাল্ড সেটা মনে করিয়ে দিয়েই বললেন, ‘খেলা তো আসলে হবে ভারতের মাঠেই। এক লাখ মানুষের মধ্যে প্রচুর ভারতীয় দর্শক থাকবে। তাদের স্তব্ধ করে দিতে পারাটা হবে বড় ব্যাপার।’ মেলবোর্ন এমনিতেই ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে সব সময়ই অন্য রকম এক আবেদন ছড়ায়। এটিও দুই দলের সেরাটা বের করে আনবে বলেই মনে করেন ‘সাদা বিদ্যুৎ’।
ডোনাল্ডের না-বলা কথাটা বলেছেন সাবেক দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক গ্রায়েম স্মিথ। বিশ্বকাপে পাকিস্তানের যেমন ভারত-জুজু, দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে ভারতের ঠিক উল্টো। বিশ্বকাপে দুই দলের মুখোমুখি তিন ম্যাচেই জিতেছে প্রোটিয়ারা। তবে তিন ম্যাচেই একটা মিল দেখতে পাচ্ছেন স্মিথ, ‘এই দুই দল বিশ্বকাপে মুখোমুখি হয়ে স্মরণীয় কয়েকটি ম্যাচের জন্ম দিয়েছে। অ্যাডিলেড (১৯৯২), হোভ (১৯৯৯) বা নাগপুরে (২০১১) প্রতিটি ম্যাচই ছিল গুরুত্বপূর্ণ। তিনবারই দক্ষিণ আফ্রিকা রান তাড়া করে জিতেছে।’
ভারতের ব্যাটিং লাইনআপের যে গভীরতা, তাতে আগের ইতিহাসেরই পুনরাবৃত্তি চান স্মিথ, ‘২০১৩ সাল থেকে পরে ব্যাট করে ভারতই সবচেয়ে বেশি ম্যাচ জিতেছে। যেকোনো রান তাড়া করার ক্ষমতা আছে ওদের। শিখর ধাওয়ান, রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহলি গত কয়েক বছরে ওয়ানডেতে সবচেয়ে বেশি রান করা ব্যাটসম্যান।’ রায়না, রাহানে, ধোনি সঙ্গে যোগ হওয়ায় ভারতের ব্যাটিং দুর্দান্তই। আজ লড়াইটা হবে এই ব্যাটিং বনাম দক্ষিণ আফ্রিকান পেস ব্যাটারি। দক্ষিণ আফ্রিকার জন্য স্বস্তির যে, ফ্লু থেকে সেরে উঠে অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন তাদের সেরা পেসার ডেল স্টেইন। আইসিসি, এনডিটিভি।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন