default-image

বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে পাকিস্তানের রেকর্ড যেমন, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ভারতের ঠিক তা-ই। এর আগে ৩ ম্যাচ খেলে একটিতেও জিততে পারেনি ভারত। এমনকি অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে মুখোমুখি একমাত্র সাক্ষাতেও প্রোটিয়াদের বিপক্ষে হেরেছিল ভারত। আজ যেন পুরোনো রেকর্ড বদলের অঙ্গীকার নিয়েই মাঠে নেমেছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির দল। এমসিজিতে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১৩০ রানে হারিয়ে সে লক্ষ্য পূরণ হলো অনায়াসেই। 
ভারতের দেওয়া ৩০৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নামা প্রোটিয়ারা শুরুতেই দিশেহারা! ৪০ রানেই ফিরে গেলেন দুই ওপেনার। তৃতীয় উইকেট জুটিতে এবি ডি ভিলিয়ার্স-ফাফ ডু প্লেসি একটা চেষ্টা চালিয়েছিল বটে, তবে তা ভেস্তে যায় মোহিত শর্মার দারুণ এক থ্রো’য়ে। ডি ভিলিয়ার্স-ডু প্লেসির এ জুটিতে আসে ৬৮ রান। রান আউটে কাটা পড়ার আগে ডি ভিলিয়ার্সের সংগ্রহ ৩০ রান। তবে ভারতের গলার কাঁটা হয়ে বেশ কিছুক্ষণ উইকেটে ছিলেন ডু প্লেসি। কিন্তু আবারও প্রোটিয়াদের হন্তারক হিসেবে হাজির মোহিত। মোহিতের বলে ধাওয়ানের হাতে ক্যাচে পরিণত হওয়ার আগে ডু প্লেসির ব্যাট থেকে আসে সর্বোচ্চ ৫৫ রান। ২২.৪ ওভারে ২ উইকেটে ১০৮ থেকে ৪০.২ ওভারেই ১৭৭ রানে অলআউট দক্ষিণ আফ্রিকা—শেষ ৬৯ রানেই পড়ল ৮ উইকেট! ভারতীয় বোলারদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩ উইকেটে নিলেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন।
এর আগে টসে জিতে ব্যাটিং করে ৩০৭ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে ভারত। ধাওয়ানের ক্যারিয়ার-সেরা ১৩৭, রাহানের ৭৯ আর কোহলির ৪৬ রানের ইনিংসের ওপর ভর করে ৫০ ওভারে স্কোরবোর্ডে ৭ উইকেটে ৩০৭ রান তোলে ধোনির দল।
সাম্প্রতিক সময়ে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দেখিয়েই বিশ্বকাপে খেলতে এসেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। কিন্তু এখনো পর্যন্ত প্রোটিয়াদের সেই ধার দেখা গেল কোথায়? স্নায়ুচাপ ভর করলেই প্রোটিয়ারা যেন খোলসের ভেতরে ঢুকে যায়। আজও তা-ই। অন্যদিকে বিপরীত অবস্থা ভারতের। গত তিন মাসে অস্ট্রেলিয়া কন্ডিশনে খাবি খেতে থাকা ভারত বিশ্বকাপে কী দুর্দান্ত চেহারায় না ফিরল! ‘বি’ গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলে পূর্ণ ৪ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে ভারত। সামনের ম্যাচগুলোয় এ গতি ধরে রাখতে পারলে আরও সুখবরই অপেক্ষা করছে ভারতীয় সমর্থকদের জন্য!

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন